সোহানের শতকের পর আল আমিনের ৫ উইকেট

এই দুজনের নৈপুণ্যে ইনিংস ব্যবধানে জিতেছে খুলনা বিভাগ।

ক্রীড়া প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 4 Nov 2023, 01:09 PM
Updated : 4 Nov 2023, 01:09 PM

বাঁহাতি স্পিনার তাইজুল ইসলামের বল ডিপ মিড উইকেট দিয়ে বাউন্ডারিতে পাঠালেন নুরুল হাসান সোহান। ৯৬ থেকে তিনি পৌঁছে গেলেন কাঙ্ক্ষিত তিন অঙ্কে। তার শতকে বড় পুঁজি গড়ার পর আল আমিন হোসেনের দারুণ বোলিংয়ে ইনিংস ব্যবধানে জিতল খুলনা বিভাগ।

জাতীয় ক্রিকেট লিগের চতুর্থ রাউন্ডে রাজশাহী বিভাগকে তিন দিনেই ইনিংস ও ১০৯ রানে হারিয়েছে খুলনা।

সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের একাডেমি মাঠে দ্বিতীয় স্তরের এই ম্যাচে ৭ উইকেটে ৪২৫ রান নিয়ে শনিবার তৃতীয় দিন শুরু করে খুলনা অল আউট হয় ৪৭২ রানে।

আগের দিন ৯৩ রানে অপরাজিত সোহান ১৮৪ বলে ১২ চার ও ২ ছক্কায় করেন ১২৫ রান। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার দশম শতক এটি।

রাজশাহীর দুই স্পিনার সানজামুল ইসলাম ও তাইজুল নেন ৪টি করে উইকেট।

জবাবে দ্বিতীয় ইনিংসে ১৭৮ রানেই গুটিয়ে যায় রাজশাহী। প্রথম ইনিংসে তারা করেছিল ১৮৫।

এবার রাজশাহীকে গুঁড়িয়ে দিতে ৪৮ রানে ৫ উইকেট নেন আল আমিন। জাতীয় দলের বাইরে থাকা ৩০ বছর বয়সী পেসার প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে সপ্তমবার পেলেন এই স্বাদ।

স্রেফ ৮ রানে ৩ শিকার ধরেন অফ স্পিনার নাহিদুল ইসলাম।

শতকের জন্য ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন সোহান।

চার ম্যাচে খুলনার এটি তৃতীয় জয়। ২৫ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্তরের শীর্ষে আছে তারা। তাদের সমান ম্যাচে তৃতীয় হারের স্বাদ পাওয়া রাজশাহী ৮ পয়েন্ট নিয়ে তলানিতে আছে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

রাজশাহী বিভাগ ১ম ইনিংস: ১৮৫

খুলনা বিভাগ ১ম ইনিংস: (আগের দিন ৪২৫/৭) ১৩৫.৩ ওভারে ৪৭২ (সোহান ১২৫, টিপু ২৮, আল আমিন ০, হালিম ১; শফিকুল ২২-২-৮৬-০, মোহর ২৪-৪-৯০-১, সানজামুল ২৫-৫-৮৯-৪, সাব্বির হোসেন ৮-১-৪৩-১, তাইজুল ৪১.৩-৮-১২০-৪, শাহাদাত ১৫-১-৩৫-০)

রাজশাহী বিভাগ ২য় ইনিংস:  ৫৪.৪ ওভারে ১৭৮ (মিজানুর ২৩, সাব্বির হোসেন ২৩, ইমরান ২৬, আশিক ৪১, শাখির ১৪, সাব্বির রহমান ২৫, শাহাদাত ০, সানজামুল ১৬, তাইজুল ১, মোহর ০, শফিকুল ০; আল আমিন ১২-২-৪৮-৫, জিয়াউর ১১-১-৩১-০, টিপু ১৩-৩-৩৬-০, হালিম ৬-১-১৯-১-, মিঠুন ২-০-৮-০, সৌম্য ৭-১-১৯-১, নাইহদুল ৪.৪.১-৮-৩)

ফল: খুলনা বিভাগ ইনিংস ও ১০৯ রানে জয়ী

ম্যান অব দা ম্যাচ: নুরুল হাসান সোহান

ফের শতক হাতছাড়া মুমিনুলের

শতকের সম্ভাবনা জাগিয়ে আক্ষেপ নিয়ে ফেরাকে যেন ‘অভ্যাসে’ পরিণত করেছেন মুমিনুল হক। আবারও তিনি আউট হয়েছেন শতকের দুয়ারে গিয়ে। তার দল অবশ্য ভালো অবস্থানে আছে।

সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় স্তরের ম্যাচে শনিবার চট্টগ্রাম দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে ৯ উইকেটে ২৫৬ রানে। প্রথম ইনিংস ৯৮ রানে পিছিয়ে থাকা বরিশাল বিভাগের লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩৫৫। তৃতীয় দিন শেষে ২১ রানেই ২ উইকেট হারিয়েছে তারা।

চট্টগ্রামের হয়ে মুমিনুল এ দিন করেন ৮৪ রান। প্রথম ইনিংসে তার রান ছিল ৮১। এর আগে প্রথম রাউন্ডে ৯৫ ও তৃতীয় রাউন্ডে ৮৮ রানে আউট হয়েছিলেন জাতীয় দলের সাবেক টেস্ট অধিনায়ক।  

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

চট্টগ্রাম বিভাগ ১ম ইনিংস: ২৯৮

বরিশাল বিভাগ ১ম ইনিংস: (আগের দিন ১৯৬/৯) ৭৫.৫ ওভারে ২০০ (ফজলে মাহমুদ ৫৪, রুয়েল ২, তানভির ০; ফাহাদ ১৫-২-৪০-৩, সৈকত ৩-০-২৫-০, ইফরান ১৬-৩-৫০-২, ইয়াসিন ১৩.৩-৩-৩২-২, নাঈম ২২-৯-৩১-৩, মহিদুল ৬-২-৬-০)

চট্টগ্রাম বিভাগ ২য় ইনিংস: ৬৬ ওভারে ২৫৬/৯ ডিক্লে. (সৈকত ২৯, পারভেজ ২৪, মুমিনুল ৮৪, ইয়াসির ২৭, শামীম ১৫, নাঈম ২৩, ইরফান ০, ইয়াসিন ৩, মহিদুল ১৭, ইফরান ২৭*, ফাহাদ ০*; রুয়েল ৫-০-২৯-০, রাব্বি ১৪-২-৫৬-১, সোহাগ ১১-০-৩৬-১, তানভির ২২-২-৭৪-৩, মইন ১৩-০-৫২-৩, মইনুল ১-০-২-০)

বরিশাল বিভাগ ২য় ইনিংস: (লক্ষ্য ৩৫৫) ১৬ ওভারে ২১/২ (মইনুল ৫, শাহরিয়ার ৬, ইফতেখার ৭*, রুয়েল ১*; ফাহাদ ৫-২-৭-১, ইফরান ৩-১-৫-০, নাঈম ৫-২-৬-০, ইয়াসিন ৩-১-২-১)