ভিক্ষা না করার শপথ তাদের

উপজেলাকে ভিখারিমুক্ত করতে এ উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে।

ঝালকাঠী প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 27 July 2022, 03:28 PM
Updated : 27 July 2022, 03:28 PM

কারও চোখ নেই, কারও পা। এতোদিন ভিক্ষা করেই চলতো তাদের সংসার। তবে এখন থেকে আর ভিক্ষা না করার শপথ নিয়েছেন তারা।

ভিক্ষুক পুনর্বাসন ও বিকল্প কর্মসংস্থান কর্মসূচির আওতায় ঝালকাঠির কাঠালিয়া উপজেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে উপজেলার ছয় ভিক্ষুককে দেওয়া হয়েছে রিকশা, অটোরিকশা ও দোকান।

বুধবার দুপুরে উপজেলার দক্ষিণ চেঁচরী গ্রামের জোরাপোল বাজারের আশ্রয়ণের সামনে আনুষ্ঠানিকভাবে রিকশা, অটোরিকশা ও দোকানের চাবি হস্তান্তর করা হয়।

উপজেলার চেঁচরী রামপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ চেঁচরী গ্রামের শারীরিক প্রতিবন্ধী এছাহাক মল্লিক, একই গ্রামের দৃষ্টি প্রতিবন্ধী দুলাল হোসেন, দক্ষিণ আনইলবুনিয়া গ্রামের শারীরিক প্রতিবন্ধী মাহিনুর বেগম, দক্ষিণ আউরা গ্রামের অসহায় ভিক্ষুক জাহানারা জানুকে দোকান এবং দক্ষিণ চেঁচরী গ্রামের দৃষ্টি প্রতিবন্ধী আলেয়া বেগমের পিতা শেখ করিমকে রিকশা ও মনোয়ারা বেগমের স্বামী আবদুস ছত্তারের হাতে অটোরিকশার চাবি তুলে দেওয়া হয়।

এ সময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সুফল চন্দ্র গোলদার, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা এস এম দেলোয়ার হোসেন, ইউপি সদস্য শাহিন খান উপস্থিত ছিলেন।

জাহানারা বেগম জানু বলেন, “হাত পাতলে লজ্জা লাগে। এতো দিন ভিক্ষা করে সংসার পরিচালনা করছি। এখন থেকে আর ভিক্ষা করব না।”

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. এমাদুল হক মনির বলেন, আপাতত ছয়জনকে স্বাবলম্বী করতে এ উদ্যোগ। আস্তে আস্তে উপজেলাকে ভিখারিমুক্ত করতে এ উদ্যোগ অব্যাহত থাকবে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক