ছবিতে ছবিতে ডা. এস এ মালেককে স্মরণ

বঙ্গবন্ধু পরিষদের ১৫ বছরের সাংগঠনিক কর্মকাণ্ডের ওপর আলোকচিত্রী ফোজিত শেখ বাবুর ধারণ করা ছবি নিয়ে এই প্রদর্শনী।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 22 Jan 2023, 12:24 PM
Updated : 22 Jan 2023, 12:24 PM

বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাবেক সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাবেক রাজনৈতিক উপদেষ্টা ডা. এস এ মালেকের স্মরণে আলোকচিত্র প্রদর্শনী হল কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে।

রোববার বেলা ১১ টায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন দুই দিনব্যাপী এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন। এ উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভাতেও তিনি অংশ নেন। 

বঙ্গবন্ধু পরিষদের ১৫ বছরের সাংগঠনিক কর্মকাণ্ডের ওপর আলোকচিত্রী ফোজিত শেখ বাবুর ধারণ করা ছবি নিয়ে এই প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। সোমবার বিকেলে পর্যন্ত প্রদর্শনী সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে। 

ডা. এস এ মালেককে একজন ‘প্রচারবিমুখ’ ব্যক্তি হিসেবে বর্ণনা করে পররাষ্টমন্ত্রী বলেন, “তিনি ছিলেন চিন্তাবিদ ও গবেষক। এজন্য আমার সঙ্গে খুব ভালো যেত। উনি ছিলেন সত্যবাদী ও স্পষ্টবাদী মানুষ।

“সাম্প্রতিক সময়ে অনেক ধরনের উল্টাপাল্টা হচ্ছে, মালেক সাহেব থাকলে উনার সঙ্গে সেটা আলাপ করে সৎ সাহসের সঙ্গে সেটা বলা যেত। উনার মৃত্যু আমাদের জন্য বড় ধরনের ক্ষতি।” 

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সাবেক সদস্য, বীর মুক্তিযোদ্ধা এস এ মালেক গত ৬ ডিসেম্বর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে মারা যান। 

তার রুহের মাগফিরাত কামনা করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠার জন্য বঙ্গবন্ধু যে ধরনের সোনার মানুষ প্রত্যাশা করতেন, এস এ মালেক সেরকমই ছিলেন। “

‘বঙ্গবন্ধু পরিষদ’কে কেমন অবস্থানে দেখতে চান, সে কথা জানিয়ে মোমেন বলেন, “চাঁদাবাজি, মাতব্বরি, নেতৃত্ব নয় বরং সোনার মানুষ সৃষ্টি করাই বঙ্গবন্ধু পরিষদের মূল লক্ষ্য ও আকর্ষণ হওয়া উচিত বলে আমি মনে করি। আর এই কাজগুলো করতে পারাই এ ধরনের প্রতিষ্ঠানের সাথর্কতা।”

আলোচনায় জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অধ্যাপক মো. মশিউর রহমান বলেন, “বঙ্গবন্ধু পরিষদের প্রতিটি কাজে আমরা অতীতে ফিরে গেলে ডা. মালেককে খুঁজে পাই।“ 

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শ চর্চার মধ্য দিয়ে মালেকের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করার আহ্বান জানান অধ্যাপক মশিউর।

অনুষ্ঠানে ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশের উপাচার্য অধ্যাপক আব্দুল মান্নান চৌধুরী বলেন, বঙ্গবন্ধু পরিষদ গঠনের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও তার লক্ষ্য প্রচার ও প্রসারে ডা. এস এ মালেক ‘অত্যন্ত যোগ্যতার সাথে’ কাজ করে গেছেন।  

বঙ্গবন্ধু পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান লাল্টুর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে ডুয়েট উপাচার্য অধ্যাপক হাবিবুর রহমান, চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক নাসিম আখতার, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক জিয়া রহমান, সংসদ সদস্য আ ক ম সরওয়ার জাহান বাদশাহ, বঙ্গবন্ধু পরিষদের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. আব্দুল ওয়াদুদ, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শব্দ সৈনিক মুক্তিযোদ্ধা ড. মনোরঞ্জন ঘোষাল উপস্থিত ছিলেন।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক