মেসির কাছে আমি ঋণী: বার্সা সভাপতি

কাম্প নউয়ে মেসির আরও সুন্দর সমাপ্তি নিশ্চিত করা তার দায়িত্ব বলে মনে করেন হুয়ান লাপোর্তা।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 July 2022, 06:02 PM
Updated : 24 July 2022, 06:02 PM

লিওনেল মেসির বার্সেলোনা ছেড়ে চলে যাওয়ার এক বছর পূর্ণ হবে আর কিছুদিন পর। কিন্তু আর্জেন্টাইন তারকার অভাব যেন এখনও ভুলতে পারছে না কাতালান দলটি। ক্লাব সভাপতি হুয়ান লাপোর্তা তাই আরও একবার শোনালেন, মেসিকে ফেরানোর ইচ্ছার কথা। তার মতে, বার্সেলোনায় এই ফরোয়ার্ডের অধ্যায় এখনও শেষ হয়ে যায়নি।

কাম্প নউয়ে মেসির ‘আরও সুন্দর সমাপ্তি’ নিশ্চিত করা তার দায়িত্ব বলেও মনে করেন লাপোর্তা।

অনেক ছাড় দিয়ে হলেও বার্সেলোনায় নতুন চুক্তি করতে রাজি ছিলেন মেসি। কিন্তু ক্লাবের আর্থিক দৈন্যতা ও লা লিগার ফিনান্সিয়াল ফেয়ার প্লে নিয়মের কারণে শেষ পর্যন্ত ভেস্তে যায় সেই প্রক্রিয়া। লা লিগার দলটির সঙ্গে ২১ বছরের সম্পর্ক ছিন্ন করে গত বছরের অগাস্টে পিএসজিতে যোগ দেন তিনি।

ইএসপিএনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রোববার লাপোর্তা বলেন, মেসিকে ফিরিয়ে আনার পথ এখনও বন্ধ হয়ে যায়নি।

“(বার্সেলোনায়) মেসিই ছিল সবকিছু। সে-ই সম্ভবত বার্সার সেরা খেলোয়াড়, সবচেয়ে কার্যকর। আমার মতে, তার তুলনা চলে কেবল ইয়োহান ক্রুইফের সঙ্গে। তবে একদিন এমনটা ঘটতেই হতো। (পূর্বের কর্মকর্তাদের সিদ্ধান্তে তৈরি) সমস্যার কারণে আমাদের এমন একটা সিদ্ধান্ত নিতে হয়েছিল।”

“আশা করব, (বার্সেলোনায়) মেসির অধ্যায় শেষ হয়ে যায়নি। আমি মনে করি, আমাদের দায়িত্ব হচ্ছে চেষ্টা করা... সেই অধ্যায় ঠিক করার জন্য একটি মুহূর্ত খুঁজে বের করা, যা এখনও খোলা আছে এবং বন্ধ হয়ে যায়নি... শেষটা যেন আরও সুন্দর হয়।”

দীর্ঘ পথচলায় স্প্যানিশ দলটির হয়ে মেসি গড়েছেন অসংখ্য রেকর্ড। জিতেছেন ক্লাব ফুটবলের সম্ভাব্য সব শিরোপা। তার রেকর্ড সাত ব্যালন ডি’অরের ছয়টিই জিতেছেন এই ক্লাবে থাকাকালীন সময়ে। অন্যটি পিএসজিতে যোগ দেওয়ার পরে জিতলেও, সেটার জন্য বিবেচিত সময় ছিল তার বার্সেলোনা অধ্যায়েরই। ৬৭২ গোল করে ক্লাবটির ইতিহাসে সর্বোচ্চ গোলদাতা তিনি। সবচেয়ে বেশি ৭৭৮ ম্যাচ খেলার রেকর্ডও তার।

পিএসজির সঙ্গে ৩৫ বছর বয়সী মেসির চুক্তি মেয়াদ বাকি আছে আরও এক বছর। সঙ্গে আরও এক বছর মেয়াদ বাড়ানোর পথও খোলা রয়েছে।

তারপরও মেসিকে ফেরানোর ব্যাপারে আশাবাদী লাপোর্তা।

“বার্সার প্রেসিডেন্ট হিসেবে, যেটা করা দরকার ছিল আমি সেটাই করেছি। তবে বার্সার প্রেসিডেন্ট হিসেবে এবং ব্যক্তিগতভাবে আমি মনে করি, আমি তার কাছে ঋণী।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক