তরুণ ক্রিকেটাররা দেশের বাইরেও ভালো করবে, বিশ্বাস কোচের

চান্দিকা হাথুরুসিংহের মতে, আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের নতুন চক্রে ভালো করার রসদ আছে বাংলাদেশ দলে।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 5 Dec 2023, 09:58 AM
Updated : 5 Dec 2023, 09:58 AM

‘দেশে জয়, বিদেশে লড়াই’- এই মন্ত্রে আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের নতুন চক্র শুরু করেছে বাংলাদেশ। সিলেট টেস্টের জয় দিয়ে পথচলার শুরুটা হয়েছে দারুণ। একইরকম আশা মিরপুর টেস্ট ঘিরেও। তবে শুধু দেশের মাঠে নয়, তরুণ এই দলের দেশের বাইরেও নিজেদের মেলে ধরার সামর্থ্য আছে বলে বিশ্বাস কোচ চান্দিকা হাথুরুসিংহের।

সাদা পোশাকের ক্রিকেটে বাংলাদেশের পরিসংখ্যান এখনও সাদামাটা। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপেও ব্যতিক্রম নয়। তবে এবার টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের নতুন চক্র শুরুর আগে থেকে নতুন সম্ভাবনার আশা শোনাচ্ছেন বাংলাদেশের প্রধান কোচ। সিলেট টেস্টে নিউ জিল্যান্ডকে বড় ব্যবধানে হারিয়ে যাত্রা শুরুর পর দেশের মাঠে ভালো খেলার ও ম্যাচ জেতার আরও বিশ্বাস জন্মেছে হাথুরুসিংহের। 

ঢাকায় সিরিজ জেতার সম্ভাবনার সামনে দাঁড়িয়ে আরও একবার তাই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে নিজেদের লক্ষ্য মনে করিয়ে দিলেন হাথুরুসিংহে। 

“বাস্তবিক লক্ষ্য (আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে)... ঘরের মাঠে সবগুলো ম্যাচ জেতার চেষ্টা করা। আমার মতে, আমরা এটি করতে পারব। সিরিজ শুরুর আগেও আমি বলেছি, আমাদের লক্ষ্য ঘরে ভালো খেলা। এরপর বাইরে গিয়ে লড়াই করা। আমি মনে করি, বাস্তবিক অর্থেই আমরা এটি করতে পারব।”

পরিসংখ্যানের দিক থেকে সবশেষ দুই চক্রে ঘরের চেয়ে বাইরেই তুলনামূলক ভালো করেছে বাংলাদেশ। প্রথমবার শ্রীলঙ্কার মাঠে একটি টেস্ট ড্র করেছে তারা, হেরেছে ঘরের মাঠে দুটিসহ বাকি ছয় ম্যাচের সবকটি। 

পরের চক্রে একমাত্র জয় নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে, তাদেরই মাঠে। এছাড়া ড্র হয় শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্ট। সব মিলিয়ে দুই আসরে ১৯ ম্যাচে জয় ১টি, ড্র ২টি। এর মধ্যে ঘরের মাঠে আট ম্যাচে নেই কোনো জয়, ড্র ১টি।

চলতি আসরে কিউইদের বিপক্ষে তুলনামূলক অনভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের নিয়েও ইতিবাচক শুরু করেছে নাজমুল হোসেন শান্তর নেতৃত্বাধীন দল। সামনের দিনগুলোতে দেশের বাইরেও এই তরুণ ক্রিকেটারদের ওপর আস্থা রাখছেন বাংলাদেশের প্রধান কোচ।

“আমি আগেও বলেছি, ভিন্ন কন্ডিশনে লড়াই করার জন্য আমাদের ভালো ফাস্ট বোলার আছে। আমাদের তরুণ ক্রিকেটাররা এই মুহূর্তে যে কোনো কন্ডিশনে খেলার সামর্থ্য রাখে। আমাদের সেভাবে তৈরি হতে হবে।”

বিদেশে ভালো করার লক্ষ্যে জাতীয় ক্রিকেট লিগের গত দুই আসরে ডিউক বল ব্যবহার করা হয়েছে। দেওয়া হয়েছে সবগুলো ম্যাচের উইকেটে ন্যূনতম ঘাস রাখার নির্দেশনা। বিসিবির এসব পদক্ষেপে সাধুবাদ জানালেন হাথুরুসিংহে।

“বোর্ডও ভালো উদ্যোগ দিয়েছে যেমন (জাতীয় লিগে) ডিউক বলের ব্যবহার, উইকেটে ঘাস রেখে খেলা। ভালো ফাস্ট বোলার এবং ফাস্ট বোলিংয়ের বিপক্ষে ভালো খেলার মতো ব্যাটসম্যান তৈরিতে এসব সাহায্য করেছে।” 

মিরপুর শের-ই বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বুধবার সকাল সাড়ে ৯টায় শুরু হবে দ্বিতীয় টেস্ট।