চাকরি স্থায়ীর দাবিতে নেসকোর মিটার রিডারদের কর্মবিরতি

“প্রি-পেইড সিস্টেম চালু করা হয়েছে; এটি পুরোপুরি চালু হলে আমরা চাকরিচ্যুত হব।”

লালমনিরহাট প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 31 Jan 2024, 06:38 PM
Updated : 31 Jan 2024, 06:38 PM

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে নর্দান ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি লিমিটেডের মিটার রিডার ও বিল বিতরণকারীরা কর্মবিরতি পালন করছেন।

ধারাবাহিক আন্দোলনের অংশ হিসেবে বুধবার সকালে কালীগঞ্জ উপজেলায় কোম্পানির কার্যালয়ের সামনে পাঁচ উপজেলা থেকে কর্মচারীরা এতে অংশ নেন।

চাকরি স্থায়ী না হলে আত্মহত্যার হুমকি দিয়ে পিচরেট মিটার রিডার ও বিল বিতরণকারী ইউসুফ আলী (৭০) বলেন, “২০ বছরের বেশি সময় আমি প্রতিটা বাড়িতে গিয়ে বিল বিতরণ করে আসছি। নেসকোর এমডি এর আগে চাকরি স্থায়ীকরণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু বয়স শেষ হয়ে গেলেও চাকরি স্থায়ী হয়নি।”

তিনি প্রশ্ন রাখেন, “চাকরি স্থায়ী না হলে আমি পরিবার নিয়ে কোথায় যাব? আমার আত্মহত্যা ছাড়া কোনো পথ থাকবে না।”

মিটার রিডার ও বিল বিতরণকারীরা জানান, অনেকেই ২০ বছর ধরে অস্থায়ী ভিত্তিতে কর্মরত আছেন। কিন্তু তাদের চাকরি স্থায়ী হয়নি। ফলে রাজশাহী ও রংপুর বিভাগের ৬০০ জনের বেশি কর্মচারী তাদের পরিবার-পরিজন নিয়ে চরম হতাশার মধ্য দিয়ে মানবেতর জীবনযাপন করছেন।

জেলা নেসকোর পিচরেট ঐক্য পরিষদের সভাপতি কালী শঙ্কর রায় বলেন, “প্রি-পেইড সিস্টেম চালু করা হয়েছে। এটি পুরোপুরি চালু হলে আমরা চাকরিচ্যুত হব। তাই আমাদের চাকরি স্থায়ী করতে হবে।

“আগের নেসকোর এমডি চাকরি স্থায়ীর প্রতিশ্রুতি দিলেও কাজের কিছুই হয়নি। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমাদের কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।”

কর্মসূচিতে আরও বক্তব্য দেন নেসকো কালীগঞ্জ অফিসের সভাপতি জগন্নাথ রায়, পাটগ্রাম অফিসের সভাপতি ইসমাইল হোসেন বাবু, কালীগঞ্জ অফিসের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মান্নান ঢালী।