চমেকের ইনফার্টিলিটি ইউনিটের সেবায় ১৪৪ নারীর সন্তান ধারণ

সেখানে ইনট্রা ইউটেরাইন ইনসামিনেশন-আইইউআই প্রযুক্তি চালু হয়েছে গত ২৫ অক্টোবর।

চট্টগ্রাম ব্যুরো
Published : 25 Nov 2023, 05:40 PM
Updated : 25 Nov 2023, 05:40 PM

নিঃসন্তান নারীদের চিকিৎসা সেবায় চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালে যে ইনফার্টিলিটি ইউনিট চালু আছে, সেখানে সেবা নিয়ে আড়াই বছরে ১৪৪ নারী সন্তান ধারণে সক্ষম হয়েছেন।

শনিবার হাসপাতালটিতে ‘স্টাব্লিশমেন্ট অব সেকেন্ডারি ইনফার্টিলিটি কেয়ার ইউনিট’ বিষয়ক বৈজ্ঞানিক সেমিনার ও মতবিনিময় সভায় এ তথ্য জানানো হয়েছে।

২০২১ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালের প্রসূতি ও স্ত্রীরোগ বিভাগের অধীনে ইনফার্টিলিটি ইউনিটের কার্যক্রম শুরু হয়। গত ২৫ অক্টোবর সেখানে ইনট্রা ইউটেরাইন ইনসামিনেশন-আইইউআই প্রযুক্তি চালু হয়।

সেমিনারে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল জনাব মো. শামীম আহসান বলেন, “ইনফার্টিলিটি ইউনিটে উন্নত যন্ত্রপাতি সংযোজনের মাধ্যমে ইউনিটকে আরো উন্নত করা হবে।”

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. সাহেনা আক্তার বলেন, “ইনফার্টিলিটি চিকিৎসায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল সাফল্যের সাথে এগিয়ে যাচ্ছে। ভবিষ্যতে যে কোনো প্রয়োজনে আমরা সহযোগিতা করব। সন্তান ধারণে আইইউআই প্রযুক্তি উন্নত প্রযুক্তি।”

অবস্ট্রাটিক্যাল অ্যান্ড গাইনোকলজিক্যাল সোসাইটি অব বাংলাদেশ-ওজিএসবি’র চট্টগ্রাম শাখার এ ভাইস প্রেসিডেন্ট বলেন, “এর পরের ধাপ হলো আইভিএফ বা আর্টিফিশিয়াল রিপ্রোডাক্টিভ টেকনোলজি (এআরটি)। আশা করি, ভবিষ্যতে আধুনিক আইভিএফ পদ্ধতিও চালু হবে।”

ওজিএসবি চট্টগ্রাম শাখা এবং চট্টগ্রাম মেডিকেল হাসপাতালের অবস্টেট্রিক অ্যান্ড গাইনোকোলজি বিভাগ যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

ওজিএসবি চট্টগ্রাম শাখার সভাপতি কামরুন নেসা রুনার সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন সংগঠনের চট্টগ্রাম শাখার সাবেক সভাপতি ডা. রওশন মোরশেদ।

উপস্থিত ছিলেন ফার্টিলিটি অ্যান্ড স্টেরিলিটি সোসাইটি অব বাংলাদেশের (এফএসএসবি) সভাপতি পারভিন ফাতেমা, সাধারণ সম্পাদক রাশিদা বেগম, ওজিএসবির সহ সভাপতি সালেহা বেগম চৌধুরী, ওজিএসবি চট্টগ্রাম শাখার সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর শর্মিলা বড়ুয়া ও সাবেক সভাপতি শামীমা সিদ্দিকা।