ধুনটে যমুনার বালু উত্তোলনকারী গ্রেপ্তার, মামলা দায়ের

এর আগে অনেকবার নৌকা জব্দ ও জেল-জরিমানা করা হলেও তারা গোপনে গভীর রাতে বালু উত্তোলন করত।

বগুড়া প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 August 2022, 06:14 PM
Updated : 3 August 2022, 06:14 PM

বগুড়ার ধুনট উপজেলায় যমুনা নদীতে অভিযান চালিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের অভিযোগে নৌকাসহ চার জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। পরে ১৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়।

ধুনট থানার ওসি কৃপাসিন্ধু বালা জানান, মঙ্গলবার রাতে উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ যৌথভাবে এ অভিযান চালায়।

গ্রেপ্তার চার জনসহ ১৮ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা করে বুধবার সকালে। দুপুরে আদালতে হাজির করা হলে তাদের বগুড়া জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।

গ্রেপ্তাররা হলেন ধুনট উপজেলার সহড়াবাড়ি গ্রামের শুকুর ব্যাপারীর ছেলে আব্দুর রাজ্জাক (৩৫), বাচ্চু মিয়ার ছেলে ওয়াসিম (২২), সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার সানবান্ধা গ্রামের আব্দুর রউফের ছেলে আনিছুর রহমান তাবু (৩৮) ও ফারুক হোসেন (৪০)।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, খননযন্ত্র দিয়ে উপজেলার যমুনা নদীর চর এলাকা থেকে কয়েক বছর যাবৎ অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে একটি চক্র। মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে গোপন সংবাদ পেয়ে উপজেলা প্রশাসন ও পুলিশ যমুনা নদীর বৈশাখী চর এলাকার অভিযান চালায়।

এ সময় সেখানে পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে বালু উত্তোলনকারীরা নৌকাযোগে পালানোর চেষ্টা করে। ধাওয়া করে ৪ জনকে আটক করে পুলিশ। অন্য ব্যক্তিরা পালিয়ে গেছে। এ সময় সেখান থেকে দুইটি নৌকা, খননযন্ত্র ও বালুসহ বিভিন্ন সরঞ্জামাদি জব্দ করা হয়।

ধুনট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সঞ্জয় কুমার মহন্ত জানান, অবৈধভাবে বালু উত্তোলনের সংবাদ পেয়ে থানা পুলিশের সহযোগিতায় সেখানে অভিযান চালিয়ে ৪ ব্যক্তিকে আটক এবং বালু তোলার কাজে ব্যবহৃত সরঞ্জামাদি জব্দ করা হয়েছে। এর আগে অনেকবার নৌকা জব্দ ও জেল-জরিমানা করা হলেও তারা গোপনে গভীর রাতে বালু উত্তোলন করত।

ধুনট থানার ওসি কৃপা সিন্ধুবালা জানান, আটক ব্যক্তিদের বালু মহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইনে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। মামলার অন্যান্য আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক