করোনার দুর্ভোগে সুবিধাবঞ্চিত পরিবারের পাশে আগামী

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক অলাভজনক সংস্থা ‘আগামী’র সহপ্রতিষ্ঠান ‘আগামী এডুকেশন ফাউন্ডেশন’ দেশের কোভিড-১৯ দূর্যোগ মোকাবিলায় সংকটাপন্ন প্রায় ৩ হাজার দুস্থ পরিবারের দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে খাবার এবং জীবনধারণের প্রয়োজনীয় সামগ্রীনিয়ে।

লাইফস্টাইল ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 19 May 2020, 10:56 AM
Updated : 19 May 2020, 10:56 AM

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তারা জানায়, আগামী’র জরুরি সহায়তা/ কার্যনির্বাহী দলের তথ্য অনুযায়ী, ঢাকা, গাজীপুর, কুমিল্লা, সিলেট, হবিগঞ্জ, চট্টগ্রাম, রাঙামাটি এবং ঝিনাইদহে আগামী সহায়তাপুষ্ট ১৩টি বিদ্যালয়ে প্রায় ৩,২৪১ পরিবারের কাছে ইতোমধ্যেই দ্বিতীয় পর্যায়ের সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।

তাহসিনরফ, যিনি আগামীর পক্ষ থেকে এই উদ্যোগ এর নেতৃত্ব দিচ্ছেন, তিনি বলেন, “এই সংকটময় পরিস্থিতি এবং তীব্র চাহিদার সময়ে বাচ্চাগুলো তাদের খাবার, স্বাস্থ্য আর নিরাপত্তার বিশ্বস্ত উৎস হিসেবে আমাদের দিকেই ভরসা নিয়ে তাকিয়ে আছে। যেকোন সুবিধা ও সুযোগ পাওয়ার ক্ষেত্রে তারাই সবচেয়ে নাজুক অবস্থায় আছে। আমরা অবশ্যই তাদের পাশে আছি এবং ওদের নিরাপত্তায় যা প্রয়োজন আমরা করব। আন্তরিক সহযোগিতা নিয়ে পাশে থাকা আমাদের দাতাগোষ্ঠি এবং স্থানীয় ব্যবসায়ীদের অসংখ্য ধন্যবাদ।”

গত ২৮ মার্চ, ২০২০ তারিখে আগামী এডুকেশন ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক নাফিসা খানম ঢাকার মোহাম্মদপুরের একটি সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের বিদ্যালয়ে এই সহায়তা কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক সূচনা করেন।

তিনি বলেন, “লকডাউনের কারণে ইতোমধ্যেই প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবিকার অভাব, খাবারের স্বল্পতা, চিকিৎসা সুবিধার দুষ্প্রাপ্যতা ও অন্যান্য মৌলিক চাহিদা পূরণে অসামঞ্জস্যতা দেখা দিয়েছে। এই সংকটময় পরিস্থিতিতে আমরা এই সুবিধাবঞ্চিত শিশু ও তাদের পরিবারকে যথাসম্ভব সহায়তা প্রদান করে যাব।”

খিলগাঁয়ে অবস্থিত আগামী’র পিএসডি নন্দীপাড়া বিদ্যালয়ের শিক্ষক শিরিন আক্তার আগামী কে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে বলেন- “আমাদের শিক্ষার্থীরা মূলত দিনমজুরদের সন্তান। এ অবস্থায় আগামী এডুকেশন ফাউন্ডেশন যেভাবে তাদের নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী সরবরাহ করছে তাতে ওদের নিরাপত্তা ও খাদ্যসংকট কিছুটা হলেও কমে এসেছে।”

এই বিভিন্নমুখী সহায়তার মাঝে ত্রাণ সরবরাহ ও স্বাস্থ্য নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে মাসব্যাপী প্রয়োজনীয় খাবার সরবরাহ এবং হটলাইনের মাধ্যমে ডাক্তারের সঙ্গে প্রয়োজনীয় মেডিকেল পরামর্শেরও সুযোগ রয়েছে।

এছাড়া, কোভিড-১৯ পরবর্তী অবস্থায় এই সুবিধাবঞ্চিত শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ে ফিরে আসার ক্ষেত্রে যে চ্যালেঞ্জ রয়েছে তা মোকাবিলার কর্মপরিকল্পনা নিয়েও কাজ করছে আগামী।

আগামী’র এই খাদ্য বিতরণ ও সহায়তা কর্মসূচীতে সহায়তা প্রদানের জন্য বর্তমানে একটি ফান্ডরেইজিং ইভেন্ট চলমান রয়েছে যার বিস্তারিত রয়েছে ফেসবুক পেইজ এবং agami.org ঠিকানায়।

এছাড়াও ঢাকায় আগামী এডুকেশন ফাউন্ডেশনের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট অথবা বিকাশের মাধ্যমে সহায়তা প্রদানের সুযোগ রয়েছে।

উল্লেখ্য, আগামী এডুকেশন ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠার পর থেকেই বাংলাদেশের সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের গুণগত শিক্ষা সরবরাহের প্রত্যয় নিয়ে কাজ করে যাচ্ছে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক