প্রাইভেট পড়ে ফেরার পথে ট্রাকের চাপায় শিক্ষার্থীর মৃত্যু, সড়ক অবরোধ

“এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন প্রায় তিন হাজার বালুবাহী ট্রাক চলাচল করে। বেশিরভাগই ওভারলোডেড ও বেপরোয়া গতিতে চলে।”

নেত্রকোণা প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 March 2024, 05:37 PM
Updated : 30 March 2024, 05:37 PM

নেত্রকোণার দুর্গাপুর উপজেলায় প্রাইভেট পড়ে বাড়ি ফেরার পথে বালুবোঝাই ট্রাকের চাপায় এক শিক্ষার্থী নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় কয়েকশ মানুষ সড়ক অবরোধ করে প্রায় তিন ঘণ্টা বিক্ষোভ করেন।

শনিবার বেলা পৌনে ৩টার দিকে বিরিশিরি-শ্যামগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কে উপজেলার ইন্দ্রপুর এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে দুর্গাপুর থানার এসআই মো. সাদেকুজ্জামান জানান।

নিহত আরাফাত (৭) উপজেলার কাকৈরগড়া ইউনিয়নের ইন্দ্রপুর গ্রামের মো. সোহেল মিয়ার ছেলে। সে স্থানীয় ইসলামিক ফাউন্ডেশন পরিচালিত শিক্ষা কার্যক্রমের শিশু শ্রেণিতে পড়ত।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, দুপুরে পাশের একটি বাড়িতে প্রাইভেট পড়তে যায় আরাফাত। পড়া শেষে হেঁটে বাড়ি ফিরছিল। এ সময় বাড়ির সামনে বালুবাহী ট্রাকটি আরেকটি ট্রাককে ওভারটেক করতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে আরাফাতকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই আরাফাত মারা যায়।

এ ঘটনার পর কয়েকশ মানুষ সড়কটি অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। এতে সড়কটিতে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। তখন পুলিশ গিয়ে অবরোধকারীদের সঙ্গে আলোচনা করে ঘটনার বিচারে যথাযথ আইনগত পদক্ষেপ নেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেয়। পরে সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে বিক্ষোভকারীরা অবরোধ তুলে নিলে যান চলাচল স্বাভাবিক হয়। 

শিশুটির বাবা সোহেল মিয়া ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন প্রায় তিন হাজার বালুবাহী ট্রাক চলাচল করে। এর মধ্যে বেশিরভাগই ওভারলোডেড ও বেপরোয়া গতিতে চলাচল করে। এ কারণে এখানে অহরহ দুর্ঘটনা ঘটে মানুষের মৃত্যু হচ্ছে।

“বহু মানুষ আহত হচ্ছেন, পঙ্গু হয়ে যাচ্ছেন। সড়কটি দিনে দিনে মৃত্যুফাঁদে পরিণত হয়েছে। আমি আমার ছেলেকে হারিয়েছি। এর বিচার চাই। আর যাতে অকালে কোনো প্রাণ ঝরে না যায় তার জন্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের কাছে দাবি জানাচ্ছি”, বলেন সোহেল মিয়া।

এসআই সাদেকুজ্জামান বলেন, দুর্ঘটনার পর পরই চালক ট্রাক নিয়ে পালিয়ে গেছেন। চালককে আটকের জন্য পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে। পরিবারের সঙ্গে কথা বলে মরদেহের ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।