চিকিৎসকদের ‘বীরত্ব’র গল্প বলতে আসছে বীরত্ব

আগামী শুক্রবার মুক্তি পেতে যাচ্ছে ইমন-সালওয়ার এই সিনেমা।

গ্লিটজ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 13 Sept 2022, 07:07 PM
Updated : 13 Sept 2022, 07:07 PM

চিকিৎসকদের ‘বীরত্বের’ গল্প নিয়ে নির্মিত সিনেমা ‘বীরত্ব’ মুক্তি পাচ্ছে আগামী শুক্রবার।

এতে প্রধান দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক মামনুল ইমন, নবাগত চিত্রনায়িকা নিশাত নওয়ার সালওয়া। রয়েছেন নিপুণ আক্তারও।

এই সিনেমার মধ্য দিয়ে প্রথমবারের মতো খল চরিত্রে অভিনয় করছেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় দুই অভিনেতা ইন্তেখাব দিনার ও আহসান হাবীব নাসিম।

পিংপং এন্টারটেইনমেন্টের প্রযোজনায় সিনেমাটি নির্মাণ করেছেন তরুণ নির্মাতা সাইদুল ইসলাম রানা।

সিনেমা মুক্তির আগে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন সংস্থা এফডিসিতে ‘মিট দ্য প্রেস’র আয়োজন করা হয়।

এতে সিনেমার কলাকুশলীরা ছাড়া্র উপস্থিত ছিলেন পরিচালক সমিতির সভাপতি সোহানুর রহমান সোহান, সাবেক সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজার, প্রযোজক-পরিচালক মো. ইকবাল, পরিচালক শাহিন সুমন। 

ইমন বলেন, “ডাক্তারদের বীরত্বগাঁথা নিয়ে সিনেমা বীরত্ব। আমাদের দেশে পুলিশ নিয়ে সিনেমা হয়েছে। র‌্যাব নিয়ে সিনেমা হয়েছে। কিন্তু ডাক্তারদের নিয়ে সিনেমা হয়নি। অথচ করোনার সময়ে দেখেছি জরুরি মুহূর্তে তাদের ভূমিকাও বীরত্বপূর্ণ। ডাক্তার চরিত্রে অভিনয় করতে গিয়ে তাদের ত্যাগ ও সংগ্রামটা বুঝতে পেরেছি।”

চিকিৎসকের চরিত্রে অভিনয় প্রসঙ্গে ইমন বলেন, “জীবনে বহু চরিত্রে অভিনয় করেছি। এত গভীরভাবে কখনও চরিত্রের মায়ায় পড়িনি। একটা অদ্ভুত ভালো লাগা কাজ করছে সেই শুটিং থেকে এখন পর্যন্ত। এরকম চরিত্র পাওয়া যে কোনো অভিনেতার জন্যই বড় অর্জন।

“আমরা যখন শুটিং করি তখন মহামারী পুরোপুরি যায়নি। বিশেষ ব্যবস্থায় শুটিং করতে হতো। সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মানতে হতো। রাজবাড়ীর দৌলতদিয়ার পতিতা পল্লীতে আমাদের অনেকটা শুটিং হয়েছে। সবাই সিনেমাটার জন্য অনেক কষ্ট করেছেন।”

দর্শককে হলে গিয়ে সিনেমাটি দেখার অনুরোধ জানান এই অভিনেতা।

‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ এর মঞ্চ থেকে আসা চিত্রনায়িকা সালওয়া বলেন, “আমিও একজন ডাক্তারের চরিত্রে অভিনয় করেছি। এর আগে কখনও আইসিইউতে যাইনি। এই সিনেমায় অভিনয় করার সুবাদে যেতে হয়েছে। এতে কাজের অভিজ্ঞতাটা দারুণ। আমার প্রথম সিনেমা দর্শক গ্রহণ করলে উৎসাহিত হব।”

পরিচালক সাইদুল ইসলাম রানা বলেন, “বীরত্ব একজন সাহসী যুবকের জীবনের নানা ঘাত প্রতিঘাতের গল্প। আমার গল্পের কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করা সাহসী যুবকের নাম রাজু। সে ইতিহাসে নতুন অধ্যায়ের সূচনা করে। অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়ে আর্তকে আশ্রয় দেয়।”

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক নিপুণ বলেন, “আমি এই সিনেমায় নিষিদ্ধ পল্লীর একটি মেয়ের চরিত্রে অভিনয় করেছি। চরিত্রটা খুবই চ্যালেঞ্জিং ছিল আমার জন্য। এতে কাজ করতে গিয়ে বেশ পরিশ্রম করতে হয়েছে। দর্শক হলে গিয়ে সিনেমাটি দেখলে আমাদের পরিশ্রম সার্থক হবে।

পরিচালনার পাশাপাশি সিনেমার গল্প, চিত্রনাট্য ও সংলাপ লিখেছেন রানা।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক