ঢাকার অতিগুরুত্বপূর্ণ সড়কে হকার বসতে দেওয়া হবে না: তাপস

মেয়র তাপস বলেন, “আগামী সপ্তাহ থেকে আমরা ‘লাল’ চিহ্নিত অতিগুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলো থেকে হকার সরানোর অভিযান শুরু করব”

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 7 Sept 2022, 07:34 PM
Updated : 7 Sept 2022, 07:34 PM

আগামী সপ্তাহ থেকে রাজধানীর ‘লাল’ চিহ্নিত অতিগুরুত্বপূর্ণ সড়কে আর হকার বসতে না দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস।

বুধবার বঙ্গবন্ধু এভিনিউ বিপণি বিতানের নির্মাণ কাজের ভিত্তিস্থাপনের পর সাংবাদিকদের একথা জানান তিনি।

মেয়র তাপস বলেন, “আজকে বঙ্গবন্ধু এভিনিউ হকার্স মার্কেটের ভিত্তি স্থাপনের মাধ্যমে আমরা একটি নতুন পদক্ষেপে যাচ্ছি, নতুন কার্যক্রমে যাচ্ছি। যেমনি আমরা ১০তলা মার্কেটে আমরা (তাদেরকে) পুনর্বাসন করব, তার সাথে সাথে আগামী সপ্তাহ থেকে আমাদের নির্দিষ্ট রাস্তা, নির্দিষ্ট সড়ক আমরা চিহ্নিত করব।

“কেবল অতি গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলো লাল চিহ্নিত করা হবে। হলুদ ও সবুজও চিহ্নিত করা হবে। লাল চিহ্নিত এলাকায় সড়কে হাঁটার পথে আমরা আর হকার বসতে দেবো না। আগামী সপ্তাহ থেকে আমরা লাল চিহ্নিত অতি গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলো হতে হকার সরানোর অভিযান শুরু করব।”

বঙ্গবন্ধু এভিনিউতে আধুনিক ১০তলা বিপণি বিতান নির্মাণ কাজের শুরুকে হকারদের প্রতীক্ষা পূরণের আশা উল্লেখ করে তাপস বলেন, “অত্র এলাকার হকার ভাইবোনদের অত্যন্ত প্রয়োজনীয় একটি মার্কেট। দীর্ঘসূত্রতার কারণে দীর্ঘদিন এটা করা হয়নি। আজকে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত যে, এটার কাজ শুরু করতে পেরেছি। আমরা আশা করব আগামী দুই বছরের মধ্যে এর নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হবে। হকার ভাইবোনদের জন্য এটি একটি বড় মার্কেট হবে। তারা তাদের কার্যক্রম সফলভাবে সম্পন্ন করতে পারবে।”

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মেয়র বলেন, “আপনারা জানেন যে, ২০১৯ সালে ডেঙ্গু রোগের প্রাদুর্ভাব যেরকম মহামারীর আকার ধারণ করেছিল এবার সেই পর্যায়ে যেতে পারে বলে বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করেছিল। আমরা এজন্য প্রথম থেকেই আগাম প্রস্তুতি নিয়েছি।

“যে জরিপগুলোর ফলাফল এসেছিল, সেগুলোর উপর ভিত্তি করে আমরা বিস্তর চিরুনি অভিযান পরিচালনা করেছি এবং বিগত দুই মাসব্যাপী নিয়ন্ত্রণ কক্ষ পরিচালনা করে (এডিস মশার) উৎসগুলো ধ্বংসের মাধ্যমে আমরা প্রত্যেকদিন দিনব্যাপী ব্যাপক কার্যক্রম নিয়েছি। যার ফলশ্রুতিতে আমরা ঢাকাবাসীকে এডিস মশার বিস্তার থেকে মুক্তি দিতে পেরেছি। আমরা মনে করি ডেঙ্গু রোগের প্রাদুর্ভাব দক্ষিণ সিটিতে এখনো পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। ডেঙ্গু রোগে যাদের মৃত্যু হয়েছে আমি তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি।”

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক