অসুস্থ মায়ের প্রেরণায় ভারতকে গুঁড়িয়ে দিলেন ম্যাককয়

রেকর্ড গড়া বোলিংয়ের পর ক্যারিবিয়ান পেসার বললেন তার মায়ের কথা।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 2 August 2022, 04:44 AM
Updated : 2 August 2022, 04:44 AM

বাড়িতে অসুস্থ মা। তার শয্যাপাশেই থাকার কথা ছেলের। তবে মা নিজেই ছেলেকে পাঠিয়ে দিলেন মাঠে। উজ্জীবিত ছেলে আগুনে বোলিংয়ে গুঁড়িয়ে দিলেন শক্তিশালী ভারতীয় ব্যাটিং। ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের জয়ের নায়ক ওবেড ম্যাককয়ের গল্পটা এমনই।

প্রথম ম্যাচ হেরে সিরিজের ফেরার লড়াইয়ে সোমবার মাঠে নামে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সেন্ট কিটসে ম্যাচের প্রথম বলেই বড় শিকার ধরে শুরু করেন ম্যাককয়। বাড়তি লাফানো দুর্দান্ত ডেলিভারিতে ফিরিয়ে দেন ভারতীয় অধিনায়ক রোহিত শর্মাকে।

সেটি কেবলই শুরু। নিজের দ্বিতীয় ওভারেই ১৪৮ কিলোমিটার গতির বলে আউট করেন বিপজ্জনক সূর্যকুমার যাদবকে। সপ্তদশ ওভারে আক্রমণে ফিরে বিদায় করেন রবীন্দ্র জাদেজাকে। এরপর নিজের শেষ ওভারে নেন তিন উইকেট! একে একে আউট করেন ভারতের ‘ফিনিশার’ দিনেশ কার্তিকের সঙ্গে রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও ভুবনেশ্বর কুমারকে।

সব মিলিয়ে ২৫ বছর বয়সী বাঁহাতি পেসারের শিকার ৪ ওভারে ১৭ রানে ৬ উইকেট। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে এই সংস্করণে প্রথমবার ৬ উইকেট নিতে পারলেন কোনো বোলার। ভারতের বিপক্ষে আগে ৫ উইকেটও ছিল না বিশ্ব ক্রিকেটে কোনো বোলারের।

ভারতকে ১৩৮ রানে আটকে রেখে ৫ উইকেটের জয়ে সিরিজে সমতা ফেরায় ওয়েস্ট ইন্ডিজ।

ম্যাচ সেরার পুরস্কার নিতে গিয়ে ম্যাককয় বললেন তার মায়ের কথা।

“ইশ্বরের প্রতি কৃতজ্ঞতা। আমি এটা করতে পারছি আমার মায়ের কারণে। বাড়িতে তিনি অসুস্থ। তিনিই আমাকে প্রেরণা জোগাচ্ছেন আরও ভালো খেলোয়াড় হয়ে উঠতে।”

৬ উইকেটের মধ্যে প্রথম বলেই আউট করা রোহিতের উইকেট তার কাছে গুরুত্বপূর্ণ মনে হয়েছে ম্যাচের প্রেক্ষাপটে।

“এই উইকেটের জন্য আমি কৃতজ্ঞ। শুরুতেই এমন একজন ব্যাটসম্যানকে হারিয়ে তারা চাপে পড়ে যায়। পাওয়ার প্লেতে আমি সবসময়ই উইকেট শিকার করার পথ খুঁজি। কারণ উইকেট নিতে পারলেই রানের গতিতে লাগাম দেওয়া যায়।”

পাঁচ ম্যাচ সিরিজের তৃতীয়টি বুধবারই।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক