যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে হত্যা: স্বামীর প্রাণদণ্ড

এ মামলায় তিনজনকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

ফরিদপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 19 Sept 2022, 10:50 AM
Updated : 19 Sept 2022, 10:50 AM

ফরিদপুরে যৌতুকের দাবিতে ফরিদা বেগম নামের এক নারীকে গলাটিপে হত্যা মামলায় তার স্বামীকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে আদালত।

সোমবার ফরিদপুর নারী ও শিশু ট্রাইবুনালের বিচারক প্রদীপ কুমার রায় এ রায় ঘোষণা করেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত মো. সরোয়ার শেখ মধুখালী উপজেলার নওপাড়া ইউনিয়নের আলগাপাড়া গ্রামের চুন্নু শেখের ছেলে।

সাজার পাশাপাশি তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন বিচারক।

এছাড়া এ মামলায় সরোয়ার শেখের মা ছাহেরা বেগম এবং মামা ওবায়দুল শেখ ও আলিয়ার শেখকে খালাস দেওয়া হয়েছে।

রায় ঘোষণার সময় আসামিরা আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত ছিলেন।

মামলার বিবরণে বলা হয়, ফরিদা বেগম উপজেলার বাগাট গ্রামের রাশেদ শেখ ও মর্জিনা বেগমের বড় মেয়ে ছিলো। ২০১৭ সালের ৬ জুলাই সকালে সে তার মাকে মোবাইলে ফোন করে জানায় যে, ৫০ হাজার টাকা যৌতুকের জন্য স্বামী তাকে মারধর করছে।

এরপর বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ফরিদার বাড়ির লোকেরা খবর পান যে, তাদের মেয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে মারা গেছে। তারা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে মেয়েকে শ্বশুর বাড়ির বারান্দায় শোয়ানো অবস্থায় দেখতে পান। এ সময় ফরিদার গলা ফোলা ও কাপড় পেঁচানোর চিহ্ন দেখতে পান তারা।

এ ঘটনার পর পুলিশ আলামত জব্দ করে ফরিদার লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায় এবং মধুখালী থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা রুজু করে।

এর ১৩ দিন পরে ফরিদার মা মর্জিনা বেগম বাদি হয়ে মধুখালী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

ময়নাতদন্তের প্রতিবেদনে ফরিদাকে গলাটিপে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে জানানো হয়। পরে তদন্ত শেষে পুলিশ আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করলে এ মামলার বিচারকাজ শুরু হয়।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক