ব্যাংকের মার্জিন কমলো, তবুও ঋণের সুদ ১৩ শতাংশ ছাড়াল

আট মাস আগে নতুন পদ্ধতি চালুর পর স্মার্ট ও সুদহার দু্টোই সর্বোচ্চ।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 29 Feb 2024, 02:49 PM
Updated : 29 Feb 2024, 02:49 PM

বাড়তে থাকা ব্যাংক ঋণের সুদহার এবার ১৩ শতাংশ ছাড়িয়েছে, যা সুদের হার নির্ধারণের নতুন পদ্ধতি ‘স্মার্ট’ চালু হওয়ার পর থেকে সর্বোচ্চ।

বৃহস্পতিবার মার্চ মাসের জন্য বাংলাদেশ ব্যাংকের ‘স্মার্ট’ এর হার প্রকাশের পর ঋণে সর্বোচ্চ সুদের হার দাঁড়িয়েছে ১৩ দশমিক ১১ শতাংশ। যদিও কেন্দ্রীয় ব্যাংক ঋণের হার নির্ধারণে ব্যাংকের মার্জিনের হার আগের চেয়ে ২৫ বেসিস পয়েন্ট কমিয়েছে।

নতুন হার অনুযায়ী একটি ব্যাংক চাইলে মার্চ থেকে তার গ্রাহককে ঋণ দিতে সর্বোচ্চ ১৩ দশমিক ১১ শতাংশ হারে সুদ নিতে পারবে। তবে আগের মতোই ব্যাংক-গ্রাহক সম্পর্কের ভিত্তিতে তা কম হওয়ার সুযোগও রয়েছে।

এদিন মার্জিন কমানোর সার্কুলারে কেন্দ্রীয় ব্যাংক জানিয়েছে, এখন থেকে ব্যাংকগুলো ‘স্মার্ট’ সুদহারের সঙ্গে সর্বোচ্চ ৩ দশমিক ৫০ শতাংশ মার্জিন যোগ করতে পারবে। এতদিন যা ছিল তিন দশমিক ৭৫ শতাংশ।

মার্চে ঋণ বিতরণে স্মার্ট (সিক্স মান্থস মুভিং অ্যাভারেজ রেট অব ট্রেজারি বিল) এর নতুন হার নির্ধারণ করা হয়েছে ৯ দশমিক ৬১ শতাংশ। এর সঙ্গে নতুন মার্জিন যোগ করে সর্বোচ্চ সুদহার ঠিক করতে পারবে ব্যাংকগুলো।

আট মাস আগে স্মার্ট চালুর পর থেকে এ দুই হারই সর্বোচ্চ এবং এক মাসের ব্যবধানে স্মার্টও বেড়েছে সবচেয়ে বেশি। আগের মাসের চেয়ে বেড়েছে ৯৩ বেসিস পয়েন্ট।

ফেব্রুয়ারির স্মার্ট ঠিক হয়েছে ৯ দশমিক ৬১ শতাংশ। জানুয়ারিতে যা ছিল ৮ দশমিক ৬৮ শতাংশ।

নিয়ম অনুযায়ী, ফেব্রুয়ারি মাসের ‘স্মার্ট’ সুদহার প্রযোজ্য হবে মার্চ মাসে বিতরণ করা নতুন ঋণের বেলায়।

আগামী মার্চ থেকে নতুন ঋণ বিতরণে স্মার্ট’ সুদহার ৯.৬১ শতাংশ ধরতে হবে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোকে।

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে মুদ্রানীতির সিদ্ধান্তের আলোকে গত ২০২৩ সালের জুলাই মাসে ‘স্মার্ট’ সুদহার চালু করে বাংলাদেশ ব্যাংক। ওই মাসটিতে প্রথমবার জুন মাসের জন্য ‘স্মার্ট’ রেট ছিল ৭ দশমিক ১০।

এর আগে একক মাস হিসেবে স্মার্ট সুদহার সর্বোচ্চ বেড়েছিল গত জানুয়ারি মাসে ৫৪ বেসিস পয়েন্ট।

গত জুলাই থেকে ‘স্মার্ট’ রেট ও ব্যাংকের মার্জিন হার বেড়েই চলছে। স্মার্ট হার প্রকাশের পর থেকে এ পর্যন্ত আট মাসে বাড়ল দুই দশমিক ৫১ বেসিস পয়েন্ট বা ৩৫ দশমিক ৩৫ শতাংশ।

এরপর এবারই প্রথমবার ব্যাংকের মার্জিন কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এদিন নতুন সিদ্ধান্তে ব্যাংকের মার্জিন কিছুটা কমানো হলেও সুদ বেড়ে ১৩ শতাংশ ছাড়িয়েছে। গ্রাহক পর্যায়ে এক মাসে ঋণের সুদহার বেড়েছে ৬৮ বেসিস পয়েন্ট। ফেব্রুয়ারিতে যা ছিল সর্বোচ্চ ১২ দশমিক ৪৩ শতাংশ।

নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, প্রি-শিপমেন্ট রপ্তানি ঋণ এবং কৃষি ও পল্লী ঋণে ব্যাংক সুদহার নির্ধারণ করতে পারবে স্মার্ট সুদহারের সঙ্গে সর্বোচ্চ ২ দশমিক ৫ শতাংশ যোগ করে, এতদিন যা ছিল দুই দশমিক ৭৫ শতাংশ।

এর সঙ্গে ১ শতাংশ হারে সার্ভিস চার্জ নিতে পারবে এসএমই ঋণের বিপরীতে। এটিতে মার্জিন আগের মতই রেখেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

মুদ্রানীতির আধুনিকায়ন, মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ ও বাজারভিত্তিক সুদহার ব্যবস্থা চালু করতে আইএমএফ এর শর্ত বাস্তবায়নে গত জুলাই মাস থেকে স্মার্ট সুদহার করিডোর চালু করে বাংলাদেশ ব্যাংক।

প্রতি ছয় মাসের ট্রেজারি বিল ও বন্ডের গড় সুদহার বের করে হিসাব করা হয় ‘স্মার্ট’ রেট। প্রতি মাসের শেষে বা প্রথম দিনে স্মার্ট সুদহার কতো হবে তা জানিয়ে দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক, যা পরবর্তী মাসে বিতরণ করা নতুন ঋণের জন্য প্রযোজ্য হবে।