‘চেলসিকে কোচিং করানো এখন সবচেয়ে কঠিন কাজ’

আবার শীর্ষ পর্যায়ে ফিরবে চেলসি, আশাবাদী দলটির কোচ গ্রাহাম পটার।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 12 Jan 2023, 12:33 PM
Updated : 12 Jan 2023, 12:33 PM

কোচের দায়িত্ব সবসময় কঠিন। চেলসির মতো বড় দলের দায়িত্ব আরও বেশি কঠিন। দুঃসময়ের মধ্যে থাকা গ্রাহাম পটার সে উত্তাপ ভালো করেই টের পাচ্ছেন। তাই বললেন, চেলসিকে কোচিং করানো এই মুহূর্তে ফুটবলের সবচেয়ে কঠিন কাজের একটি।

কঠিন সময়ে চেলসির দায়িত্ব তুলে দেওয়া হয়েছিল পটারের হাতে। ক্লাবকে পথে ফেরানোর কাজটা এখন পর্যন্ত সেভাবে করতে পারেননি তিনি। দলের খেলায়ও নেই আত্নবিশ্বাসের ছাপ। তাই বেশ চাপের মুখে আছেন এই ইংলিশ কোচ।

গত মে মাসে মালিকানায় পরিবর্তন আসে চেলসির। এরপর গ্রীষ্মের দলদবলে যোগ দেন কয়েকজন নতুন খেলোয়াড়। তবে এই মৌসুমের শুরু থেকে ভালো খেলতে পারছিল না স্ট্যামফোর্ড ব্রিজের দলটি। এর প্রেক্ষিতে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় ক্লাবটিকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতানো কোচ টমাস টুখেলকে। এরপর গত সেপ্টেম্বরে নতুন কোচ করা হয় পটারকে।

তাতেও ভাগ্য পরিবর্তন হয়নি চেলসির। প্রিমিয়ার লিগের পয়েন্ট টেবিলে দশম স্থানে থাকা পটারের দল সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে নিজেদের সবশেষ ৮ ম্যাচের মাত্র একটিতে জিতেছে। এরই মধ্যে বিদায় নিয়েছে ইংলিশ লিগ কাপ ও এফএ কাপ থেকে। গত বছরের দলবদলের খরচের প্রভাব নেই তাদের খেলায়।

নিজেদের পরবর্তী ম্যাচে লিগে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সময় রাত ২টায় ফুলহ্যামের বিপক্ষে খেলবে চেলসি। এই ম্যাচের আগে সংবাদ সম্মেলনে ক্লাবের অবস্থান তুলে ধরেন পটার। তার মতে, যেখানে থাকার কথা সেই জায়গায় নেই তারা।

তিনি নিজেও তা অনুধাবন করছেন। তবে তার কাছে তিনি যেখানে আছেন তা বেশ চ্যালেঞ্জিং।

“(কোচ হওয়া) এটি একটি চ্যালেঞ্জ, উদ্দীপনাময় এবং ভীষণ কঠিন কাজ। আমি মনে করি এটিই সম্ভবত ফুটবলে সবচেয়ে কঠিন কাজ এবং সেটা (ক্লাবের) মালিকানার পরিবর্তন ও যৌক্তিকভাবেই যে জায়গায় লোকেরা চেলসিকে দেখতে চায়, তাদের প্রত্যাশার কারণেও ।

“বাস্তাবিক অর্থে চেলসি যে অবস্থায় আছে…বর্তমান প্রতিযোগিতামূলক পরিবেশে ভালোভাবে কাজ করতে পারা এবং ভালোভাবে পরিচালিত ফুটবল ক্লাব হিসেবে নিজেদেরকে প্রতিষ্ঠিত করার দিক থেকে আমরা হয়তো এখনও সে পর্যায়ে নেই। আমি এটাও মেনে নিচ্ছি যে আমি যেহেতু প্রধান কোচ, হারলে দায় আমাকেও দেওয়া হবে।”

শুরুর পথচলা বন্ধুর হলেও ঘুরে দাঁড়ানোর ব্যাপারে আশাবাদী পটার। ৪৭ বছর বয়সী এই কোচ দৃঢ় কণ্ঠে বললেন, সময়ের সঙ্গে আবারও শীর্ষ পর্যায়ে নিজেদের নিয়ে যাবে চেলসি।

“আমার কোনো আক্ষেপ নেই, এখানে এসে আমি সত্যিই কৃতজ্ঞ ও গর্বিত। এই ক্লাবটি বছর ২০ বছর ধরে একটি নির্দিষ্ট ধাঁচে পরিচালিত হয়েছিল এবং খুব ভালোভাবে তা চালানো হয়েছিল। আগের মালিকানা এবং তারা যা অর্জন করেছিল, তার প্রতি আমার অনেক শ্রদ্ধা আছে।”

“আমাদের বিষয়গুলো আবার গড়ে তুলতে হবে... এটি একটি নতুন যুগ, একটি নতুন অধ্যায়। আমরা কিছুটা সমস্যার মধ্য দিয়ে যাচ্ছি, এই মুহূর্তে এটি কঠিন। আমি সবার হতাশা বুঝতে পারি এবং সমর্থনের প্রশংসা করি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক