নৌকার ক্যাম্পে হামলা: জামালপুরে আওয়ামী লীগ নেতাসহ ৮ জন কারাগারে

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জামালপুর-৫ আসনে তারা স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থক ছিলেন।

জামালপুর প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 Feb 2024, 06:16 PM
Updated : 15 Feb 2024, 06:16 PM

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জামালপুর-৫ আসনে নৌকার নির্বাচনি ক্যাম্পে ভাঙচুরের ঘটনায় করা মামলায় জেলা আওয়ামী লীগের এক নেতাসহ স্বতন্ত্র প্রার্থীর আট সমর্থককে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত।

বৃহস্পতিবার দুপুরে জামালপুরের মুখ্য বিচারিক হাকিম মাসুদ পারভেজ আসামিদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন বলে জানান আওয়ামী লীগ নেতার আইনজীবী ফজলুল হক।

এর আগে তারা উচ্চ আদালত থেকে জামিনে ছিলেন বলে জানান এ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজাউল করিম রেজনুর নির্বাচনি সমন্বয়ক ইকরামুল হক নবীন।

কারাগারে যাওয়ারা হলেন- জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক আছাদুজ্জামান আকন্দ বাবু, শাহবাজপুর এলাকার মীর সাইফুল, আক্তার হোসেন, আব্দুস সাত্তার, আবু সাইদ, মীর খলিল, নাইম ও মীর সাব্বির।

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের আগে ২৭ ডিসেম্বর সদর উপজেলার শাহবাজপুরে হক দাখিল মাদরাসায় নৌকা প্রতীকের প্রচার কেন্দ্রে হামলা ও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। ঘটনায় পরদিন সদর থানায় মামলা করেন নৌকার সমর্থক জাকির হোসেন।

এতে জেলা আওয়ামী লীগের তৎকালীন সাংগঠনিক সম্পাদক বাবু, জামালপুর চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সহসভাপতি ইকরামুল হক নবীনসহ ২৫ জনকে আসামি করা হয়।

বাবু জামালপুর-৫ (সদর) আসনে ঈগল প্রতীকের প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক ও জামালপুর চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির সভাপতি রেজাউল করিম রেজনুর প্রধান নির্বাচনি সমন্বয়ক ছিলেন।

আইনজীবী ফজলুল জানান, ২৫ জন আসামির মধ্যে বৃহস্পতিবার ২৩ জন আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন। আদালত বাবুসহ আটজনের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। আর চেম্বারের সহসভাপতি ইকরামুল হক নবীনসহ ১৫ জনের জামিন মঞ্জুর করেন বিচারক।