যারা জ্বালাও-পোড়াও করছে, তাদের বিরুদ্ধে ভোট দেবেন: জয়

“উন্নয়নের গতি ধরে রাখতে পারলে ১০-১৫ বছরের মধ্যে বাংলাদেশে বিএনপি-জামায়াত বলে কোনো দল টিকবে না,” বলেন তিনি।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 18 Nov 2023, 12:01 PM
Updated : 18 Nov 2023, 12:01 PM

ভোটের আগ মুহূর্তে হরতাল-অবরোধের মধ্যে যে নাশকতামূলক কর্মকাণ্ড শুরু হয়েছে, তা মোকাবিলার উপায় বাতলে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। 

তার কথায়, “এখন নির্বাচনের সময় এসেছে, এখন আবার আরেকটি সমস্যা আমাদের সামনে এসে দাঁড়িয়েছে; সেটি কী? সেটি হচ্ছে বিএনপি-জামায়াতের সন্ত্রাস, জ্বালাও-পোড়াও; নিরীহ মানুষের উপর আক্রমণ। এই সমস্যাও কিন্তু সমাধান করা যায়। 

“আমরা জানি গত তিন নির্বাচন ধরে প্রত্যেক নির্বাচনের ঠিক মাস দুয়েক আগে এই জ্বালাও-পোড়াও, সংঘর্ষ শুরু করে। এটার মোকাবিলা কী? এটার মোকাবিলা কিন্তু খুবই সহজ। এটার মোকাবিলা হচ্ছে- যারা জ্বালাও-পোড়াও করছে, তাদের বিরুদ্ধে ভোট দেবেন। যারা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে, তাদেরকে ভোট দেবেন, নৌকায় ভোট দেবেন।" 

শনিবার দুপুরে ঢাকার সাভারের শেখ হাসিনা জাতীয় যুব উন্নয়ন ইনস্টিটিউটে জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ডের সপ্তম আসরে তিনি এসব কথা বলেন।

দেশের ৭৫০টিরও বেশি সংগঠনের মধ্য থেকে ১২টি সংগঠনের হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন তিনি। 

তরুণদের উদ্দেশে সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, “বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া, দেশের যত সমস্যা আছে, দেশের বড় বড় সমস্যা নিয়েও অনেকে চিন্তা করে, দুর্নীতি বলেন- এটার সমস্যাও আপনারাই সমাধান করতে পারেন। শুধুমাত্র সরকার পারে- এটা না; আমরা সবাই কিন্তু বাংলাদেশের সকল সমস্যার মোকাবিলা করতে পারি।”

আওয়ামী লীগের গবেষণা উইং সিআরআইয়ের চেয়ারপারসন জয় বলেন, “যারা দেশের জন্য কিছু করে নাই, সেই স্বৈরাচার জিয়াউর রহমানের সৃষ্টি দল- যে দেশে গণহত্যা করেছে সেই জিয়াউর রহমান, যে নিরীহ মানুষকে ফাঁসি দিয়েছে তার সৃষ্ট দল, যারা দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল, যারা যুদ্ধাপরাধী জামায়াতে ইসলামকে বাংলাদেশে ফিরিয়ে এনেছে, বাংলাদেশের নিরীহ মানুষের উপর সন্ত্রাস নির্যাতন চালিয়েছে এবং এখনও চালিয়ে যাচ্ছে- তারা তো দেশের জন্য কোনও সময় কিছু করেনি। একমাত্র দেশের জন্য আপনারা করছেন এবং আওয়ামী লীগ করে যাচ্ছে। 

“এখন এটা আর কাউকে বোঝাতে হয় না, কারণ ১৫ বছরে বাংলার মানুষ দেখেছে- বাংলাদেশ কোথা থেকে কোথায় এসেছে; কেউ কল্পনাও করতে পারেনি।”

উন্নয়নের এ ‘গতি’ গত ১৫ বছর আগে কেউ স্বপ্নেও ভাবতে পারেনি মন্তব্য করে বঙ্গবন্ধুর এ দৌহিত্র বলেন, “এই গতি যদি ধরে রাখা যায়, আগামী ১০-১৫ বছরে বাংলাদেশ একটি উন্নয়নশীল দেশ হবে। আর আগামী ১০-১৫ বছরে বাংলাদেশে বিএনপি-জামায়াত বলে কোনো দল আর টিকবে না। 

“তখন এই বাংলাদেশে শান্তি আসবে, যখন এই জঙ্গিবাদ মৌলবাদী শক্তির চিহ্ন বাংলাদেশ থেকে মুছে যাবে। বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ নিয়ে আমার সন্দেহ নাই।"

বিদেশিদের সমালোচনা করে জয় বলেন, “আমরা জানি যে এখন অনেকেই এই জঙ্গিবাদ মৌলবাদীদের উস্কাচ্ছে, যেহেতু নির্বাচন সামনে। আমি আপনাদের অনুরোধ করব, এদের কথায় কান দেবেন না। কে কী বলছে- এতে যায় আসে না। আর বিশেষ করে দেখা যায় বিদেশি অনেকে, অনেক বিদেশি রাষ্ট্রদূত ঠিক নির্বাচনের আগ মুহূর্তে অনেক বেশি কথা বলা শুরু করে।  

“ঠিক তখনই কিন্তু এই সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ এই জ্বালাও-পোড়াও শুরু হয়। তার মানে কি- তাদেরকে এরাই উস্কাচ্ছে। তবে চিন্তা করবেন না, যেদিন নির্বাচন শেষ হয়ে যাবে, পরদিন তারাও চুপ হয়ে যাবে, আর বেশি দিন নাই, মাত্র দেড় মাস।"

আরও পড়ুন

Also Read: আগামী ১৫ বছরে উন্নত দেশ: জয়

Also Read: জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড পেল ১২ সংগঠন