জাদেজা-রাহুলের ব্যাটে ভারতের লিড

হায়দরাবাদ টেস্টের দ্বিতীয় দিন শেষে প্রথম ইনিংসে ১৭৫ রানে এগিয়ে আছে স্বাগতিকরা।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 26 Jan 2024, 12:30 PM
Updated : 26 Jan 2024, 12:30 PM

দিনের শেষ তিন বলে স্পিনার টম হার্টলিকে দুটি চার ও একটি ছক্কা হাঁকালেন আকসার প্যাটেল। পুরো দিনের চিত্রই যেন ফুটে উঠল এতে। ইয়াশাসবি জয়সওয়াল, লোকেশ রাহুল ও রবীন্দ্র জাদেজার আশি ছোঁয়া ইনিংসে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ভারত পেল লিড।

হায়দরাবাদ টেস্টের দ্বিতীয় দিনও নিজেদের করে নিয়েছে ভারত। প্রথম দিন ইংলিশদের ২৪৬ রানে গুটিয়ে দেওয়া স্বাগতিক দল দ্বিতীয় দিন শেষ করেছে ৭ উইকেটে ৪২১ রানে। এগিয়ে আছে তারা ১৭৫ রানে।

শতকের সম্ভাবনা জাগিয়েও পারেননি জয়সওয়াল ও রাহুল। ৭৪ বলে ১০ চার ও ৩ ছক্কায় ৮০ রান করেন ওপেনার জয়সওয়াল। ভিরাট কোহলির অনুপস্থিতিতে চারে নেমে রাহুল খেলেন ৮ চার ও ২ ছক্কায় ১২৩ বলে ৮৬ রানের ইনিংস।

এই দুজন না পারলেও তিন অঙ্ক ছোঁয়ার সুযোগ এখনও আছে জাদেজার। দিন শেষে ১৫৫ বলে ৭ চার ও ২ ছক্কায় ৮১ রানে অপরাজিত আছেন এই লেগ স্পিনিং অলরাউন্ডার।

স্পিন সহায়ক উইকেটে দ্বিতীয় দিনে ইংল্যান্ডের সেরা বোলার ‘পার্ট টাইম’ স্পিনার জো রুট। ৭৭ রানে তিনি নেন ২ উইকেট।

দুই অনভিজ্ঞ স্পিনার রেহান আহমেদ ও অভিষিক্ত হার্টলি যথেষ্ট ধারাবাহিক ছিলেন না এ দিন। লম্বা স্পেলে বোলিং করেননি অভিজ্ঞ স্পিনার জ্যাক লিচ।

ভারত শুক্রবার দ্বিতীয় দিন শুরু করে ১ উইকেটে ১১৯ রান নিয়ে। দিনের প্রথম ওভারে বল হাতে পেয়েই ইংল্যান্ডকে সাফল্য এনে দেন রুট। আগের দিন ৭৬ রানে অপরাজিত জয়সওয়াল দ্বিতীয় বলে চার মারার এক বল পরই ফিরতি ক্যাচ দিয়ে ফেরেন।

ওই ওভারে শূন্য রানে ফিরতে পারতেন রাহুল। তবে উইকেটে পেছনে ক্যাচ নিতে পারেননি কিপার বেন ফোকস। শুরুতেই জীবন পাওয়ার সুযোগটা দারুণভাবে কাজে লাগান রাহুল।

শুবমান গিল অবশ্য ইনিংস টেনে নিতে পারেননি। হার্টলিকে আলগা শটে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন তিনি ৬৬ বলে ২৩ রান করে। তার অমন শট দেখে বিরক্তি প্রকাশ করেন ধারাভাষ্যকার ও ভারতের ব্যাটিং কিংবদন্তি সুনিল গাভাস্কার।

গত বছরের মার্চে আহমেদাবাদে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সেঞ্চুরির পর এই নিয়ে টানা ১০ ইনিংসে পঞ্চাশ ছুঁতে ব্যর্থ হলেন ২৪ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান।

লাঞ্চের আগে আর কোনো উইকেট হারায়নি ভারত। রাহুল ফিফটি করেন ৭২ বলে। চতুর্থ উইকেটে তিনি ৬৪ রানের জুটি গড়েন শ্রেয়াস আইয়ারের সঙ্গে।

লাঞ্চের পর তৃতীয় ওভারে অপ্রয়োজনীয় এক শট খেলে শ্রেয়াস বিদায় নেন ৬৩ বলে ৩৫ রান করে। লেগ স্পিনার রেহানকে সুইপ করে ডিপ মিড উইকেটে ধরা পড়েন তিনি। এরপরই উইকেটে যান জাদেজা।

লিচকে একটি ছক্কা মারার পরের বলে জাদেজাকে কট বিহাইন্ডের আউট দিয়েছিলেন আম্পায়ার। ব্যাটসম্যান রিভিউ নিয়ে বাঁচেন ব্যাটে বল না লাগায়।

রাহুলের শতক মনে হচ্ছিল সময়ের ব্যাপার। কিন্তু হার্টলিকে উড়িয়ে মেরে বাউন্ডারিতে ধরা পড়েন তিনি মাইলফলক থেকে ১৪ রান দূরে থাকতে।

৭৪ বলে ৬৫ রানের জুটি ভাঙার পর শ্রিকর ভারতের সঙ্গে আরেকটি পঞ্চাশোর্ধ (১৪১ বলে ৬৮) জুটি গড়েন জাদেজা। কিপার-ব্যাটসম্যান ভারত ৮১ বলে ৪১ রান করে এলবিডব্লিউ হন রুটের বলে।

রুটের পরের ওভারে রবিচন্দ্রন অশ্বিন রান আউটে কাটা পড়েন জাদেজার সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে। আকসারকে নিয়ে দিনের বাকিটা কাটিয়ে দেন জাদেজা। ৬৩ রানের জুটিতে অবিচ্ছিন্ন আছেন দুজন। ৬২ বলে ৫ চার ও এক ছক্কায় ৩৫ রানে খেলছেন আকসার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ইংল্যান্ড ১ম ইনিংস: ২৪৬

ভারত ১ম ইনিংস: ১১০ ওভারে ৪২১/৭ (আগের দিন ১১৯/১) (জয়সওয়াল ৮০, গিল ২৩, রাহুল ৮৬, শ্রেয়াস ৩৫, জাদেজা ৮১*, ভারত ৪১, অশ্বিন ১, আকসার ৩৫*; উড ১৩-০-৪৩-০, হার্টলি ২৫-০-১৩১-২, লিচ ২৫-৬-৫৪-১, রেহান ২৩-৩-১০৫-১, রুট ২৪-২-৭৭-২)