পিরোজপুরের মন্দিরে প্রতিমা ভাংচুর, ৪ কিশোর আটক

এলাকাবাসী ভাংচুরের খবর পেয়ে তিন কিশোরকে শনাক্ত করে। তিন কিশোর আরও এক কিশোরের নাম বলে।

পিরোজপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 1 August 2022, 11:19 AM
Updated : 1 August 2022, 12:03 AM

পিরোজপুর সদর উপজেলায় প্রতিমা ভাংচুরের অভিযোগে চারজনকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার দুপুরে তাদের আটক করা হয় বলে সদর থানার ওসি আ জা মো. মাসুদুজ্জামান জানান।

আটককৃতদের বাড়ি উপজেলার টোনা ইউনিয়নের লখাকাঠী, কলাখালী ইউনিয়নের পথেরহাট, হুলারহাট গুচ্ছ গ্রাম ও গজালিয়া উদয়কাঠী গ্রামে।

তাদের বয়স ১২ থেকে ১৭ বছর।

উপজেলার কাথুলিয়া এলাকায় শীতলা মন্দিরে একটি প্রতিমার পা, হাত ও মাথা ভাংচুর করার অভিযোগ তাদের বিরুদ্ধে।

মন্দিরের সেবাইত কালাচাঁদ মণ্ডল বলেন, রোববার বেলা ১১টার দিকে তিনি পূজা শেষে চলে যান। সোমবার সকালে মন্দিরে গিয়ে একটি প্রতিমার পা, হাত ও মাথা ভাঙা দেখতে পান।

“এলাকাবাসীর কাছে জানতে পারি, রোববার দুপুরে কয়েকটি ছেলেকে তারা মন্দিরের কাছে দেখেছিলেন। সোমবার এলাকাবাসী ভাংচুরের খবর পেয়ে তিন কিশোরকে শনাক্ত করে। তিন কিশোর ভাঙচুরের কথা স্বীকার করে। তাছাড়া তারা ভাংচুরে জড়িত বলে আরও এক কিশোরের নাম বলে।”

এলাকাবাসী তিন কিশোরকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। পুলিশ গিয়ে তিনজনকে আট করে এবং অন্য কিশোরকে খুঁজে বের করে।

ওসি মাসুদুজ্জামান বলেন, চার কিশোরকে আটকের পাশপাশি মন্দিরে নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

আটক কিশোররা তাদের বাড়ি থেকে প্রায় পাঁচ কিলোমিটার দূরের ওই মন্দিরে ভাংচুর করে। কেন তারা এই কাণ্ড করেছে সে বিষয়ে পুলিশ তাৎক্ষণিকভাবে কিছু বলতে পারেনি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক