নতুন আলুর সরবরাহ বাড়ার ‘অপেক্ষায়’ বাণিজ্যমন্ত্রী

টিপু মুনশি বলেন, “দেশে নতুন আলু আসতে শুরু করেছে। আগামী এক মাসের মধ্যে বাজারে পুরোপুরি নতুন আলু আসবে।“

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 6 Dec 2023, 11:11 AM
Updated : 6 Dec 2023, 11:11 AM

নতুন আলু পুরোদমে না উঠা পর্যন্ত রান্নার উপকরণটির দাম সহনীয় পর্যায়ে নেমে আসার সম্ভাবনা দেখছেন না বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

তিনি বলেন, বাজারে নতুন আলু আসতে শুরু করায় আগামী এক মাসের মধ্যে রান্নার উপকরণটির দাম কমে আসবে।

বুধবার রাজধানীর তেজগাঁওয়ে টিসিবির ফ্যামিলি স্মার্ট কার্ড বিতরণ এবং সাশ্রয়ী মূল্যে পণ্য বিক্রয় কার্যক্রমের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের এ কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী বলেন, “ভারত থেকে আলু আসায় বাজারে ব্যাপক ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে। দেশে নতুন আলু আসতে শুরু করেছে। আগামী এক মাসের মধ্যে বাজারে পুরোপুরি নতুন আলু আসবে। এতে করে আলুর দাম সহনীয় পর্যায়ে থাকবে।”

আলুর বাজার দ্রুত অস্থিতিশীল হওয়ার পরপরই সরকার আমদানির অনুমতি দেয় বলে জানান তিনি।

দাম নিয়ন্ত্রণ করতে সরকার গত ৩০ অক্টোবর আলু আমদানির অনুমতি দেয়। এর পর দেশে আমদানির আলু আসতে শুরু করে।

সরকার প্রতিকেজি আলু ৩৬ টাকা নির্ধারণ করে দিলেও বাজার নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। এক পর্যায়ে দাম উঠে যায় ৬০ থেকে ৭০ টাকা, তবে এখন তা নেমে এসেছে ৪৫ থেকে ৫০ টাকায়।

শীত ঘনিয়ে আসায় বাজারে সবজির পাশাপাশি উঠতে শুরু করেছে নতুন আলু। এখনও আকারে বেশ ছোট, দাম পুরান আলুর কাছাকাছিই।

বাজার নিয়ন্ত্রণে পেঁয়াজ ও ডিম আমদানির অনুমোদনও দিয়েছিল সরকার। তবে বিভিন্ন জটিলতায় ডিম আমদানি মাঝ পথে আটকে আছে।

ট্রাকসেল বাড়নোর চেষ্টা চলছে

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে টিপু মুনশি বলেছেন রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা টিসিবির কার্ডধারীরা প্রতি মাসে একবার করে পণ্য পাবেনই, কারণ তাদের নামে পণ্য নির্দিষ্ট করা থাকে।

তিনি বলেন, “কার্ডধারীদের বাইরে থাকা নিম্ন আয়ের মানুষকে ভর্তুকি মূল্যে  ট্রাকসেলে প্রতিদিন পণ্য বিক্রয় করা হচ্ছে। একটি ট্রাক থেকে ৩০০ জনের পণ্য পাওয়ার সুযোগ রয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই যারা আগে আসেন তারা পাবেন।“

প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার আলোকে রাজধানীতে ৩০টি খোলা ট্রাকের মাধ্যমে সয়াবিন, পেঁয়াজ, আলু  ভর্তুকি মূল্যে বিক্রি করা হচ্ছে জানিয়ে বাণিজ্য মন্ত্রী বলেন, “সরকার ‘ট্রাকসেলের’ সংখ্যা বাড়ানোর চেষ্টা করছে। পাশাপাশি দেশের বড় শহরগুলোতে কীভাবে ট্রাকসেল চালু করা যায় সেটাও দেখা হচ্ছে।”

বাণিজ্যমন্ত্রির ভাষ্য “টিসিবি একটি চ্যালেঞ্জ নিয়ে এককোটি ফ্যামিলি কার্ডকে স্মার্ট কার্ডে রুপান্তরের কর্মযজ্ঞ পরিচালনা করে যাচ্ছে। চলতি মাসের মধ্যে ২০ লাখ স্মার্ট কার্ড বিতরণ করা সম্ভব হবে।”

রোজায় বাজার ঠিক রাখার ব্যবস্থা

আগামী বছরের মার্চ মাসে শুরু হতে চলা রোজায় খেজুরসহ অন্যান্য নিত্যপণ্যের সরবরাহ ঠিক রেখে বাজার নিয়ন্ত্রণে রাখতে সরকার সব ধরনের প্রস্তুতি নিচ্ছে বলেও জানায় টিপু মুনশি।

খেজুরসহ অন্যান্য পণ্য আমদানিতে শুল্ক কমানো হবে কি না এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, “বাণিজ্য মন্ত্রণালয় শুল্ক কমাতে পারে না। তবে কমানোর জন্য জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের কাছে অনুরোধ জানাতে পারে এবং পরিস্থিতি বিবেচনায় করা হয়ে থাকে।

“রমজানে মাসে মানুষ যাতে খেজুরসহ অন্যান্য নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য সহজে ক্রয় করতে পারে সেজন্য সরকারের পক্ষ থেকে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।”

অনুষ্ঠানে বাণিজ্য সচিব তপন কান্তি ঘোষ, টিসিবির চেয়ারম্যান বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মো. আরিফুল হাসান, উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সেলিম রেজা উপস্থিত ছিলেন।