সাতক্ষীরায় ‘তুলে নেওয়ার একদিন পর’ বিস্ফোরক মামলায় গ্রেপ্তার সাংবাদিক

রঘুনাথ খাঁর স্ত্রীর অভিযোগ, সোমবার সকালে তাকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়; এরপর থানায় খোঁজ নিয়ে তার সন্ধান পাওয়া যায়নি।

সাতক্ষীরা প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Jan 2023, 02:39 PM
Updated : 24 Jan 2023, 02:39 PM

‘আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে তুলে নেওয়ার‘ একদিন পর সাতক্ষীরায় এক সাংবাদিককে বিস্ফোরক মামলায় গ্রেপ্তারের কথা জানিয়েছে পুলিশ।

দেবহাটা থানার ওসি শেখ ওবায়দুল্লাহ জানান, সোমবার সন্ধ্যায় দেবহাটা উপজেলার খলিসাখালী গ্রামের সাপমারা খালের সেতুর উপর অভিযান চালিয়ে ‘বোমাসদৃশ ককটেলসহ’ তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এরা হলেন কালীগঞ্জ উপজেলার বিষ্ণুপুর গ্রামের প্রয়াত মদনমোহন খাঁর ছেলে রঘুনাথ খাঁ (৫৭), দেবহাটা উপজেলার ঢেপুখালী গ্রামের প্রয়াত ফজর আলী গাজীর ছেলে মো. রেজাউল করিম (৬৩) এবং একই উপজেলার চালতেতলা গ্রামের মো. নওশের হাওলাদারের ছেলে মো. লুৎফর রহমান (৪৫)।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার পুলিশ বাদী হয়ে দেবহাটা থানায় বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে মামলা করেছে।

তবে রঘুনাথ খাঁর পরিবারের অভিযোগ, সোমবার সকালে ‘ডে নাইট কলেজ মোড়’ থেকে তাকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। এরপর থানায় খোঁজ নিয়ে তার সন্ধান মেলেনি।

রঘুনাথ খাঁর স্ত্রী সুপ্রিয়া রাণী খাঁ বলেন, সোমবার সকালে একটি ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেলযোগে রঘুনাথ দেবহাটায় খলিশাখালী এলাকায় যান। সেখান থেকে ফিরে আসার পর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ডে নাইট কলেজ মোড় থেকে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার পরিচয়ে তাকে তুলে নেওয়া হয়।

সুপ্রিয়া জানান, তুলে নিয়ে যাওয়ার খবর পেয়ে তিনি থানাসহ বিভিন্ন জায়গায় খোঁজ নিতে থাকেন। তখন কোথাও তার খোঁজ পাওয়া যায়নি।

সুপ্রিয়ার অভিযোগ, গত শনিবার গভীর রাতে একদল লোক তাদের কাটিয়ার বাসায় এসে প্রথমে ডাকাডাকি করে। তারা ভয়ে সাড়াশব্দ না করায় ওই লোকজন বাড়িতে ইটপাটকেল মেরে চলে যায়।

তবে দেবহাটা থানার ওসি শেখ ওবায়দুল্লাহ সুপ্রিয়ার এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।

তিনি বলেন, এ ধরনের কোনো ঘটনা তার জানা নেই। দেবহাটা থানা পুলিশ দীর্ঘদিন ধরে লক্ষ্য করে যে রঘুনাথ খাঁ কথিত ভূমিহীনদের দিয়ে বিভিন্ন মালিকানাধীন জমি দখলকারীদের সঙ্গে যোগসাজসে অস্থিতিশীল কাজ করে থাকেন।

“এছাড়া তিনি চাঁদাবাজি করতে গিয়ে অর্থসহ আটক হন, চার বছর সাজাও হয়। এ ধরনের চাঁদাবাজি ও প্রতারণার কাজের অভিযোগে সাতক্ষীরার বিভিন্ন থানায় একাধিক মামলার আসামিও তিনি।”

সোমবারের ঘটনায় আরও দুজন আটক হন এবং ওই তিনজনের বিরুদ্ধে নাশকতার অভিযোগে দেবহাটা থানার এসআই লাল চাঁদ মামলা করেছেন বলে জানান ওসি ওবায়দুল্লাহ।

ঘটনার বিবরণে ওসি বলেন, সোমবার সন্ধ্যা ৫টা ৪৫ মিনিটে দেবহাটার খলিসাখালী গ্রামের সাপমারা খালের সেতুর উপর কতিপয় দুস্কৃতকারী বড় ধরনের অন্তর্ঘাতমূলক কাজ করার জন্য গাছের গুড়ি দিয়ে প্রতিবন্ধকতা করে অবস্থান করছিল। সংবাদ পেয়ে দেবহাটা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে দুস্কৃতকারীরা কয়েকটি ‘বোমাসদৃশ ককটেলের’ বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। তখন রঘুনাথসহ এই তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এই ঘটনায় মঙ্গলবার করা মামলায় অজ্ঞাতনামা আরও ১৯ জনকে আসামি করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

রঘুনাথ খাঁ দীপ্ত টেলিভিশন ও বাংলা ’৭১ পত্রিকার সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধি। তাদের বাড়ি সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার বিষ্ণুপুর গ্রামে। তিনি সাতক্ষীরা শহরের লস্করপাড়ায় একটি ভাড়া বাড়িতে থাকেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক