‘আগে গোয়াল ঘরে থাকতাম, এখন ঘর পেয়ে খুশি হইলাম’

‘মুজিব বর্ষ’ উপলক্ষে বরগুনার বেতাগী পৌরসভার মেয়র ব্যক্তিগত উদ্যোগে গৃহহীন একটি পরিবারকে ঘর করে দিয়েছেন।

বরগুনা প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 18 March 2022, 09:29 AM
Updated : 18 March 2022, 12:04 AM

শুক্রবার সকালে বেতাগী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ বি এম গোলাম কবির আনুষ্ঠানিকভাবে মকবুল হোসেন হাওলাদারের কাছে ঘরের চাবি হস্তান্তর করেন। এ সময় পুলিশ ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তি ও জনপ্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

উপজেলার সদর ইউনিয়নের ঝিলবুনিয়া গ্রামের ৮৫ বছরের বৃদ্ধ মকবুল হোসেন ভিক্ষাবৃত্তি করে সংসার চালাতেন। কিন্তু বর্তমানে পক্ষাঘাতগ্রস্ত হয়ে তিনি চলাচল করতে পারেন না। নিজের ঘর না থাকায় বুদ্ধি প্রতিবন্ধী মেয়েকে নিয়ে প্রতিবেশীর গোয়াল ঘরে বসবাস করছিলেন। 

তার দূরবস্থা নিয়ে গত বছরের ১৬ নভেম্বর বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমে সংবাদ প্রকাশিত হয়। এরপর বিষয়টি পুলিশ ও বেতাগী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম কবিরের নজরে আসে।

ঘর পেয়ে খুব খুশি মকবুল হোসেন প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে গণমাধ্যমকে বলেন, “ঘর ছিল না আমার। ঘর না থাকার কারণে একটা গোয়াল ঘরে ছিলাম। গোয়াল ঘরে থাকি দেখে আমারে একটা ঘর দিছে। আমি খুব খুশি হইলাম।

“আমার একটা দাবি পুলিশের কাছে, আমার মেয়েটা প্রতিবন্ধী। তার প্রতি যদি একটু খেয়াল নেয়, তাহলে আমি একটু খুশি হইতাম”, যোগ করেন মকবুল।

ঘরের চাবি হস্তান্তরকালে বেতাগীর মেয়র গোলাম কবির বলেন, “মুজিব বর্ষে  একজন অসহায় পরিবারকে ঘর দিতে পেরে আমার খুব ভালো লাগছে। নির্বাচনের জয়ের পর যে আনন্দ পেয়েছিলাম। এখন তার চেয়ে ভাল লাগছে।

“কনকনে শীতের মধ্যে ১৪ ডিসেম্বর আমি ঘটনাটি শুনি। সেদিনই এসে দেখে খুব খারাপ লেগেছিল। বৃদ্ধ তার মেয়ে মিমকে নিয়ে এখানে থাকতেন। আমি সেদিনই ইট আনিয়ে ঘর নির্মাণের কাজ শুরু করাই। নিজের অর্থে, কোনো সাহায্য ছাড়াই”, বলেন মেয়র।

বেতাগী থানার ওসি শাহ আলম হাওলাদার বলেন, “পুলিশের পক্ষ থেকে অসহায় এ পরিবারকে সহায়তা করা হবে।”

আরো পড়ুন

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক