আচরণবিধি লঙ্ঘন: হবিগঞ্জে ব্যারিস্টার সুমন ব্যাখ্যা দিবেন বৃহস্পতিবার 

চুনারুঘাট-মাধবপুর নিয়ে গঠিত হবিগঞ্জ-৪ আসনে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী হতে ফরম তুললেও মনোনয়ন পাননি ব্যারিস্টার সুমন।

হবিগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 Dec 2023, 06:29 AM
Updated : 6 Dec 2023, 06:29 AM

নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে হবিগঞ্জে স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়ে লিখিত ব্যাখ্যা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।  

নির্ধারিত সময় বৃহস্পতিবারের মধ্যেই বিষয়টির ব্যাখ্যা দিবেন বলেও জানিয়েছেন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে হবিগঞ্জ-৪ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী ব্যারিস্টার সুমন। 

স্থানীয় চুনারুঘাট উপজেলার জনাকীর্ণ বাজারে প্রচারে গিয়ে রাস্তা বন্ধ করে জনসাধারণের চলাচলে বিঘ্ন করার অভিযোগে তাকে এই নোটিশ দেন অনুসন্ধান কমিটির চেয়ারম্যান হবিগঞ্জ সদর আদালতের সিনিয়র সহকারী জজ সবুজ পাল। 

সোমবার নির্বাচন অনুসন্ধান কমিটির দেওয়া পত্রে বলা হয়, শনিবার সন্ধ্যায় চুনারুঘাট উপজেলার গাজীপুর ইউনিয়নের আসামপাড়া বাজারে এক নির্বাচনী জনসভা করেন সুমন। 

প্রথমত, স্থানটি একটি জনাকীর্ণ বাজার। দ্বিতীয়ত, নির্বাচনী সমাবেশের জন্য বাজারের তিন রাস্তার মোড়সহ বাজারের ওপর দিয়ে চলাচলকারী প্রধান তিনটি সড়ক বন্ধ করে জনগণের চলাচলে বিঘ্ন সৃষ্টি করা হয়। তৃতীয়ত, উক্ত নির্বাচনী সমাবেশের বিষয়ে স্থানীয় পুলিশ কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়নি। 

ফলে, সংসদ নির্বাচনে রাজনৈতিক দল ও প্রার্থীর আচরণ বিধিমালা, ২০০৮ এর বিধি- ০৬ (খ, গ, ঘ) ভঙ্গ করা হয়েছে বলে নির্বাচনী অনুসন্ধান কমিটির কাছে প্রতীয়মান হয়েছে। 

এই বিষয়ে বৃহস্পতিবারের মধ্যে সুমনকে নির্বাচন অনুসন্ধান কমিটির কাছে লিখিত ব্যাখ্যা দেওয়ার নির্দেশ প্রদান করা হয়। 

পত্রটির অনুলিপি বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের উপসচিব (আইন), হবিগঞ্জ জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসক এবং হবিগঞ্জ জেলা নির্বাচন কর্মকর্তাকে দেওয়া হয়েছে বলেও জানানো হয় চিঠিতে। 

এদিকে নির্দেশ মতে অভিযোগের লিখিত ব্যাখ্যা দেবেন জানিয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন। 

হাই কোর্টের এই আইনজীবী বলেন, “আমি বাংলাদেশের যে কোনো জায়গায় গেলে মানুষ আমাকে ভালোবেসে দেখার জন্য ছুটে আসে। সেদিনও বিকল্প হয়নি। কিন্তু বুঝতে পারিনি সেখানে এত মানুষ হবে। সেদিন সেখানে বাইরের এলাকার লোকজন গিয়ে ভিড় বাড়িয়েছিলেন।” 

“এ বিষয়ে বৃহস্পতিবার কমিটির কাছে আমি লিখিত ব্যাখ্যা দেব।”

চুনারুঘাট-মাধবপুর নিয়ে গঠিত হবিগঞ্জ-৪ আসনে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী হতে ফরম তুললেও মনোনয়ন পাননি ব্যারিস্টার সুমন। এই আসনে নৌকার মাঝি হিসেবে বিমান ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলীর নাম ঘোষণা করা হয়।