নিপ্রোর ভবনে হামলা নিয়ে ‘ভুল তথ্য’ দিয়ে বিপাকে জেলেনস্কির উপদেষ্টা

ওলেক্সি আরেসতোভিচ নিজের বক্তব্যের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করে পদত্যাগের সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন। তবে ইউক্রেইনের প্রেসিডেন্ট জেলনস্কি এখনও এ বিষয়ে কিছু বলেননি।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 17 Jan 2023, 05:35 PM
Updated : 17 Jan 2023, 05:35 PM

নিপ্রোতে একটি বহুতল আবাসিক ভবনে রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র হামলা নিয়ে ‘ত্রুটিপূর্ণ’ তথ্য দেওয়ার দায় মাথায় নিয়ে ইউক্রেইনের প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টার দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়াতে পদত্যাগপত্র দিয়েছেন ওলেক্সি আরেসতোভিচ।

এ ঘটনায় ক্ষমা প্রার্থনা করে ওলেক্সি বলেছেন, তিনি ‘বড় ধরনের ভুল করে ফেলেছেন’।

তবে আরেসতোভিচের পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রেসিডেন্ট জেলনস্কি বা তার কার্যালয় থেকে এখন পর্যন্ত কোনও মন্তব্য করা হয়নি বলে জানিয়েছে বিবিসি।

ইউক্রেইন যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে ইউটিউবে নিয়মিত যুদ্ধের খবরাখবর নিয়ে ভিডিও পোস্ট করে বিশ্বজুড়ে দারুণ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন আরেসতোভিচ। লাখ লাখ মানুষ প্রতিদিন তার ভিডিও দেখে।

গত শনিবারের হামলা নিয়ে তেমনই একটি ভিডিওতে প্রাথমিকভাবে আরেসতোভিচ বলেছিলেন, ইউক্রেইনের আকাশ সুরক্ষা ব্যবস্থা রাশিয়ার ছোড়া একটি ক্ষেপণাস্ত্রকে ভূপাতিত করলে ওই ক্ষেপণাস্ত্রের ধ্বংসাবশেষ নিপ্রোর আবাসিক ভবনের ওপর গিয়ে পড়ে।

ইউক্রেইন বলেছে, রাশিয়ার একটি কেএইচ-২২ ক্ষেপণাস্ত্র ওই ভবনে আঘাত হেনেছে। যেটি ভূপাতিত করার সক্ষমতা তাদের আকাশ সুরক্ষা ব্যবস্থায় নেই। উপদেষ্টা আরেসতোভিচের বক্তব্য ‘চূড়ান্ত রকমের বেঠিক’।

আরিসতোভিচের বক্তব্যের বিরুদ্ধে ক্ষোভের সঙ্গে প্রতিবাদ জানিয়েছে ইউক্রেইনের জনগণ। কেউ কেউ তার দিকে ‍অভিযোগের আঙুল তুলে বলেছেন, তিনি রাশিয়ার প্রচারকদের অবস্থানকে শক্তিশালী করছেন।

Also Read: নিপ্রোতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় নিহত বেড়ে ৪০, জার্মান প্রতিরক্ষামন্ত্রীর পদত্যাগ

Also Read: নিপ্রোতে ভবনে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় নিহত বেড়ে ২৫, নিখোঁজ ৪৩

ইউক্রেইনের পার্লামেন্টের কয়েকজন সদস্য একটি পিটিশনে সই করে তাকে সরকারি কর্মকর্তার পদ থেকে বরখাস্ত করার দাবিও জানিয়েছেন বলে জানায় বিবিসি। তারপর একটি চিঠি পোস্ট করে আরিসতোভিচ তার পদত্যাগের ইচ্ছার কথা জানিয়ে বলেন, তিনি ‘বড় ধরনের ভুল করেছেন’।

টেলিগ্রামে দীর্ঘ পোস্টে তিনি আরও লেখেন, ‘‘আমি হতাহতদের ও তাদের স্বজনদের কাছে, নিপ্রোর বাসিন্দাদের এবং ওইসব ব্যক্তি যারা নিপ্রোর আবাসিক ভবনে রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র হামলা নিয়ে আমার আগাম ত্রুটিপূর্ণ বক্তব্যের কারণে গভীরভাবে মর্মাহত হয়েছেন, তাদের সবার কাছে আন্তরিকভাবে ক্ষমা প্রার্থনা করছি।”

ইউক্রেইন সরকার ব্যবস্থায় যে কয়েকজন যুদ্ধ শুরুর পর বিশ্বজুড়ে তুমুল জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন আরিসতোভিচ তার অন্যতম।

যুদ্ধ পরিস্থিতি নিয়ে তিনি নিয়মিত তার ইউটিউব চ্যানেলে বিশ্লেষণমূলক বক্তব্য পোস্ট করেন।

১৬ লাখের বেশি মানুষ তার চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার এবং দুই লাখের বেশি মানুষ নিয়মিত তার ভিডিও দেখেন। তিনি ইউক্রেইনের অন্যান্য কর্মকর্তাদের মতো ইউক্রেইনীয় ভাষায় কথা না বলে বরং রুশ ভাষায় কথা বলেন।

আরিসতোভিচের বক্তব্য রাশিয়াও লুফে নেয় এবং ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ দাবি করেন, রাশিয়া ‘আবাসিক ভবনে হামলা চলায়নি’।

তিনি বলেন, ‘‘সম্ভবত ইউক্রেইনের আকাশ সুরক্ষা ব্যবস্থার কারণে এমনটা হয়েছে।” শেষে তিনি এও বলেন, ‘‘ইউক্রেইনের দিকের প্রতিনিধিরাও বিষয়টি স্বীকার করেছেন।”

নিপ্রোর ওই ভবন থেকে এখন পর্যন্ত ৪৪টি মৃতদেহ উদ্ধারের কথা জানিয়েছে ইউক্রেইনের কর্মকর্তারা। এখনো বহু মানুষ নিখোঁজ আছেন এবং ভবনের ধ্বংসস্তূপের নিচে থেকে আর কাউকে জীবিত উদ্ধারের আশা ‘খুবই ক্ষীণ’।

শুধু নিপ্রো নয় বরং রাজধানী কিইভ, খারকিভ ও ওদেসাতেও শনিবার তীব্র ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় রাশিয়া।

ছবি: রয়টার্স

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক