অযৌক্তিক প্রেম

যদি মনে হয় ‘পরানে যে গান বাজিছে তাহার তালটি’ দুজন মিলে শেখা হচ্ছে না! তাহলে ধরে নিতে হবে ‘ভুল’ মানুষের সঙ্গে সম্পর্ক হয়েছে।

লাইফস্টাইল ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 Oct 2017, 09:16 AM
Updated : 30 Oct 2017, 09:47 AM

অনেকেই একা থাকতে পারেন না, অনেকে বন্ধুমহলে সবারই ‘প্রিয় সঙ্গী’ রয়েছে বলেই নিজে প্রেম করছেন। আবার সম্পর্কটা ঠিক মতো কাজ করছে না বুঝেও ‘পাছে লোকে কিছু বলে’ এই অস্বস্তিতে সঙ্গীকে ফিরিয়ে দিচ্ছেন না- এরকম অযৌক্তিক কারণে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখার কোনো মানে হয় না।

সম্পর্কবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে এই বিষয়ের উপর প্রকাশিত প্রতিবেদনে বেশ কয়েকটি কারণ উল্লেখ করা হয়, যেগুলো আপনার জীবনে ঘটে থাকলে ‘সম্পর্ক’টা নিয়ে পুনরায় ভাবনা দেওয়ার প্রয়োজন হতে পারে।

একা থাকতে না চাওয়া: ‘সঠিক মানুষ’ নাও পেতে পারেন, এই ভয় থেকে অনেকে বাজে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখেন। বিশেষ করে নারীদের মধ্যে এই লক্ষণ দেখা যায়। তারা মনে করেন একা থাকার চাইতে ‘ভুল’ মানুষের সঙ্গে থাকা ভালো।

এরকম পরিস্থিতে মনে রাখতে হবে, এই মনোভাবের কারণে কোনো সময়ই মনের মতো সঙ্গী খুঁজে পাওয়া যাবে না। তাই বর্তমান সম্পর্কটা বরং ছাড়ুন।

ভাঙতে ভয়: দুই মাস কিংবা দুই বছর- সম্পর্কের বয়স যতদিনই হোক, ভাঙন অবশ্যই যন্ত্রণাকর। শুধু মাত্র দুঃখ পাবে বলে প্রেমের সম্পর্ক ঠিকমতো না আগালেও সঙ্গীকে এজন্য মানা করতে পারছেন না।

এই পরিস্থিতে একটাই সমাধান পরে- পস্তানোর চাইতে আগেই ঝামেলা মিটিয়ে ফেলুন।

পারিবারিক চাপ: নিজের সঙ্গে যাচ্ছে না, অথচ পরিবারের মানুষজন আপনার সঙ্গীকে বেশ পছন্দ করে। তারা চায় এই মানুষটার সঙ্গেই আপনি গাঁটছড়া বাঁধুন।

পরিবারের কথা ভেবে আপনি এই ক্লান্তিকর সম্পর্কটা টেনে নিয়ে চলেছেন।

বন্ধুদের বন্ধন: প্রায় সব বন্ধুরই ‘প্রেম’ রয়েছে। ছুটির দিনে একসঙ্গে ঘুরতে গেলে বা কোনো আড্ডায় বন্ধুদের দেখানোর জন্যে হলেও নিজের একটা প্রেম টিকিয়ে রেখেছেন। অথচ আপনি হয়ত ‘যুগল’ হয়ে থাকার মতো মানসিকভাবে এখনও প্রস্তুত না।

এরকম ভাবে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখলে শুধু সঙ্গীকে নয়, নিজেকেও ঠকানো হয়। জীবনতো আর মরীচিকা নয়, তাই না!

অতি ভালো: হতে পারে আপনার সঙ্গে যাচ্ছে না তবে মানুষটা ভালো। আর সে কারণে দয়া করে হলেও তার সঙ্গে সম্পর্ক টিকিয়ে রেখেছেন। কষ্ট দিতে চান না তাকে।

সহানুভূতি দেখিয়ে সম্পর্ক টিকিয়ে রাখা হতে পারে মহৎ গুণ। তবে মনে রাখবেন এই ধরনের পরিস্থিতি সম্পর্কে বিপর্যয় ডেকে আনে।

পরিবার ভালো, সে নয়: এরকমও হতে পারে- সঙ্গী ভালো না তবে তার পরিবার বন্ধুজন আপনাকে অনেক আদর করে। সঙ্গীর সঙ্গে সম্পর্ক ছেঁদ করলে তার আত্মীয়-বন্ধুদের সঙ্গও ত্যাগ করতে হবে। এই ভাবনা থেকে সম্পর্কটা টেনে নিয়ে যাচ্ছেন। তবে সেটা কি ঠিক হচ্ছে? নিজেই চিন্তা করে দেখুন।

এই কারণগুলো যদি সম্পর্কের মধ্যে ঘুরে-ফিরে আসে তাহলে নতুন করে ভাবার দরকার রয়েছে। মনে রাখতে হবে ‘প্রেম-ভালোবাসা’ মানে রেস্তোরাঁয় একসঙ্গে বসে কফির কাপে চুমুক দেওয়া নয় বরং জীবনের ঝড়ঝঞ্ঝায় আশ্রয় পেলে, আস্থায় নিয়ে পাশে থাকলে তবেই না ‘আকুল জীবনমরণ টুটিয়া লুটিয়া’ নিবে ‘অতুল গৌরব’য়ে।

ছবি: রয়টার্স।

আরও পড়ুন

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক