চীনে সম্পূর্ণ চালকবিহীন রোবোট্যাক্সির লাইসেন্স বাইদুর হাতে

স্বনিয়ন্ত্রিত যানবাহন প্রযুক্তির ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সমান তালে এগোনোর চেষ্টা করছে চীন। সম্প্রতি স্বনিয়ন্ত্রিত যানের নীতিমালা প্রণয়নে বড় পদক্ষেপ নিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের বাজার নিয়ন্ত্রকরা।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 August 2022, 11:39 AM
Updated : 8 August 2022, 11:39 AM

চীনের দুটি শহরে পুরোপুরি চালকবিহীন রোবোট্যাক্সি সেবা পরিচালনার লাইসেন্স পেয়েছে চীনা সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট বাইদু; নিরাপত্তার কারণে গাড়িতে কোনো চালক রাখার বাধ্যবাধকতা থেকেও মুক্ত থাকবে এই প্রকল্প।

চীনের স্থানীয় বাজারে কোনো কোম্পানির চালকের উপস্থিতি ছাড়াই বাণিজ্যিক রোবোট্যাক্সি সেবা পরিচালনার অনুমোদন পাওয়ার প্রথম ঘটনা এটি।

সোমবারেই দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের চংকিং এবং উহানে বাণিজ্যিক রোবোট্যাক্সি সেবা পরিচালনার লাইনেন্স পেয়েছে বাইদু। কোম্পানিটি বলছে, চালকবিহীন স্বয়ংক্রিয় পরিবহন যানের নীতিমালায় নতুন অধ্য‍ায়ের সূচনা করছে এই লাইসেন্স।

“এই শিল্পের জন্য এই অনুমোদনগুলোর গভীর তাৎপর্য আছে,” বলে মন্তব্য করেছেন বাইদুর ‘ইন্টেলিজেন্ট ড্রাইভিং গ্রুপ’-এর প্রধান নিরাপত্তা পরিচালন কর্মকর্তা ওয়েই দোং।

বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি আরও বলেন, “আমরা যদি মহাকাশ গবেষণার সঙ্গে তুলনা করি, তবে এটি হবে চাঁদে অবতরণের সমপর্যায়ের।”

রয়টার্স জানিয়েছে, প্রথম পর্যায়ে দুই শহরে পাঁচটি করে রোবোট্যাক্সি পরিচালনা করবে বাইদু। এই ট্যাক্সিগুলো আরোহীর কাছ থেকে ভাড়া নেবে; উহান শহরে কাজ করবে সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত; আর চংকিং শহরে সেবা দেবে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে বিকাল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত।

বার্তাসংস্থাটি আরও জানিয়েছে, চংকিংয়ে ৩০ বর্গকিলোমিটার এলাকা জুড়ে সেবা দেবে বাইদুর রোবোট্যাক্সি সেবা। উহানের ‘ইকোনোমিক অ্যান্ড টেকনোলজিকাল ডেভেলপমেন্ট জোন’-এর ১৩ বর্গকিলোমিটার এলকার মধ্যে সীমিত থাকবে রোবোট্যাক্সির চলাফেরা।

এপ্রিল মাসে বেইজিংয়ে রোবোট্যাক্সি সেবা দেওয়ার অনুমতি পেয়েছে বাইদুর ‘অ্যাপলো’ এবং টয়োটার ‘পোনি ডটএআই’ প্রকল্প। বেইজিং রোবোট্যাক্সি সেবা পরিচালনার অনুমতি দিলেও, তাতে কিছু শর্ত আছে। চালকের আসনে কোনো মানুষ থাকার বাধ্যবাধকতা না থাকলেও নিরাপত্তার স্বার্থে যাত্রীর আসনে একজন চালকের উপস্থিতি বাধ্যতামূলক করে দিয়েছে নগর কর্তৃপক্ষ। ইতোমধ্যেই বেইজিংয়ে চলছে এই সেবা।

এক বছরের মধ্যে বেইজিং, শাংহাই এবং শেনজেনে পুরোপুরি চালকবিহীন রোবোট্যাক্সি সেবা পরিচালনার লাইসেন্স পেতে স্থানীয় সরকারের সঙ্গে আলোচনা চলছে বলে জানিয়েছেন ওয়েই।

রয়টার্স বলছে, দৃশ্যত স্বনিয়ন্ত্রিত যানবাহন প্রযুক্তির ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সমান তালে এগোনোর চেষ্টা করছে চীন। সম্প্রতি স্বনিয়ন্ত্রিত যানের নীতিমালা প্রণয়নে বড় পদক্ষেপ নিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের বাজার নিয়ন্ত্রকরা।

জানুয়ারি মাসেই ক্যালিফোর্নিয়ার স্যান ফ্রান্সিসকোর নির্দিষ্ট কিছু রাস্তায় চালকবিহীন বাণিজ্যিক রোবোট্যাক্সিস সেবা দেওয়ার অনুমোদন পেয়েছে ‘ক্রুজ’ নামের একটি কোম্পানি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক