বাথরুমে পানি না পেয়ে নদীতে ঝাঁপ তরুণীর

“ইফতারের পর আমি মাগরিবের নামাজ পড়ছিলাম। সে সময় সে আবারও পানি খুঁজতে গোসলখানায় যায়।“

শরীয়তপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 April 2024, 02:20 PM
Updated : 2 April 2024, 02:20 PM

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলায় নদীতে ঝাঁপ দেওয়ার তিন ঘণ্টা পর এক তরুণীর লাশ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস। 

নড়িয়া ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা মো. হাবিবুর রহমান জানান, উপজেলার বৈশাখীপাড়ায় কীর্তিনাশা নদী থেকে সোমবার রাত ১১টার দিকে রুপা আক্তার নামে ওই তরুণীর লাশ উদ্ধার করেন তারা। 

মৃত ২৩ বছর বয়সী রুপা বৈশাখীপাড়া গ্রামের মোসলেম সরদারের মেয়ে। সোমবার রাত ৮টার দিকে নদীতে ঝাঁপ দেয় সে। 

রুপার মা রানু বেগম বলেন, “কয়েকদিন ধরেই আমার মেয়ে পাগলের মত করছিল। আশপাশের লোকজন বলেছে, ওরে নাকি জ্বীনে ধরছে। তাই গতকাল সকালে মেয়েকে ফকিরের কাছে নিয়ে গিয়েছিলাম। সেখান থেকে ফেরার পর সে কয়েকবার গোসল করেছে। আর কিছুক্ষণ পরপর পানি খুঁজেছে। 

“ইফতারের পর আমি মাগরিবের নামাজ পড়ছিলাম। সে সময় সে আবারও পানি খুঁজতে গোসলখানায় যায়। সেখানে পানি না পেয়ে দৌড়ে নদীতে ঝাঁপ দেয়। আমি পেছন পেছন গিয়ে ওরে আর পাইনি।“ 

ফায়ার সার্ভিস কর্মকর্তা মো. হাবিবুর রহমান বলেন, “কন্টোল রুম থেকে খবর পেয়ে আমরা মেয়েটিকে উদ্ধারের জন্য যাই। উদ্ধার কার্যক্রম শুরুর কিছুক্ষণের মধ্যেই পানির নিচ থেকে তার লাশ পাই।”  

নড়িয়া থানার ওসি মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, পরিবারের আবেদনে ময়নাতদন্ত ছাড়াই রুপার লাশ তাদের কাছে হস্তান্তর এবং এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।