চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সিটির ‘এক্স-ফ্যাক্টর’ হতে পারেন হলান্ড

ম্যানচেস্টার সিটির চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের মিশনে হলান্ড নির্ণায়ক হয়ে উঠতে পারেন বলে মনে করেন ইলকাই গিনদোয়ান।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 Sept 2022, 06:51 PM
Updated : 13 Sept 2022, 06:51 PM

ম্যানচেস্টার সিটিতে আর্লিং হলান্ডের শুরুটা হয়েছে দুর্দান্ত। একের পর এক ম্যাচে যেভাবে তিনি গোল করছেন, তা যেন সবার প্রত্যাশাকেও ছাড়িয়ে গেছে। ইংলিশ দলটির মিডফিল্ডার ইলকাই গিনদোয়ানের বিশ্বাস, চ্যাম্পিয়ন্স লিগে তাদের অধরা শিরোপা জয়ের অভিযানে পার্থক্য গড়ে দিতে পারেন তরুণ এই ফরোয়ার্ড।  

ইংলিশ ফুটবলে দাপট দেখানো সিটি এখনও ইউরোপীয় প্রতিযোগিতায় সেভাবে নিজেদের সামর্থ্য দেখাতে পারেনি। কখনোই তারা জিততে পারেনি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ শিরোপা। ২০২০-২১ মৌসুমে চেলসির বিপক্ষে হেরে রানার্স-আপ হওয়া তাদের সেরা অর্জন। গত মৌসুমে তারা সেমি-ফাইনাল থেকে বিদায় নেয় রিয়াল মাদ্রিদের বিপক্ষে হেরে।

এবারের আসরে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে বুধবার ঘরের মাঠে হলান্ড ও গিনদোয়ানের সাবেক দল বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের মুখোমুখি হবে সিটি। ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় রাত একটায়।

জার্মান মিডফিল্ডার গিনদোয়ান মঙ্গলবার সংবাদমাধ্যমকে বললেন, সিটিতে হলান্ডের উজ্জ্বল শুরু দলের ইউরোপিয়ান সাফল্যে রূপান্তর হতে পারে।

“আমরা এমনটাই আশা করি। একজন প্রথাগত নাম্বার নাইন দলে থাকায়, এই বছর তা আমাদের অনেক সাহায্য করবে। দেখা যাক, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিততে পারলে দুর্দান্ত হবে। এই প্রতিযোগিতায় খেলা কখনও সহজ নয় এবং কখনও কখনও ছোট বিষয় পার্থক্য গড়ে দিতে পারে।”

গ্রীষ্মের দলবদলে ডর্টমুন্ড থেকে ইতিহাদ স্টেডিয়ামে আসার পর সিটির জার্সিতে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে এখন পর্যন্ত ৮ ম্যাচে হলান্ড গোল করেছেন ১২টি। এর মধ্যে ইউরোপ সেরার মঞ্চে নতুন ক্লাবের হয়ে প্রথম ম্যাচে করেছেন জোড়া গোল। তার নৈপুণ্যে গত সপ্তাহে ‘জি’ গ্রুপে সেভিয়ার বিপক্ষে সিটি জিতেছে ৪-০ গোলে।

মাঠের ফুটবলে শুধু গোলের পর গোলই নয়, ২২ বছর বয়সী এই ফুটবলারের অন্যান্য দিকও তুলে ধরলেন গিনদোয়ান।   

“সংখ্যাই তার হয়ে কথা বলে। আমি মনে করি, ক্লাব অবিশ্বাস্য এক খেলোয়াড়কে দলে এনেছে। সে মাঠে ভালো করছে। এত অল্প বয়সী একটা ছেলের মানসিক দৃঢ়তা ও মনোভাবও দারুণ।”

"সে খুবই পরিণত এবং তার ভবিষ্যৎ খুবই উজ্জ্বল। আমরা দুজনই আমাদের পুরনো ক্লাবের বিপক্ষে খেলার জন্য মুখিয়ে আছি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক