ওয়ালটন হাই টেক পার্কে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

সরকারি কেনাকাটায় দেশে উৎপাদিত পণ্যের প্রতি গুরুত্ব দেওয়া জরুরি বলে মনে করেন প্রতিমন্ত্রী পলক।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 8 Feb 2024, 06:29 PM
Updated : 8 Feb 2024, 06:29 PM

ইলেকট্রনিক্স ও ডিজিটাল ডিভাইস পণ্য উৎপাদনে ওয়ালটন বাংলাদেশকে ‘আত্ম-নির্ভরশীল ও রপ্তানিকারক দেশে পরিণত হওয়ার অনুপ্রেরণা যুগিয়েছে’ বলে মন্তব্য করেছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

ওয়ালটন এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলেছে, বৃহস্পতিবার দুপুরে গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটন হেডকোয়ার্টার্স পরিদর্শনে এসে প্রতিমন্ত্রী এ মন্তব্য করেন।

প্রতিমন্ত্রীকে উদ্ধৃত করে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “হোম অ্যাপ্লায়েন্স ও ইলেকট্রনিক্স পণ্য দিয়ে শুরু করে ওয়ালটন এখন ফ্রিজ, টেলিভিশনসহ অনেক স্মার্ট ডিভাইসে বিশ্বের সবচেয়ে ইউনিক ও ইনোভেটিভ সলিউশন এনেছে। যা বাংলাদেশকে একটি উদ্ভাবনী জাতি হিসেবে পরিণত করতে খুবই সহায়ক।”

সরকারি কেনাকাটায় দেশে উৎপাদিত পণ্যের প্রতি গুরুত্ব দেওয়া জরুরি বলে মনে করেন প্রতিমন্ত্রী পলক। 

তিনি বলেন, গত জনশুমারি প্রকল্পে ওয়ালটনের প্রায় ৪ লাখ ট্যাব ব্যবহৃত হয়েছিল। ওই প্রকল্পে ‘মেইড ইন বাংলাদেশ’ ট্যাব ব্যবহার করায় সরকারের প্রায় ১৫০ কোটি টাকা সাশ্রয় হয়েছিল।

“ওয়ালটনের ওই ট্যাবগুলোর মান খুবই ভালো হওয়ায় জনশুমারি প্রকল্প শেষে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো থেকে ওয়ালটনকে ধন্যবাদপত্র দেওয়া হয়। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী খুশি হয়ে ট্যাবগুলো শিক্ষার্থীদের মাঝে বিতরণের অনুমোদন দেন। সরকারি প্রকিউরমেন্টে এরকম সাহসী পদক্ষেপ নেওয়া হলে কয়েক হাজার কোটি টাকা সাশ্রয় করা সম্ভব।”

পরিদর্শনকালে ওয়ালটন ডিজি-টেকের এসএসডি প্রোডাক্টের বাণিজ্যিক উৎপাদন কার্যক্রম উদ্বোধন করেন জুনাইদ আহমেদ পলক। পাশাপাশি তিনি ওয়ালটন-ল্যাপটপ ক্যাশব্যাক অফারের উদ্বোধন ঘোষণা করেন এবং নেক্সজি সিরিজের নতুন মডেলের স্মার্টফোন ‘এন৭২’ এর মোড়ক উন্মোচন করেন।

ওয়ালটন বলছে, ‘বিয়ন্ড সাউন্ড, বিয়ন্ড বাউন্ডারিস’ থিমের ওয়ালটনের নেক্সজি সিরিজের ‘এন৭২’ নতুন মডেলের স্মার্টফোনটিতে রয়েছে ডুয়াল স্টেরিও স্পিকার। ফলে এর ব্যবহারকারীরা মিউজিকে পাবেন এক অনন্য অভিজ্ঞতা।

ওয়ালটন ল্যাপটপ ক্যাশব্যাক অফারের আওতায় যে কোনো ধরনের কম্পিউটার পণ্য ও ডিভাইস ক্রয়ে ১০০ শতাংশ পর্যন্ত ক্যাশব্যাক পেতে পারেন ক্রেতারা।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, হেডকোয়ার্টার্স পরিদর্শনকালে ওয়ালটন টিভির ক্লিনরুম ফ্যাসিলিটিতে বাংলাদেশে প্রস্তুতকৃত প্রথম স্যাটেলাইটের পূর্ণাঙ্গ সিমুলেশন কার্যক্রম পরিদর্শন করেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী।

বাংলাদেশের প্রথম লুনার স্যাটেলাইট ডেভেলপমেন্ট প্রকল্প বাস্তবায়নে এসপায়ার টু ইনোভেট (এটুআই) কে সহায়তা করছে ওয়ালটন টেলিভিশনের ক্লিনরুম রিসার্স ল্যাব ও টেকনলোজি।

আইসিটি সচিব মো. সামসুল আরেফিন, বঙ্গবন্ধু হাই-টেক পার্কের ম্যানেজিং ডিরেক্টর জি এস এম জাফরউল্লাহ, এটুআইর প্রজেক্ট ডিরেক্টর মো. মামুনুর রশীদ ভূঁইয়া, ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান এস এম রেজাউল আলম, ম্যানেজিং ডিরেক্টর এস এম মঞ্জুরুল আলম এবং ওয়ালটন হাই-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ পিএলসির পরিচালক ও ওয়ালটন টিভির মনিটরিং ডিরেক্টর রাইসা সিগমা হিমা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।