কোভিড:  টানা তৃতীয় দিন চারশর বেশি রোগী শনাক্ত

নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার কমে হয়েছে ৮ দশমিক ৪১ শতাংশ।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 14 Sept 2022, 09:58 AM
Updated : 14 Sept 2022, 09:58 AM

দেশে টানা দ্বিতীয় তৃতীয় মত চারশর বেশি কোভিড রোগী শনাক্ত হয়েছে; তবে নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে দৈনিক শনাক্তের হার নেমে এসেছে ৮ শতাংশের ঘরে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, বুধবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় ৪ হাজার ৭৮১টি নমুনা পরীক্ষা করে ৪০২ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছে, মৃত্যু হয়েছে একজনের।

তাতে নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে শনাক্তের হার কমে হয়েছে ৮ দশমিক ৪১ শতাংশ। আগের দিন এই হার ১০ দশমিক ৫৫ শতাংশ ছিল।

এর আগে সবশেষ গত ২৩ জুলাই শনাক্তের হার ছিল ১০ দশমিক ১০ শতাংশ। সেদিন ৪ হাজার ৪১৫টি নমুনা পরীক্ষা করে ৪৪৬ জন রোগী শনাক্ত হয়েছিল।

পরদিন ২৪ জুলাই তা ৭ দশমিক ০৪ শতাংশে নেমে আসে। এরপর থেকে শনাক্তের হার ১০ শতাংশের নিচেই ছিল।

দেড় মাস পর সোমবার শনাক্ত রোগীর সংখ্যা আবার চারশ ছাড়ায়; মোট ৪২১ জনের শরীরে সংক্রমণ ধরা পড়ে। মঙ্গলবার শনাক্ত হয় ৪৩৫ জন কোভিড রোগী। এরপর বুধবারও চারশর বেশি রোগী শনাক্তের খবর এল।

নতুন রোগীদের নিয়ে দেশে শনাক্ত মোট কোভিড রোগীর সংখ্যা বেড়ে ২০ লাখ ১৬ হাজার ১৪৫ জন হয়েছে। তাদের মধ্যে মোট ২৯ হাজার ৩৩৬ জনের মৃত্যু হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় ২১৭ জন কোভিড রোগীর সেরে ওঠার তথ্য দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। তাদের নিয়ে এ পর্যন্ত সুস্থ হলেন ১৯ লাখ ৫৯ হাজার ৪৮৪ জন।

গত একদিনে যে ৪০২ জন রোগী শনাক্তের কথা জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর,তাদের মধ্যে ৩২৬ জন ঢাকা বিভাগের। দেশের ৩৭ জেলায় এই সময়ে নতুন রোগী শনাক্ত হয়নি।

যে একজন মারা গেছেন, তিনি ছিলেন বরিশাল বিভাগের বাসিন্দা। একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পঞ্চাশোর্ধ ওই ব্যক্তি মারা যান।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ ধরা পড়েছিল ২০২০ সালের ৮ মার্চ। ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ব্যাপক বিস্তারের মধ্যে গত বছরের ২৮ জুলাই দেশে রেকর্ড ১৬ হাজার ২৩০ জন নতুন রোগী শনাক্ত হয়।

প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর ২০২০ সালের ১৮ মার্চ দেশে প্রথম মৃত্যুর তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। ২০২১ সালের ৫ অগাস্ট ও ১০ অগাস্ট ২৬৪ জন করে মৃত্যুর খবর আসে, যা মহামারীর মধ্যে এক দিনের সর্বোচ্চ সংখ্যা।

বিশ্বে করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত মারা গেছে ৬৫ লাখ ১৮ হাজারের বেশি মানুষ। বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত ছাড়িয়েছে ৬০ কোটি ৯৮ লাখের বেশি।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক