ইসরায়েলিকে অস্ত্র সরবরাহ করায় মালয়েশিয়ায় গ্রেপ্তার ৩

মালয়েশীয় পুলিশ জানিয়েছে, গত সপ্তাহে ওই ইসরায়েলিকে ৬টি পিস্তলসহ কুয়ালালামপুরের এক হোটেল থেকে আটক করা হয়।

নিউজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 March 2024, 09:21 AM
Updated : 30 March 2024, 09:21 AM

ইসরায়েলি পাসপোর্টধারী এক ব্যক্তিকে আগ্নেয়াস্ত্র সরবরাহ করেছে, সন্দেহভাজন এমন তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে মালয়েশিয়ার কর্তৃপক্ষ।

দেশটির পুলিশ জানায়, গত সপ্তাহে ৩৬ বছর বয়সী ওই ইসরায়েলিকে কুয়ালালামপুরের এক হোটেল থেকে আটক করা হয়।

শুক্রবার রাতে এক সংবাদ সম্মেলনে মালয়েশীয় পুলিশের মহাপরিদর্শক রাজারউদ্দিন হুসেইন জানান, গ্রেপ্তার ওই ইসরায়েলির সঙ্গে থাকা ব্যাগে ছয়টি পিস্তল ও ২০০ রাউন্ড গুলি পাওয়া গেছে। তিনি ১২ মার্চ সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে কুয়ালালামপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে এসে নামেন। কর্তৃপক্ষের বিশ্বাস তিনি ফ্রান্সের জাল পাসপোর্ট ব্যবহার করে মালয়েশিয়ার প্রবেশ করেছেন।

রাজারউদ্দিন আরও জানান, পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের মুখে ওই ব্যক্তি একটি ইসরায়েলি পাসপোর্ট বের করে দেন। মালয়েশিয়া আসার পর এই সন্দেহভাজন অস্ত্রগুলোর অর্ডার দেন আর ক্রিপ্টোকারেন্সিতে সেগুলোর মূল্য পরিশোধ করেন।

রয়টার্স জানিয়েছে, তবে মালয়েশীয় কর্তৃপক্ষ কথিত এই ইসরায়েলির নাম প্রকাশ করেনি। এ বিষয়ে মন্তব্যের জন্য অনুরোধ জানিয়ে সিঙ্গাপুরের ইসরায়েলি দূতাবাসে ইমেইল করা হলেও তারা তাৎক্ষণিকভাবে জবাব দেয়নি। মালয়েশিয়া ও ইসরায়েলের মধ্যে কোনো কূটনৈতিক সম্পর্ক নেই।

ওই ব্যক্তি ইসরায়েলি গোয়েন্দা সংস্থার সদস্য হতে পারেন, মালয়েশীয় পুলিশ এমন সম্ভাবনা বাতিল করেনি।

তবে ওই ইসরায়েলি দাবি করেছেন, পারিবারিক বিরোধের কারণে খুঁজতে থাকা আরেক ইসরায়েলি নাগরিকের সন্ধানে তিনি মালয়েশিয়ায় এসেছেন।

রাজারউদ্দিন বলেছেন, “আমরা এই বক্তব্য পুরোপুরি বিশ্বাস করেনি। আমাদের সন্দেহ, এখানে অন্য কোনো বিষয় থাকতে পারে। “

এই ব্যক্তি মালয়েশিয়া আসার পর থেকে বেশ কয়েকটি হোটেলে থেকেছেন বলে জানান তিনি।

রাজারউদ্দিন শনিবার রয়টার্সকে জানান, সন্দেহভাজন ইসরায়েলির গাড়ির চালকের ভান করা তিন মালয়েশীয়কে শুক্রবার গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তারা ওই ইসরায়েলিকে অস্ত্র সরবরাহ করেছে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে। গ্রেপ্তারদের মধ্যে এক দম্পতি আছেন।

এদের সাত দিনের জন্য পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে বলে এ পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন। ওই দম্পতির গাড়ি থেকেও একটি পিস্তল উদ্ধার করা হয়েছে।

ওই ইসরায়েলিকে গ্রেপ্তারের পর থেকে মালয়েশিয়াজুড়ে উচ্চ পর্যায়ের সতর্কতা জারি করা হয়েছে। মালয়েশিয়ার রাজা, প্রধানমন্ত্রী আনওয়ার ইব্রাহিম ও অন্যান্য উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে।

মুসলিম প্রধান দেশ মালয়েশিয়া ফিলিস্তিনিদের কট্টর সমর্থক। দেশটি গাজায় ইসরায়েলি হত্যাযজ্ঞের তীব্র নিন্দা জানিয়ে আসছে। দেশটিতে ৬০০ ফিলিস্তিনি শরণার্থী আশ্রয় নিয়ে আছে বলে তথ্য জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থার।

২০১৮ সালে কুয়ালালামপুরে এক ফিলিস্তিনি বিজ্ঞানীকে গুলি করে হত্যা করেছিল দুই অজ্ঞাত হামলাকারী। ইসরায়েলি গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদ এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ ফিলিস্তিনি স্বাধীনতাকামী গোষ্ঠী হামাসের। ইসরায়েল এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

আরও পড়ুন:

Also Read: গাজায় ইসরায়েলি বিমান হামলায় নিহত বহু