গোপালগঞ্জ ৩: সপ্তমবার নৌকার মাঝি শেখ হাসিনা

১৯৮১ সালে থেকে প্রায় ৪২ বছর ধরে দলীয় প্রধানের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন তিনি।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 26 Nov 2023, 02:03 PM
Updated : 26 Nov 2023, 02:03 PM

গোপালগঞ্জ-৩ আসনে সপ্তমবারের মতো নৌকার হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা।

রোববার বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের জন্য মনোনীত প্রার্থীর তালিকা ঘোষণা করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

এবার মনোনয়নের ক্ষেত্রে গোপালগঞ্জের আসনগুলোতে পুরনোদেরই রেখেছে ক্ষমতাসীন দলটি। সেখানকার বাকি দুই আসন গোপালগঞ্জ-১ এ ফারুক খান এবং গোপালগঞ্জ-২ আসনে শেখ ফজলুল করিম সেলিমই থাকছেন।

টানা তিনবারের প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর জ্যেষ্ঠ কন্যা শেখ হাসিনা এর আগে ১৯৯৬ সালেও প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন। দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে তার সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেলে টানা চতুর্থবারের মতো শেখ হাসিনার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার সুযোগ আছে। তা হলে সবমিলিয়ে তিনি পাঁচবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হবেন।

১৯৮১ সালে থেকে প্রায় ৪২ বছর ধরে দেশের অন্যতম বৃহৎ রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগের দলীয় প্রধানের দায়িত্ব পালন করছেন শেখ হাসিনা।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হত্যাকাণ্ডের ২১ বছর পর আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা ১৯৯৬ সালের ২৩ জুন প্রথমবার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন।

২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বর নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করলে তিনি দ্বিতীয়বারের মতো প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

এরপর ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকার বিজয়ী হলে ১২ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে তৃতীয়বার শপথ নেন তিনি।

সবশেষ একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ জয়ে চতুর্থবারের মতো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন শেখ হাসিনা।

এছাড়া বাংলাদেশের তিনটি জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা ছিলেন শেখ হাসিনা।

১৯৮৬ সালে অনুষ্ঠিত সাধারণ নির্বাচনে শেখ হাসিনা তিনটি সংসদীয় আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ওই সময় তিনি বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

ওই নির্বাচনের পরই দেশ থেকে সামরিক আইন প্রত্যাহার করে সাংবিধানিক প্রক্রিয়া শুরু হয়। ১৯৯১ সালে পঞ্চম জাতীয় সংসদের বিরোধী দলের নেতা নির্বাচিত হন শেখ হাসিনা।

এছাড়া ২০০১ সালে অষ্টম জাতীয় সংসদে বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তিনি।