‘ওপেনিংয়ে আমার গড় তো ৬০’, সমালোচনার জবাবে স্মিথ

ওপেনার হিসেবে শুরুটা ভালো না হলেও ব্রিজবেন টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে আত্মবিশ্বাসের রসদ পাচ্ছেন স্টিভেন স্মিথ।

স্পোর্টস ডেস্কবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 31 Jan 2024, 07:04 AM
Updated : 31 Jan 2024, 07:04 AM

ক্যারিয়ারের নতুন অধ্যায়ের মাত্রই শুরু। এর মধ্যেই ঢাক গুড়গুড় উঠতে শুরু করেছিল। ওপেনিংয়ে স্টিভেন স্মিথের সামর্থ্য নিয়ে টুকটা প্রশ্ন আর সংশয় তুলছিলেন কেউ কেউ। ব্রিজবেন টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসের অসাধারণ ব্যাট করে তা থামিয়ে দিয়েছেন তিনি। অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যান এবার মুখেও জবাবটা দিলেন কিছুটা মজা করে। মনে করিয়ে দিলেন, ওপেনিংয়ে তার ব্যাটিং গড় এখন বেশ হৃষ্টপুষ্ট।

ডেভিড ওয়ার্নারের অবসরের পর স্মিথের ওপেন করার আগ্রহ ও তাকে ওপেনার হিসেবে বেছে নেওয়ায় অস্ট্রেলিয়ান ম্যানেজমেন্টের সিদ্ধান্ত নিয়ে আলোচনা-সমালোচনা হয়েছে অনেক। ১০৫ টেস্টের ক্যারিয়ারে সাড়ে ৯ হাজার রান ও ৩২ সেঞ্চুরির পর প্রথমবার ওপেন করতে নামেন তিনি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ দিয়ে। 

ওপেনার হিসেবে প্রথম ইনিংসে অ্যাডিলেইডে আউট হন তিনি ১২ রানে। দ্বিতীয় ইনিংসে ছোট্ট রান তাড়ায় অপরাজিত থাকেন ১১ রানে। পরের টেস্টে ব্রিজবেনে আউট হয়ে যান ৬ রানে। তার এই শুরুর ব্যর্থতা নিয়ে অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটে আঙুল তোলার পালাও শুরু হয়।

তবে ব্রিজবেনের দ্বিতীয় ইনিংসে দারুণ লড়িয়ে এক ইনিংস উপহার দেন তিনি। শামার জোসেফের তোপের সামনেও খেই না হারিয়ে এক প্রান্ত আগলে দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে দলকে নিয়ে যান জয়ের খুব কাছে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পেরে ওঠেননি সঙ্গীদের ব্যর্থতায়। আরেকপ্রান্তে কেউ টিকতে না পারায় ৮ রানে হেরে যায় অস্ট্রেলিয়া। 

স্মিথ আদ্যন্ত ব্যাট করে ৯১ রানে অপরাজিত থেকে ‘ক্যারিং দা ব্যাট থ্রু আ কমপ্লিটেড ইনিংস’ কীর্তি গড়েন ওপেনিংয়ের মাত্র দ্বিতীয় টেস্টেই। 

এবার তিনি ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে নেতৃত্ব দেবেন তিনি প্যাট কামিন্সের অনুপস্থিতিতে। তিন ম্যাচের সিরিজ শুরুর হওয়ার আগে তাকে কথা বলতে হলো টেস্টে ওপেন করার অভিজ্ঞতা নিয়ে। 

“দুই-তিন ইনিংস বা এরকম কিছুতে ব্যর্থ হওয়ার পরই অনেক অনেক আলোচনা হয়েছে আমাকে নিয়ে। অথচ মাত্র দুটি ইনিংসে কম রানে আউট হয়েছি, আরেকটিতে ছিলাম অপরাজিত। এখন দেখুন, ওপেনার হিসেবে আমার গড় ৬০!” 

“এটা নিয়ে আমি আসলে খুব বেশি ভাবিনি। স্রেফ আর একটি পজিশনই তো! অনেকবারই দ্রুত উইকেটে যেতে হওয়ায় নতুন বল খেলতে হয়েছে আমাকে। আমার জন্য তাই এটি স্রেফ আর সব পজিশনের মতোই এবং আমি নিজের মতোই খেলছি, ব্যস।”

ওপেনিংয়ে চার ইনিংসে তার রান এখন ১২০। দুটিতে অপরাজিত থাকায় গড় ৬০। তিন নম্বর পজিশনে তার গড় ৬৭.০৭, চারে ৬১.৫০ ও পাঁচে ৫৭.১৮। 

এই ৩৪ বছর বয়সে ক্যারিয়ারের নতুন দায়িত্বে কতদিন তিনি থাকবেন বা টিকতে পারবেন, নিশ্চিত নন নিজেও। দলের জন্য যে কোনো পজিশনে ব্যাট করতেও তার আপত্তি নেই। তবে আপাতত তিনি উপভোগ করছেন নতুন চ্যালেঞ্জ। 

“দলের যেখানে প্রয়োজন, আমি সেখানেই ব্যাট করতে প্রস্তুত থাকব। তবে ওপেনিংয়ে আমি স্বস্তিই পাচ্ছি। নতুন দায়িত্বের প্রথম সপ্তাহ দুয়েক উপভোগ করেছি।” 

“আমি জানি না, ভবিষ্যতে কী হবে বা আমাকে আবার নিচে নামিয়ে দেওয়া হবে কি না। দল যা চায়, সবই করব আমি। তবে আপাতত ইনিংসের শুরুতে কাজটা উপভোগ করছি।”