স্বাস্থ্যখাতের ‘১০% ব্যয়’ ডায়াবেটিস চিকিৎসায়

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রি-ডায়াবেটিসে যারা ভুগছেন, তাদের এই রোগ থেকে দূরে রাখতে পারলে বিপুল অর্থের সাশ্রয় হত।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 20 Nov 2022, 02:54 PM
Updated : 20 Nov 2022, 02:54 PM

বাংলাদেশে প্রায় দুই কোটি মানুষ ডায়াবেটিসে এবং সমান সংখ্যক মানুষ প্রি-ডায়াবেটিসে ভুগছেন; দেশে স্বাস্থ্যখাতের মোট ব্যয়ের ১০ শতাংশই ডায়াবেটিস চিকিৎসায় খরচ হয়ে বলে বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন।

তারা বলছেন, প্রি-ডায়াবেটিসে যারা ভুগছেন, তাদের এই রোগ থেকে দূরে রাখতে পারলে বিপুল অর্থের সাশ্রয় হত বলেও জানানো হয়।

রোববার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘ডায়াবেটিস: প্রতিরোধ ও ব্যবস্থাপনায় দরকার শিক্ষা’ শীর্ষক সেমিনারে বক্তাদের কথায় উঠে আসে এ তথ্য ।

অ্যান্ডোক্রাইনোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক শাহাজাদা সেলিম, নেফ্রোলোজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক সৈয়দ ফজলুল সেলিম, অফথালমোলজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক তারিক রেজা আলী তিনটি প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সেমিনারে।

অধ্যাপক শাহজাদা সেলিম বলেন, ৬১ শতাংশ মানুষ যারা মনে করেন তাদের ডায়াবেটিস নেই, কিন্তু পরীক্ষা করলে দেখা যায় তাদের ডায়াবেটিসের মাত্রা এত বেশি যে ওষুধ বা ইনসুলিন শুরু করতে হয়।

“ডায়াবেটিস রোগীর ৮০ শতাংশ মারা যায় হার্ট অ্যাটাকে। ডায়াবেটিস না থাকলে কিডনি রোগী অনেক কমে যেত। ডায়াবেটিস থেকে অন্য রোগ হওয়ার কারণে খরচ আরও বেড়ে যায়। ডায়াবেটিসে ব্যক্তির পাশাপাশি সরকারের ব্যয়ও বাড়ছে। বাংলাদেশে স্বাস্থ্যখাতের মোট ব্যয়ের ১০ শতাংশ ডায়াবেটিসের চিকিৎসায় ব্যয় হয়।”

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মো. শারফুদ্দিন আহমেদ বলেন, প্রতি বছর ডায়াবেটিস রোগীদের চিকিৎসায় যে টাকা খরচ হয়ে তা দিয়ে পদ্মাসেতুর মত বড় প্রকল্প নেওয়া যাবে।

“ডায়বেটিস নিয়ন্ত্রণে শরীর চর্চা, খাদ্যাভ্যাসের গুরুত্ব অপরিসীম। আমাদের জিহ্বায় যা ভাল লাগে তার অধিকাংশ স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। তাই খাদ্যাভ্যাস নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। এক কথায় জীবনাচার নিয়ন্ত্রণ রাখলে ডায়বেটিস প্রতিকারের পাশাপাশি প্রতিরোধও সম্ভব।”

অধ্যাপক ডা. বেলায়েত হোসেন সিদ্দিকীর সভাপতিত্বে সেমিনার সঞ্চালনা করেন রেসপেরেটরি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সম্প্রীতি ইসলাম।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক