এ উপন্যাস গণিত নিয়ে

উপন্যাসের প্রধান দুই চরিত্র গণিতবিদ মেজোকাকু এবং ‘গণিতের রানি’ বলে খ্যাত নাম্বার থিওরি।

কিডজ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 24 Feb 2024, 09:04 PM
Updated : 24 Feb 2024, 09:04 PM

অমর একুশে বইমেলায় প্রকাশিত হয়েছে অধ্যাপক ও লেখক ফারসীম মান্নান মোহাম্মদীর কিশোর উপন্যাস ‘অঙ্ক ও মেজোকাকুর হেঁয়ালি’।  

বইটি প্রকাশ করেছে প্রথমা প্রকাশন। প্রচ্ছদ করেছেন আরাফাত করিম। মূল্য ৩৫০ টাকা।

উপন্যাসের প্রধান দুই চরিত্র গণিতবিদ মেজোকাকু এবং ‘গণিতের রানি’ বলে খ্যাত নাম্বার থিওরি। কাহিনির কেন্দ্রীয় চরিত্র বিশ শতকের প্রথমার্ধের একজন প্রতিভাধর গণিতবিদ। তিনি একটি বিখ্যাত সমস্যার প্রমাণ খুঁজে বের করতে সচেষ্ট হন। সমস্যাটি আরেকজন কিংবদন্তি গণিতবিদের বর্ণনা করা একটি অনুমান। এ প্রমাণের জন্য তিনি উপেক্ষা করে যান সাময়িক সাফল্য, সফলতার উত্তেজনা, ক্যারিয়ার, সামাজিকতা, এমনকি জীবন।

বইটির ভূমিকায় লেখক ফারসীম মান্নান মোহাম্মদী লিখেছেন, “এটি একটি বিদেশি উপন্যাসের ছায়া অবলম্বনে রচিত। মূল বইয়ের নাম ‘আঙ্কেল পেট্রোস অ্যান্ড গোল্ডবাখ’স কনজেকচার’, লিখেছেন অ্যাপোস্তোলোস দোক্সিয়াদিস। বর্তমান বইটিতে মূলের নির্যাস নিয়ে ছাঁচটা বদলে দেওয়া হয়েছে। মূল কাহিনিটি গ্রিক পটভূমিতে রচিত। বর্তমান গল্পে সেটা তদানীন্তন অখণ্ড ভারতীয় এবং পরে পূর্ব পাকিস্তানের পটভূমিতে বিন্যস্ত হয়েছে। ফলে বেশকিছু পরিচিত চরিত্র এখানে দেখা যাবে।” 

মুখবন্ধে কবি ও গদ্যকার খান রুহুল রুবেল লিখেছেন, “অঙ্ক নিয়ে বই, তবে অঙ্কের বই নয়; আবার বইয়ের কোনো কিছুই অঙ্কের বাইরেও নয়। এ রকম একটি বই আমার অভিজ্ঞতায় বিরল। 'সায়েন্স ফিকশন' কথাটার সঙ্গে আমরা পরিচিত। সে হিসেবে বইটিকে 'ম্যাথ ফিকশন' বলা যেতে পারে।”

বাংলাদেশ গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির সাধারণ সম্পাদক মুনির হাসান বইটি সম্পর্কে লিখেছেন, “এটি কেবল একটি গণিতের বই নয়। বলা যায়, একজন গণিতবিদের পাওয়া না-পাওয়ার আখ্যান এ বই। ‘গণিতের রানি’ বলে খ্যাত নাম্বার থিওরির নানা বিষয় কাহিনির আকারে ও বিবিধ ব্যঞ্জনায় এতে প্রকাশ পেয়েছে। সেই সঙ্গে এতে চিত্রিত হয়েছে একজন গণিতবিদের জীবন ও কর্ম। হলোই-বা তা কাল্পনিক। আমাদের খুদে গণিতবিদ, যাদের নিয়ে আমরা আগামী বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখি তাদের জন্য এ বই এক মূল্যবান উপহার। গণিতের রাজ্যে হারিয়ে আবার নিজের মধ্যে ফেরত আসার উপলব্ধির দিক থেকেও এ বইটি খুবই জরুরি।”

অমর একুশে বইমেলায় বইটি পাওয়া যাচ্ছে প্রথমা প্রকাশন, ৫ নাম্বার প্যাভিলিয়নে।