রিজভীর ঝটিকা মিছিলে বিএনপির পঞ্চম দফার অবরোধ শুরু

রিজভী সরকারের উদ্দেশে বলেছেন, ‘অবৈধ’ নির্বাচন আয়োজন করে কোনো ‘লাভ হবে না’।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 15 Nov 2023, 05:09 AM
Updated : 15 Nov 2023, 05:09 AM

পঞ্চম দফা অবরোধের সকালে ঢাকার শাহবাগ ও প্রেস ক্লাবের সামনে নেতা-কর্মীদের নিয়ে ঝটিকা মিছিল করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

এছাড়া পল্লবী, যাত্রাবাড়ী, শান্তিনগর, মালিবাগ, ধানমণ্ডিসহ আরও কয়েক জায়গায় বিএনপি এবং কমলাপুর রেল স্টেশন এলাকায় স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মীরা মিছিল করেছেন বুধবার সকালে।

মিছিলের পর রিজভী সরকারের উদ্দেশে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, ‘অবৈধ’ নির্বাচন আয়োজন করে কোনো ‘লাভ হবে না’।

সরকার পতনের এক দফা দাবিতে দেশব্যাপী সড়ক, রেল ও নৌপথ অবরোধের ৪৮ ঘণ্টার নতুন কর্মসূচি বুধবার ভোর থেকে শুরু হয়েছে, যা শেষ হবে শুক্রবার সকাল ৬টায়।

ভোরের আলো ফুটতে না ফুটতেই সকাল ৬টার দিকে শাহবাগে ১৫/১৬ জন নেতা-কর্মীকে নিয়ে রিজভীকে একটি মিছিলের নেতৃত্বে দেখা যায়।

ওই সময়ে ‘আজকের অবরোধ সফল হোক সফল হোক’, দেশরক্ষার আন্দোলন সফল হোক সফল হোক’, ‘দোকান-পাট খুলবে না, ‘গাড়ি-ঘোড়া চলবে না’ স্লোগান দেন নেতা-কর্মীরা।

শহাবাগে রিজভী বলেন, “অবৈধ সরকার ও নির্বাচন কমিশন আরেক পাতানো নির্বাচন করতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। শুনছি, তাদের এই অবৈধ আয়োজনের সব কিছু সম্পন্ন করেছে।

“আমরা উচ্চকণ্ঠে বলতে চাই, আয়োজনে কোনো লাভ নেই। বাংলাদেশের জনগণ তাদের আর কোনো প্রহসন মেনে নেবে না। গণতন্ত্র ফেরানোর আন্দোলন এখন চূড়ান্ত পর্যায়। শান্তিপূর্ণভাবে এই অবরোধে আমাদের রাস্তায় থাকতে হবে। মনে রাখতে হবে আমাদের বিজয় সুনিশ্চিত।”

বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. রফিকুল ইসলাম, সাবেক কাউন্সিলর নিলুফার ইয়াসমিনসহ যুবদল, ছাত্রদলের নেতারা ছিলেন এই মিছিলে। শহবাগের মিছিলের পর সংক্ষিপ্ত বক্তব্য শেষে সেখান থেকে সরে যান রিজভী।

এর পর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনের রাস্তায় রিজভীকে মহিলা দলের নেতা-কর্মীদের মিছিলে পাওয়া যায়। ওই মিছিলে মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক সুলতানা আহমেদসহ কয়েকজন নেতাকর্মী ছিলেন।

সকালে রাজধানীর পল্লবী, মিরপুর ১০ নম্বর, যাত্রাবাড়ী, সবুজবাগ, ধানমণ্ডি, শান্তিনগর, মালিবাগ চৌধুরী পাড়া, রামপুরা, বাড্ডা, উত্তরায় ঝটিকা মিছিল বের করেন বিএনপির আত্মগোপনে থাকা নেতারা।

এছাড়া সকালে কমলাপুর রেল স্টেশনের সামনে স্বেচ্ছাসেবক দলের সহসভাপতি কামরুজ্জামান বিপ্লব, আবদুল কুদ্দুস, সরদার নুরুজ্জামান, মফিদুল ইসলামের নেতৃত্বে ঝটিকা মিছিল হয়।

গত ২৮ অক্টোবর সংঘর্ষের মধ্যে বিএনপির সমাবেশ পণ্ড হয়ে যাওয়ার পর থেকেই ধারাবাহিকভাবে হরতাল-অবরোধের কর্মসূচি দিয়ে আসছে বিএনপি। তাদের দীর্ঘদিনের মিত্র এবং সমমনা দল ও জোটগুলোও একই কর্মসূচি পালন করছে।  

নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের কলাসিবল গেইট সেদিনের সংঘর্ষের পর থেকেই তালাবন্ধ। কার্যালয়ের দুই পাশের কাঁটাতারের ব্যারিকেড মঙ্গলবার সরিয়ে নেওয়া হলেও পুলিশের অবস্থান রয়েছে আগের মতই।