মধ্যবর্তী নির্বাচন: প্রতিনিধি পরিষদে রিপাবলিকানদের নেতা হলেন কেভিন ম্যাককার্থি

প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যান্ডি বিগসকে ১৮৮-৩১ ভোটে হারিয়েছেন তিনি।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 16 Nov 2022, 12:05 PM
Updated : 16 Nov 2022, 12:05 PM

যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ পুনর্দখলে নিঃশ্বাস দূরত্বে দাঁড়িয়ে থাকা অবস্থায় প্রতিনিধি পরিষদে নিজেদের নেতা ঠিক করে ফেলল রিপাবলিকানরা।

মঙ্গলবার নেতৃত্ব নির্বাচনের রূদ্ধদ্বার ভোটে কেভিন ম্যাককার্থি প্রতিদ্বন্দ্বী অ্যান্ডি বিগসকে ১৮৮-৩১ ভোটে হারিয়েছেন।

মধ্যবর্তী নির্বাচনের এক সপ্তাহ পেরিয়ে যাওয়ার পরও যুক্তরাষ্ট্রে এখনও ভোট গণনা শেষ হয়নি। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত প্রতিনিধি পরিষদের ৪৩৫টির মধ্যে ৪২৪টির ফল জানা গেছে, তাতে রিপাবলিকনরা ২১৭-২০৭ এ এগিয়ে আছেন।

আর একটি আসন নিশ্চিত হলেই প্রতিনিধি পরিষদে রিপাবলিকান সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিশ্চিত হবে, সেক্ষেত্রে কেভিন ম্যাককার্থিই হতে পারেন পরবর্তী স্পিকার; তবে এজন্য বিগসকে ভোট দেওয়া সহকর্মীদের সমর্থনও ব্যাগে ভরতে হবে তার, বলেছে বিবিসি।

স্পিকার হলে ম্যাককার্থি এ পদে ডেমোক্র্যাট ন্যান্সি পেলোসির স্থলাভিষিক্ত হবেন।

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ডেমোক্র্যাট দল এরই মধ্যে উচ্চকক্ষ সেনেটে তাদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিশ্চিত করে ফেলেছে।

ক্যালিফোর্নিয়ার বাসিন্দা ম্যাককার্থি ২০০৭ সাল থেকেই নিম্নকক্ষে দলের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করছেন।

কয়েকদিন আগে প্রতিনিধি পরিষদের রিপাবলিকান সদস্যদের কাছে পাঠানো এক চিঠিতে তিনি স্পিকার হিসেবে নিজের প্রতিদ্বন্দ্বিতার কথা ঘোষণা করেন। ওই চিঠিতে তিনি দলীয় সহকর্মীদের ‘লক্ষ্য পূরণে একতাবদ্ধ হতে’ আহ্বান জানিয়েছিলেন।

গত বছরের ৬ জানুয়ারি ক্যাপিটলে দাঙ্গার সময় ম্যাককার্থির সঙ্গে ফোনে তখনকার মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয় বলে একাধিক খবরে বলা হয়েছিল। সেদিন সমর্থক বিক্ষোভকারীদের বাড়ি যেতে বলতে ট্রাম্পকে অনুরোধ করেছিলেন ম্যাককার্থি।

এর কয়েকদিন পরই ম্যাককার্থি সাবেক প্রেসিডেন্টের মার-আ-লগোর বাসভবনে গিয়ে তার সঙ্গে দেখা করেন এবং এর পর থেকে দুজনের সম্পর্ক ভালো বলেই মনে হচ্ছে।

নিম্নকক্ষে নেতা নির্বাচিত করতে পারলেও রিপাবলিকানরা এখনও উচ্চকক্ষে তাদের নেতা ঠিক করতে পারেনি। মঙ্গলবার এক মধ্যাহ্নভোজে ফ্লোরিডার সেনেটর রিক স্কট এখনকার রিপাবলিকান নেতা মিচ ম্যাককনেলের বিরুদ্ধে দাঁড়ানোর আগ্রহ ব্যক্ত করেছেন।

তেমনটা হলে ১৫ বছরের মধ্যে এবারই প্রথম দলে প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখে পড়বেন ম্যাককনেল, যা একই সঙ্গে মধ্যবর্তী নির্বাচন ঘিরে রিপাবলিকানদের মধ্যে অসন্তোষের বিষয়টিও প্রকট করছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক