মিয়ানমার সীমান্তে বেড়া নির্মাণে ৩৭০ কোটি ডলার ব্যয় করবে ভারত

এ বছরের শুরুতে দিল্লি মিয়ানমারের সঙ্গে তাদের কয়েক দশক পুরানো ভিসা-মুক্ত চলাচল নীতি থেকে সরে আসার ঘোষণা দেয়।

রয়টার্সবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 March 2024, 09:55 AM
Updated : 27 March 2024, 09:55 AM

মিয়ানমারের সঙ্গে ১,৬১০ কিলোমিটার দীর্ঘ সীমান্তে বেড়া নির্মাণ করতে ভারত সরকার প্রায় ৩৭০ কোটি মার্কিন ডলার ব্যয় করার পরিকল্পনা করেছে। বেড়া নির্মাণ কাজ শেষ হতে এক দশক সময় লেগে যাবে।

এ বিষয়ে খুব ভালোভাবে অবগত আছেন এমন এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ তথ্য জানিয়েছে। ওই কর্মকর্তা নিজের নাম প্রকাশ করতে রাজি হননি।

এ বছরের শুরুতে দিল্লি মিয়ানমারের সঙ্গে তাদের কয়েক দশক পুরানো ভিসা-মুক্ত চলাচল নীতি থেকে সরে আসার এবং যুদ্ধবিক্ষুব্ধ প্রতিবেশী সীমান্তে বেড়া নির্মাণের ঘোষণা দেয়। এর কারণ ব্যাখ্যায় ভারত সরকার থেকে বলা হয়, তারা সীমান্ত এলাকায় বসবাস করা নিজদের নাগরিকদের নিরাপত্তা ও জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে এবং উত্তরপূর্বাঞ্চলের ভূপ্রাকৃতিক অবকাঠামো ঠিক রাখতে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

রয়টার্সের খবরে বলা হয়, এ মাসের শুরুতে ভারত সরকারের একটি কমিটি সীমান্ত বেড়া নির্মাণ ব্যয়ে অনুমোদন দেয়। এখন এতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মন্ত্রিসভার অনুমোদন প্রয়োজন।

রয়টার্স থেকে এ বিষয়ে জানতে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, স্বরাষ্ট্র, অর্থ, পররাষ্ট্র এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ করা হয়েছিল। কিন্তু তাদের কারো কাছ থেকেই কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।

মিয়ানমার জান্তা সরকার থেকেও এখন পর্যন্ত ভারত সরকারের সীমানা বেড়া নির্মাণ পরিকল্পনার বিষয়ে কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

২০২১ সালের ফেব্রুয়ারিতে অভ্যুত্থানের মাধ্যমে নির্বাচিত সরকারকে হটিয়ে মিয়ানমারের ক্ষমতা দখল করে দেশটির সেনাবাহিনী। তারপর থেকে নানা আঞ্চলিক বিচ্ছিন্নতাবাদী এবং বিদ্রোহী গোষ্ঠীর সঙ্গে দেশের বিভিন্ন রাজ্যে মিয়ানমার সৈন্যদলের লড়াই চলছে। গত কয়েক মাসের লড়াইয়ে বিদ্রোহীরা বেশ কিছু অঞ্চল এবং শহরের দখলও নিয়েছে।

আরও পড়ুন

Also Read: মিয়ানমার সীমান্তে বেড়া: ভারতের কেন্দ্র সরকারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে মিজোরাম