হলান্ডের ফেরার ম্যাচে সিটির নায়ক আলভারেস

প্রথমার্ধে ছয় মিনিটের ব্যবধানে দুই গোল করেন হুলিয়ান আলভারেস।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 31 Jan 2024, 09:28 PM
Updated : 31 Jan 2024, 09:28 PM

নিজের জন্মদিনের সন্ধ্যাটা কী দারুণভাবেই না রাঙালেন হুলিয়ান আলভারেস। ম্যাচের শুরুর দিকে দুবার জালে বল পাঠিয়ে দলকে পথ দেখালেন তিনি। লিগ টেবিলের অবনমন অঞ্চলের দল বার্নলিকে অনায়াসে হারিয়ে জয়ের ধারা ধরে রাখল ম্যানচেস্টার সিটি।

ইতিহাদ স্টেডিয়ামে বুধবার রাতে প্রিমিয়ার লিগের ম্যাচে ৩-১ গোলে জিতেছে পেপ গুয়ার্দিওলার দল। তাদের তৃতীয় গোলটি করেন রদ্রি।

জয়ের পাশাপাশি সিটির জন্য ম্যাচটি বিশেষ আরও একটি কারণে। চোটের ধাক্কায় দীর্ঘদিন বাইরে থাকার পর এই ম্যাচ দিয়ে ফিরলেন আর্লিং হলান্ড।

গত অগাস্টে এই বার্নলিকে ৩-০ ব্যবধানে হারিয়েই শিরোপা ধরে অভিযান শুরু করেছিল গুয়ার্দিওলার দল।

ম্যাচের শুরুটা দুর্দান্ত হয় টানা তিনবারের লিগ চ্যাম্পিয়নদের। আলভারেসের জোড়া গোলে শুরুতেই নিয়ন্ত্রণ পেয়ে যায় তারা।

প্রথম গোলের দেখা মেলে ষোড়শ মিনিটে। সতীর্থের পাস ধরে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন মাথেউস নুনেস। সঙ্গে লেগে থাকা ডিফেন্ডারকে প্রথম প্রচেষ্টায় পরাস্ত করতে পারেননি তিনি, অবশ্য বার্নলির ওই খেলোয়াড়ও পারেননি বল ক্লিয়ার করতে। সেই সুযোগে বল ধরে ছয় গজ বক্সে ক্রস বাড়ান নুনেস এবং নিখুঁত হেডে দলকে এগিয়ে নেন আলভারেস।

ছয় মিনিট পর কেভিন ডে ব্রুইনের সঙ্গে দারুণ বোঝাপড়ায় ব্যবধান বাড়ান আলভারেস। ডি-বক্সের বেশ বাইরে ফ্রি কিক পায় সিটি। বক্সে ডান দিকে ফাঁকা দেখে সেদিকে নিচু করে বল বাড়ান বেলজিয়ান প্রেমেকার, আর ছুটে গিয়ে কোনাকুনি শটে আগুয়ান গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড।

বিরতির আগে ব্যবধান কমানোর ভালো একটি সুযোগ পায় বার্নলি। তবে বক্সে জায়গা তৈরি করেও লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নেন ফরোয়ার্ড লাইল ফস্টার।

বিরতির পর খেলা শুরু হতেই তৃতীয় গোল পেয়ে যায় সিটি। এই অর্ধের ২৪তম সেকেন্ডে ফিল ফোডেনের পাস বক্সের বাইরে পেয়ে শট নেন রদ্রি, বল সামান্য বাঁক খেয়ে কাছের পোস্ট দিয়ে জালে জড়ায়।

নির্ধারিত সময়ের ২০ মিনিট বাকি থাকতে ডে ব্রুইনেকে তুলে নেন সিটি কোচ। তার জায়গায় প্রায় দুই মাস পর মাঠে নামেন হলান্ড, দর্শকরা তুমুল করতালিতে তাকে স্বাগত জানায়।

৮৩তম মিনিটে বক্সে ভালো পজিশনে বল পেয়েছিলেন হলান্ড। কিন্তু শটই নিতে পারেননি তিনি। দুই মিনিটের মধ্যে আবার সুযোগ আসে, কিন্তু এবার গোলমুখে তিনি পারেননি হেড করতে।

যোগ করা সময়ে একটি গোল শোধ করেন আল দাখিল। তবে তা সিটির জয়ের পথে কোনো বাধা হতে পারেনি।

লিগে টানা চতুর্থ জয় পেল সিটি, টানা অপরাজিত রইল ছয় ম্যাচে। ২১ ম্যাচে ১৪ জয় ও ৪ ড্রয়ে ৪৬ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে আছে তারা।

২২ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে ১৯ নম্বরে বার্নলি।