ফুটেজ ফাঁস হলেও সমস্যা নেই: জিটিএ নির্মাতা

সেপ্টেম্বরের ওই ফাঁসের ঘটনা গেইমিং শিল্পের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় সাইবার নিরাপত্তা লঙ্ঘনের ঘটনাগুলোর একটি হিসেবে বিবেচিত।

প্রযুক্তি ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 9 Nov 2022, 02:14 PM
Updated : 9 Nov 2022, 02:14 PM

জনপ্রিয় গেইম সিরিজ ‘গ্র্যান্ড থেফট অটো (জিটিএ)’র প্রকাশক রকস্টার গেইমসের প্রধান বলছেন, ফাঁস হওয়া ফুটেজ নিয়ে তিনি চিন্তিত নন।

গেইমটির পরবর্তী সংস্করণ তৈরিতে এর কোনো প্রভাব পড়বে না বলে উল্লেখ করেছেন সিইও স্ট্রাউস জেলনিক।

সেপ্টেম্বরের ওই ফাঁসের ঘটনা গেইমিং শিল্পের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় সাইবার নিরাপত্তা লঙ্ঘনের ঘটনাগুলোর একটি হিসেবে বিবেচিত হয়। সে সময় প্রকাশিত বেশ কিছু ভিডিওতে গেইমের বিভিন্ন ডাকাতি, গোলাগুলি ও গাড়ি চালানোর দৃশ্য অনলাইনে ছড়িয়ে গিয়েছিল।

“একটি অননুমোদিত থার্ড পার্টি নেটওয়ার্কে অনুপ্রবেশ করে আমাদের সিস্টেম থেকে বিভিন্ন গোপন তথ্য হাতিয়ে নিয়েছে।” --এই ঘটনা স্বীকার করে বিবৃতি প্রকাশে বাধ্য হয়েছিল ফ্রাঞ্চাইজটির প্রকাশক রকস্টার।

রকস্টার বলেছে, প্রায় এক দশক ধরে গেইমটি নিয়ে জল্পনার পর গেইমের বিস্তারিত তথ্য ‘এভাবে সবার কাছে ফাঁস হয়ে যাওয়ায়’ তারা ‘অনেক হতাশ’।

২০১৩ সালে গেইমটির সর্বশেষ সংস্করণ প্রকাশের পর সবচেয়ে ব্যবসা সফল বিনোদন মাধ্যমগুলোর একটি হিসেবে জায়গা পেয়েছে এটি। তবে, গেইমটির সিকুয়েল তৈরির প্রথম ঘোষণা আসে এই বছরের শুরুতে।

“এই ফাঁস হওয়ার বিষয়টি ব্যপক দুর্ভাগ্যজনক ছিল। আর আমরা এই ধরনের ঘটনা বেশ গুরুত্বের সঙ্গে দেখি।”--দ্বিতীয় প্রান্তিকের হিসাবে ওই হ্যাকিং নিয়ে বলেছেন সিইও জেলনিক।

“এতে কোনো ‘ম্যাটিরিয়াল অ্যাসেট’ চুরির প্রমাণ মেলেনি, যা একটি ভালো দিক। নিশ্চয়ই, গেইমটি তৈরিতে এই ঘটনার কোন প্রভাব পড়বে না।”

“তবে, এটি বেশ হতাশাজনক। এর ফলে, সাইবার নিরাপত্তা সংশ্লিষ্ট বিষয়গুলো নিয়ে আগের চেয়ে বেশি সতর্ক থাকব আমরা।”

এইসব ফুটেজ আগে প্রকাশিত বিভিন্ন প্রতিবেদনের সত্যতা নিশ্চিত করেছে, যেখানে ‘ভাইস সিটি’র (যুক্তরাষ্ট্রের মায়ামি শহরের কাল্পনিক চেহারা) প্রেক্ষাপটে ‘জিটিএ ৬’ গেইমটি আসার কথা উঠে এসেছে।

বিভিন্ন প্রতিবেদন থেকে ইঙ্গিত মিলেছে, পরবর্তী গেইমে মার্কিন অপরাধী যুগল বনি ও ক্লাইডের ছায়া থাকতে পারে দুই মূল চরিত্রে। এর মধ্যে আছে সিরিজের ইতিহাসে প্রথম ‘গেইম প্লেয়েবল’ নারী চরিত্র।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক