ছেলের কারণে দ্বিতীয় বিয়ে নিয়ে ভাববেন না অপু

শাকিব খানের সঙ্গে জীবন এগিয়ে নেওয়ার কোনো পরিকল্পনায় আছে কী না জানতে চাইলে অপু বিষয়টি ‘সময়ের ওপর’ ছেড়ে দিয়েছেন।

গ্লিটজ ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 30 Nov 2023, 05:55 AM
Updated : 30 Nov 2023, 05:55 AM

কেবলমাত্র সন্তানের জন্য দ্বিতীয়বার বিয়ের কথা ভাবতে রাজি নন ঢাকাই সিনেমার নায়িকা অপু বিশ্বাস। সন্তান কোনো ‘ভাঙা’ পরিবারের বেড়ে ওঠুক, তা চান না এই অভিনেত্রী।

আনন্দবাজারকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে অপু বলেছেন, ছেলেকে নিয়ে ওই চিন্তা থেকেই সাবেক স্বামী ঢাকাই সিনেমার সুপারস্টার শাকিব খান এবং তার পরিবারের সঙ্গে তিনি যোগাযোগ রক্ষা করে চলেছেন।

শাকিব খানের সঙ্গে জীবন এগিয়ে নেওয়ার কোনো পরিকল্পনায় আছে কি না জানতে চাইলে অপু বিশ্বাস বিষয়টি ‘সময়ের ওপর’ ছেড়ে দিয়েছেন।

বর্তমানে সিনেমায় অভিনয়, প্রযোজনা, ফটোশ্যুট এবং সোশাল মিডিয়ায় বেশ সক্রিয় এই অভিনেত্রী । শাকিবের আরেক স্ত্রী অভিনেত্রী শবনম বুবলীকে নিয়ে বিভিন্ন সময়ে নানা ধরনের মন্তব্যের জন্যও থাকেন আলোচনায়। 

শাকিবের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর সন্তান আব্রাহাম খান জয়কে নিয়ে একক জীবনে আছেন অপু। কখনো তিনি দ্বিতীয় বিয়ের কথা ভেবেছেন কি না- এমন প্রশ্নে অপুর সরাসরি উত্তর হল ‘না,।

উল্টো প্রশ্ন রেখে অপু বলেন, “‘দ্বিতীয় বিয়ের দরকারটা কি?  একটা মেয়ে, যার সন্তান আছে সে কেন দ্বিতীয় বিয়ে করবে? দ্বিতীয় বিয়েতে সে হয়তো স্বামী পাবে, তার সামাজিক পরিচিতি পাবে। কিন্তু সন্তানটা? সন্তানের প্রতি ওই বাবা যে সমান ভালবাসা দেবে, তা তো নয়। তাই আমি মনে করি, দ্বিতীয় বিয়েই করব না! তা হলে সন্তান তার নিজের বাবাকেই পাবে, অন্য কাউকে বাবা বলতে হবে না। মা হিসাবে আত্মত্যাগ করাটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।“

ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় জুটি ছিল শাকিব খান-অপু বিশ্বাস। হঠাৎ করেই ২০১৫ সালের দিকে অপু উধাও হয়ে যান চলচ্চিত্র থেকে। পরে ২০১৭ সালের জানুয়ারিতে ঢাকায় হঠাৎ প্রকাশ্যে আসেন এক টিভি অনুষ্ঠানে। তখনই জানান, শাকিব খানের সঙ্গে তার বিয়ে হয়েছে, জয় তাদেরই সন্তান।

বিয়ের পর অবন্তী বিশ্বাস অপু থেকে ধর্মান্তরিত হয়ে অপু ইসলাম খান নাম নেওয়া এই চিত্রনায়িকা বলেছিলেন, শাকিবের কারণেই বিয়ে ও সন্তান হওয়ার খবর চেপে রেখেছিলেন তিনি।

পরে শাকিবও সেই বিয়ের কথা স্বীকার করে জানিয়েছিলেন, ২০০৮ সালে তাদের বিয়ে হয়। তখন গুঞ্জন ছিল, শাকিবের অন্য সম্পর্কের দিকে এগিয়ে যাওয়া দেখে বিয়ে-সন্তানের খবর প্রকাশ করে দিয়েছিলেন অপু।

এমন নানা আলোচনার মধ্যে ৯ মাসের মাথায় বিচ্ছেদ ঘটে অপু-শাকিবের। তখন থেকেই ‍গুঞ্জন শোনা যায়, বুবলীর প্রেমে মজেছেন শাকিব।

এর মধ্যে চলতি বছর সাবেক স্ত্রী অপু এবং ছেলে জয়কে নিয়ে শাকিব খানের যুক্তরাষ্ট্রে ঘুরে বেড়ানোর খবর আসে। গুঞ্জন শোনা যায়, ফের এক সংসারে ফিরছেন শাকিব-অপু।

ওই প্রসঙ্গ টেনে আনন্দবাজার জানতে চেয়েছিল, একসঙ্গে ঘোরাঘুরি করে অপু ও শাকিব কী বার্তা দিতে চেয়েছেন।

অপুর উত্তর হল, তিনি এবং শাকিব দুজনের কেউই চান না, তাদের ছেলে ‘ভাঙা’ পরিবারে বেড়ে উঠুক। তাই তারা একসঙ্গে বেড়াতে গিয়েছিলেন।

“যে কোনো সন্তানের কাছে পরিবার খুব গুরুত্বপূর্ণ। বাবা-মা হিসাবে সন্তানকে একটা সুনিশ্চিত জীবন দেওয়া আমাদের কর্তব্য। সন্তানকে যাতে কোনো অশান্তি ছুঁতে না পারে...। এই জিনিসটা জয় কখনও বুঝতেই পারে না। কারণ আমি, আমার শ্বশুর-শাশুড়ি, শাকিব সকলেই ভীষণ সচেতন।

“আমার ছেলের কাছে বিষয়টা এমন যে আমার মা কাজ করে, আমার বাবা কাজ করে। ব্যস্ত বলে দূরত্ব রয়েছে। কিন্তু ‘ব্রোকেন’ শব্দটার সঙ্গে ও পরিচিত নয়। জয়ের বাবাও চান না। জয় খুব ভাগ্যবান যে শাকিবের মত বাবা পেয়েছে।“

অপুর ভাষ্য, বাংলাদেশে তিনিই প্রথম নায়িকা যিনি বুঝিয়ে দিয়েছেন যে নায়িকাদের সন্তান হওয়ার পরও ভালো ক্যারিয়ার হওয়া সম্ভব।

“একটা সময় বাংলাদেশে নায়িকাদের এমন ধারণা ছিল, মা হয়েছি বলব না, আমার সন্তান আছে বলব না, আমি বিবাহিত বলব না। কিন্তু আমার মনে হয়, সত্যিটা লুকিয়ে রাখা যায় না। অপু বিশ্বাস সেই চলতি ধারণা ভেঙেছে।

“মা হয়েছি, সকলকে জানিয়েছি। সন্তান হওয়ার পর অনেক ধরনের শারীরিক পরিবর্তন নিয়ে চিন্তা থাকে। আমি অবশ্য নিজেকে বদলেছি। মাতৃত্বকে উদযাপন করেছি।“

কিছুদিন আগে এক সাক্ষাৎকারে অপু বলেছিলেন, তিনি বুবলীকে ‘ঘৃণা করেন’। এ ধরনের সরাসরি আক্রমণের কারণ জানতে চাইলে অপু বলেন, “কলকাতা আমার কাজের জায়গা। সেখানে বসে এ সব নিয়ে মন্তব্য করলে অলক্ষ্মী হতে পারে। তাই কোনো মন্তব্য করব না।“

আগামীতে শাকিবের সঙ্গে এক সিনেমা এবং সংসারে দেখা যাবে কী না, সেই প্রশ্নে অপু বলেন, “এখনই বলতে পারছি না। সময়ের উপর ছেড়ে দিলাম। দেখুন না কী হয়!”