সুনামগঞ্জে বাল্কহেড-ট্রলার সংঘর্ষ, শ্রমিকের লাশ উদ্ধার, নিখোঁজ ২

এ ঘটনায় বাল্কহেডের চার শ্রমিককে আটক করা হয়েছে।

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 23 Sept 2022, 09:57 AM
Updated : 23 Sept 2022, 09:57 AM

সুনামগঞ্জের সুরমা নদীতে ট্রলারের সঙ্গে বাল্কহেডের সংঘর্ষে নিখোঁজ এক শ্রমিকের লাশ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস। এখনও নিখোঁজ রয়েছে দুই শ্রমিক।

শুক্রবার দুপুরে জামালগঞ্জ উপজেলার মান্নানঘাট বাজার এলাকায় সংবাদপুর গ্রামের পাশে সুরমা নদী থেকে হেলাল মিয়া নামে ওই শ্রমিকের লাশ উদ্ধার করা হয় বলে নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মিজানুর রহমান জানান।

মৃত হেলাল মিয়া শান্তিগঞ্জ উপজেলার মুরাদপুর গ্রামের হারুনুর রশিদের ছেলে।

জামালগঞ্জ থানার ওসি আব্দুল নাসের বলেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বালুবাহী ট্রলারটি জামালগঞ্জ থেকে গজারিয়া যাচ্ছিল। একই সময়ে কিশোরগঞ্জ থেকে সুনামগঞ্জের দুর্লভপুরের দিকে যাচ্ছিল বাল্কহেডটি। সংবাদপুর গ্রামের পাশে সুরমা নদীতে এ দুটি নৌযানের সংঘর্ষ হয়।

এ সময় ছয় শ্রমিক নিয়ে ট্রলারটি উল্টে যায়। তাদের মধ্যে তিনজন সাঁতরে তীরে উঠতে সক্ষম হলেও অপর তিনজন নিখোঁজ হন। দুর্ঘটনার পর পরই পুলিশ, এলাকাবাসী ও স্বজনরা তাদের সন্ধান করলেও কোনো হদিস মেলেনি।

পরে সুনামগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা গিয়ে তল্লাশি অভিযান শুরু করলে হেলালের লাশ পাওয়া যায় বলে জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।

এ ঘটনায় নিখোঁজ বাকি শ্রমিকরা হলেন- উপজেলার সাচনাবাজার ইউনিয়নের কুকরাপশি গ্রামের কামাল মিয়ার ছেলে এনামুল হক ও একই ইউনিয়নের নাজাতপুর গ্রামের রমজান আলীর ছেলে তুলা মিয়া।

নিখোঁজদের সন্ধানে ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা তল্লাশি চালাচ্ছেন জানিয়ে ওসি বলেন, এ ঘটনায় রাতেই বাল্কহেডের চার শ্রমিককে আটক করছেন তারা।

আটকরা হলেন- পিরোজপুর মঠবাড়িয়া থানার তুপখানা গ্রামের নান্না মিয়া (৬০), উদয়তারা বুরুঞ্চা গ্রামের আয়ুব আলী (৪৮), একই জেলার ভান্ডারিয়া থানার হরিনপাশা গ্রামের কবির হোসেন (৩৫) ও তার ছেলে তাওহিদ মিয়া (১৫)।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক