৬ পরীক্ষার্থীকে এসএসসিতে বসানোর নামে প্রধান শিক্ষকের ‘প্রতারণা’

পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার পাশাপাশি ওই শিক্ষকের বিচার দাবি করেন ভুক্তভোগীরা।

নরসিংদী প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 Feb 2024, 01:15 PM
Updated : 15 Feb 2024, 01:15 PM

নরসিংদী সদরে নির্বাচনি পরীক্ষায় অকৃতকার্য ছয় শিক্ষার্থীকে টাকার বিনিময়ে এসএসসিতে বসানোর সুযোগ দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে প্রতারণার অভিযোগ উঠেছে এক প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। 

দুটি স্কুল থেকে রেজিস্ট্রেশন করার পর নির্বাচনি পরীক্ষায় অকৃতকার্য হয়ে ওই শিক্ষার্থীরা এসএসসি পরীক্ষায় বসার অনুপযুক্ত বলে বিবেচিত হন। তখন তারা শিক্ষা বোর্ডের নিবন্ধনহীন নরসিংদী ডিজিটাল গার্লস হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজের প্রধান শিক্ষক আমিনুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।  

প্রধান শিক্ষক জনপ্রতি ১৫ হাজার টাকার বিনিময়ে তাদের রেজিস্ট্রেশন কার্ড ও প্রবেশপত্র দেওয়ার আশ্বাস দেন বলে অভিযোগ করেন ওই শিক্ষার্থীরা। 

কিন্তু বৃহস্পতিবার শুরু হওয়া পরীক্ষা কেন্দ্রে গিয়ে তারা প্রবেশপত্র না পেয়ে হলে বসতে ব্যর্থ হয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে এ ব্যাপারে অভিযোগ করেছেন। 

নরসিংদীর জেলা প্রশাসক বদিউল আলম সাংবাদিকদের বলেন, “বিষয়টি সম্পর্কে জানতে পেরেছি। তবে বিদ্যালয়টির অনুমোদনের কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি। ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে প্রচলিত আইনের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।” 

এ ছাড়া অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের প্রতারকদের হাত থেকে সাবধানতা অবলম্বনের আহ্বান জানান জেলা প্রশাসক। 

শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা জানান, বুধবার রাতে প্রবেশপত্র দেওয়ার আশ্বাস দিয়ে তাদের রায়পুরা উপজেলার বালুয়াকান্দী উচ্চ বিদ্যালয়ে উপস্থিত হওয়ার কথা বলে মোবাইল ফোন বন্ধ করে রাখেন প্রধান শিক্ষক আমিনুল ইসলাম। এরপর থেকে তাকে আর খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। 

সকালে প্রবেশপত্র পাওয়ার আশায় তারা পরীক্ষা কেন্দ্রে গিয়ে বৈধ কাগজপত্র ছাড়া হলে প্রবেশ করতে না পেরে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। পরে সেখান থেকে ফিরে তারা নরসিংদী জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে গিয়ে অভিযোগ করেন। 

পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার পাশাপাশি ওই শিক্ষকের বিচার দাবি করেন ভুক্তভোগীরা। 

মোবাইল বন্ধ থাকায় চেষ্টা করেও প্রধান শিক্ষকের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।