রংপুরে ‘নবজাতক বিক্রি’, হাসপাতালের পরিচালকসহ আটক ৩

প্রসূতি মায়ের অভিযোগ, তাকে না জানিয়ে শিশুটিকে বিক্রি করা হয়।

রংপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 21 Jan 2024, 02:08 PM
Updated : 21 Jan 2024, 02:08 PM

চিকিৎসা ব্যয় পরিশোধে ব্যর্থ হওয়ার অজুহাতে নবজাতক বিক্রির অভিযোগে রংপুরের একটি বেসরকারি হাসপাতালের পরিচালকসহ তিনজন আটক হয়েছেন।

রোববার বিকালে রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের গোয়েন্দা শাখার কার্যালয়ে ডাকা সংবাদ সম্মেলনে পুরো বিষয়টি তুলে ধরেন উপ পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) আবু মারুফ হোসেন।

প্রসূতির দেওয়া অভিযোগের বরাত দিয়ে তিনি জানান, প্রসব বেদনা নিয়ে গত ১৩ জানুয়ারি নগরীর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল এলাকার শাপলা রোডের হলি ক্রিসেন্ট হাসপাতালে ভর্তি হন ভুরারঘাট এলাকার লাবনী আক্তার (২২)।

ওই দিন রাতে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে নবজাতকের (ছেলে) জন্ম দেন লাবনী।

চারদিন পর হাসপাতালের বিল পরিশোধে ব্যর্থতার অজুহাত ও পরিবারটির অসহায়ত্বকে কাজে লাগিয়ে প্রসূতি মাকে না জানিয়ে সদ্যোজাত শিশুকে বিক্রির উদ্যোগ নেন হাসপাতালের পরিচালক এমএস রহমান রনি (৫৮)।

পরে শিশুটির বাবা ওয়াসিম আকরামের সহায়তায় রহমান রনি তার পরিচিত এক দম্পতির কাছে ৪০ হাজার টাকায় শিশুটিকে বিক্রি করে দেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপ পুলিশ কমিশনার আরও জানান, এ বিষয়ে প্রসূতি লাবনী আক্তার কোতোয়ালি থানায় অভিযোগ দেন।

পরে রোববার পুলিশ অভিযান চালিয়ে নগরীর মধ্য পীরজাবাদ এলাকা থেকে নবজাতকটিকে উদ্ধার করে।

একইসঙ্গে হলি ক্রিসেন্টের পরিচালক এমএস রহমান রনিসহ তিনজনকে আটক করা হয়। রনি নগরীর কামারপাড়া এলাকার বাসিন্দা।

আটক অন্য দুজন হলেন- নবজাতকটির ক্রেতা নগরীর মধ্য পীরজাবাদ এলাকার রুবেল হোসেন রতন (৩০) ও তার স্ত্রী জেরিনা আক্তার বিথী (৩০)।