যুদ্ধে আহত হয়েছিলেন মোঃ আজিজুল হক

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 Dec 2016, 06:14 PM
Updated : 29 Dec 2016, 06:14 PM

মোঃ আজিজুল হক। ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে ৩ নম্বরে সেক্টরে যোগ দিয়েছিলেন তিনি।

মুক্তিযুদ্ধের সময়ে পাক বাহিনীর নৃশংসতা দেখে আতকে উঠেছিলেন মোঃ আজিজুল হক। পাল্টা আঘাত যে করতে হবে সেটা বুঝতে পেরেছিলেন। তাই ভারতে গিয়ে অস্ত্র চালনার প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেন। 

ভারতে যাওয়ার সময়ে বড়সড় বিপদের সম্মুখীন হন তিনি। আখাউড়ার কাছাকছি এসে একটা বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছিলেন আজিজুল হক এবং তার সঙ্গীরা। সেই বাড়ির ছেলে রাজাকার বাহিনীর সদস্য ছিল। তাই যে কোন সময় বিপদ ঘটতে পারত। এ সময়ে আজিজুল হক বাড়ির গৃহকর্ত্রীকে কৌশলে নিজের পক্ষে নিয়ে আসেন এবং নিরাপদে সেখান থেকে বেড়িয়ে গিয়েছিলেন।  

প্রশিক্ষণ শেষে দেশে ফিরে যুদ্ধে যোগ দিয়েছিলেন মোঃ আজিজুল হক। মনোহরদীর যুদ্ধের কথা বেশি মনে পড়ে তার। কারণ এই যুদ্ধে আহত হয়েছিলেন তিনি। এই যুদ্ধে বহু পাকিস্তানি সেনা নিহত হয় এবং উল্লেখযোগ্য সংখ্যক সেনা মুক্তিযোদ্ধাদের হাতে বন্দি হয়।

মোঃ আজিজুল হক মনে করেন তাদের যুদ্ধ এখনও শেষ হয় নি। নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে সঠিক ধারণা দিতে চান তিনি। কারণ মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানলেই দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিতে উদ্বুদ্ধ হবে নতুন প্রজন্ম।

Also Read: পাকবাহিনীকে বহুবার পদর্যুস্ত করেছিলেন ক্যাপ্টেন শচীন কর্মকার

Also Read: ক্যাপ্টেন সাহাবুদ্দিনের চোখের সামনেই বাংলার আকাশ শত্রুমুক্ত হয়েছিল

Also Read: ‘বিমানবাহিনীর অকুতোভয় যোদ্ধা ক্যাপ্টেন আলমগীর সাত্তার’

Also Read: ‘আবুল হাশেমের চোখের সামনেই মারা যান বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান’

Also Read: ‘শরীরে গুলি লাগার পরেও আব্দুল শহীদ যুদ্ধ চালিয়ে গিয়েছিলেন’

Also Read: ভুল বুঝে আক্কু চৌধুরীকে মুক্তিযোদ্ধারা ধরে নিয়েছিলেন

Also Read: ‘অপারেশন হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টাল - হিট এ্যান্ড রান’

Also Read: চোখে যখন প্রতিশোধের আগুন

Also Read: কবরস্থানের গর্তে দিনরাত লুকিয়ে প্রাণ বাঁচান মুক্তিযোদ্ধা খোরশেদ

Also Read: হাত-মুখে গুলি লাগার পরেও লড়াই চালিয়ে যান ফরিদ মিয়া

Also Read: বাঘা হান্নানের অ‌্যাম্বুশে ধরাশায়ী পাকিস্তানি মিলিশিয়া

Also Read: যুদ্ধের স্মৃতি এখনও আলোড়িত করে শফিকুলকে

Also Read: মুক্তির আহ্বান

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক