‘বেলিংহ্যামকে ছাড়া চার ম্যাচের চারটিই জিতেছি’, মনে করিয়ে দিলেন আনচেলত্তি

চোটের কারণে বেলিংহ্যামসহ একগাদা ফুটবলারকে না পেলেও চ্যাম্পিয়ন্স লিগের লড়াইয়ের আগে প্রবল আত্মবিশ্বাসী রেয়াল মাদ্রিদ কোচ।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 Feb 2024, 04:39 AM
Updated : 13 Feb 2024, 04:39 AM

জুড বেলিংহ্যাম নেই? কোনো সমস্যা নেই, অন্য অনেকেই তো আছেন! এই ভাবনা নিয়েই এগোচ্ছেন কার্লো আনচেলত্তি। একের পর এক চোটের আঘাতেও চলতি মৌসুমে সেভাবে কাবু হয়নি রেয়াল মাদ্রিদ। বেলিংহ্যামকে ছাড়াও দল ঠিকই ভালো করবে বলে বিশ্বাস কোচের। বরং চোট সমস্যাকেই দলের জন্য প্রেরণা মানছেন তিনি।

চলতি মৌসুম শুরুর আগে থেকেই একের পর এক চোট হানা দিয়েছে রেয়াল মাদ্রিদে। থিবো কোর্তেয়া, এদের মিলিতাও, ডাভিড আলাবারা তো লম্বা সময়ের জন্যই বাইরে। নানা সময়ে চোটে পড়েছেন আরও বেশ কজন। সবশেষ কয়েক ম্যাচে তো একদমই ভাঙাচোরা রক্ষণভাগ নিয়ে জোড়াতালি দিয়ে একাদশ সাজাচ্ছেন কোচ।

কিন্তু মাঠের ফুটবলে সেই প্রভাব খুব একটা পড়তে দেননি আনচেলত্তি। দারুণভাবে দল পরিচালনা করে কোচ হিসেবে নিজের অবস্থানকে এই মৌসুমে নতুন উচ্চতায় নিয়ে গেছেন তিনি। লা লিগায় শিরোপা পুনরুদ্ধারের পথে অনেকটাই এগিয়ে তার দল। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গ্রুপ পর্বে তারা জিতেছে ৬ ম্যাচের সবকটি।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর লড়াইয়ে মঙ্গলবার রেয়ালের প্রতিপক্ষ আরবি লাইপজিগ। এই ম্যাচে স্প্যানিশ দলটি পাচ্ছে না বেলিংহ্যামকে। দলের চোটের তালিকায় সংযোজন তিনি। অ্যাঙ্কেলের চোটের কারণে তিন সপ্তাহের মতো মাঠের বাইরে থাকতে হবে পারে ইংলিশ তরুণকে।

রেয়াল মাদ্রিদে প্রথম মৌসুমেই নিজেকে এমনভাবে মেলে ধরেছেন বেলিংহ্যাম, দলের অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে উঠেছেন তিনি। তবে তাকে না পেলেও দুর্ভাবনা নেই আনচেলত্তির। চোটাঘাতের সমস্যা দলকে আরও উজ্জীবিত করেছে বলে বিশ্বাস তার।

“যারা দলের সঙ্গে নেই, তাদের নিয়ে আমি কখনোই ভাবি না। যারা দলে আছে, তাদের নিয়েই ভাবা উচিত। বেলিংহ্যাম নেই, কিন্তু তাকে ছাড়া তো এই মৌসুমে চার ম্যাচের চারটিই জিতেছি আমরা। তার পরিবর্তে যে-ই খেলেছে, ভালো করেছে, সেটা ব্রাহিম হোক বা হোসেলু।”

“ বেলিংহ্যাম অবশ্যই ভালো ফুটবলার। তেমনি কোর্তোয়া, মিলিওতা, আলাবারাও ভালো। এই চোট সমস্যাগুলি বরং আরও বেশি প্রেরণা পাওয়ার সুযোগ। আমরা অবশ্যই লাইপজিগের বিপক্ষে ভালো করতে পারি। আমরা ভালো ছন্দে আছি। আমাদের পছন্দের প্রতিযোগিতায় (চ্যাম্পিয়ন্স লিগ) খেলতে আমরা দারুণভাবে উজ্জীবিত আছি।”

চোট সমস্যার কারণেই নিজেদের সহজাত পজিশন ছেড়ে বিভিন্ন পজিশনে খেলতে হচ্ছে অনেকে। রাইট ব্যাক দানি কার্ভাহাল যেমন খেলছেন সেন্ট্রাল ডিফেন্সে, মিডফিল্ডার অহেলিয়া চুয়ামেনি নিয়মিতই খেলছেন রক্ষণভাগে। এরকম মানিয়ে নিতে হচ্ছে অনেককেই। তবে দলে এসব নিয়ে কারও কোনো আপত্তি নেই বলেই জানালেন কোচ।

“খুবই এককাট্টা, সিরিয়াস এবং উজ্জীবিত একটি দলকে দেখতে পাচ্ছি আমি। দলের আবহ দারুণ। এখানে কেউ কোনো অভিযোগ করে না, সবাই অবদান রাখতে মুখিয়ে থাকে…।”

“খুব কঠিন পরিস্থিতির পরও এখনও পর্যন্ত সবকিছু খুব ভালো চলছে। এই দৃঢ় মানসিকতার জন্য দলের সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই আমি।”