জঙ্গির খোঁজে বনানীতে অভিযানে নেমে কাউকে পায়নি পুলিশ

আদালত থেকে ছিনিয়ে নেওয়া জঙ্গি ও সহযোগীদের ধরতে এ অভিযান চলছে বলে জানিয়েছেন বনানী থানার ওসি।

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 3 Dec 2022, 04:50 PM
Updated : 3 Dec 2022, 04:50 PM

ঢাকার আদালত পাড়া থেকে ছিনতাই হওয়া জঙ্গি ও সহযোগীদের ধরতে রাজধানীর বনানীর কাকলীতে বিভিন্ন হোটেলে ও মেসে তিন ঘণ্টা অভিযান চললেও আটকের কোনো তথ্য জানায়নি পুলিশ।

শনিবার রাত ৮টায় শুরু হওয়া অভিযান শেষ হয় রাত ১১টায়।

অভিযান শেষের খবর দিয়ে ডিএমপির গুলশান বিভাগের উপ কমিশনার আব্দুল আহাদ বলেন, "প্রায় তিন ঘণ্টার এই অভিযানে আমরা কাউকে পাইনি। তবে আমরা যখনই কোনো তথ্য পাব তখনই অভিযান চালাব।"

এর আগে বনানী থানার ওসি নূরে আজম মিয়া বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, আদালত পাড়া থেকে পালিয়ে যাওয়া জঙ্গি এবং তাদের সহযোগীরা অবস্থান করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে কাকলী এলাকায় অভিযান শুরু করেছেন তারা।

তিনি বলেন, "আমরা কয়েকটি মেসে ও হোটেলে অভিযান চালাচ্ছি। আমাদের অভিযান অব্যাহত আছে।"

আগামী ১৬ ডিসেম্বরকে সামনে রেখে ১৫ দিনের জন্য দেশজুড়ে অভিযান শুরুর ঘোষণা দেয় পুলিশ সদর দপ্তর।

বৃহস্পতিবার ওই ঘোষণার দুই দিন পর ঢাকায় অভিযানে নামল পুলিশ।

বনানীতে রাত ১১টায় অভিযান শেষে উপ কমিশনার আহাদ জানান, কিছু তথ্যের ভিত্তিতে কাকলী এলাকায় অভিযান চালিয়েছিলেন তারা।

জঙ্গিদের পাশাপাশি মাদক কারবারি ও সন্ত্রাসীদের অবস্থানের তথ্যের ভিত্তিতে এ অভিযান বলে জানান তিনি।

রাত আট থেকে এ এলাকার হোটেল পূরবী, ৭১ মেস, ঢাকা মেস, ভাই ভাই মেস ও হাজী মেসে ঢুকে তল্লাশী করে পুলিশের বিভিন্ন দল। তবে ছিনতাই হওয়া জঙ্গি বা তাদের সহযোগীসহ সন্দেহজনক কাউকে আটক করেনি পুলিশ।

বনানীর পাশাপাশি শনিবার রাতে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) রাজধানীর মতিঝিল এলাকাতেও অভিযান চালাচ্ছে।

মতিঝিল বিভাগের উপ কমিশনার হায়াতুল ইসলাম খান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে মতিঝিল এলাকার বিভিন্ন মেসে এবং হোটেলে অভিযান শুরুর কথা জানিয়েছেন।

"জঙ্গি ও সন্ত্রাসী গ্রেপ্তারে এ অভিযান," যোগ করেন তিনি।

এ এলাকায় রাত ৯টায় শুরু হওয়া এ অভিযানে রাত ১১টা পর্যন্ত গ্রেপ্তারের কোনো খবর জানাতে পারেনি পুলিশ।

ডিসেম্বরে রাজনীতির মাঠ গরম হওয়ার মধ্যে সভা-সমাবেশ-বিক্ষোভে বাধাসহ নানা অভিযোগ করছে বিএনপি। ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় সমাবেশ করার ঘোষণাও রয়েছে দলটির।

তার মধ্যে এই অভিযান চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, আদালত প্রাঙ্গণ থেকে জঙ্গি পালানোসহ ডিসেম্বর মাসে বিভিন্ন দিবস ঘিরে এই পদক্ষেপ।

বৃহস্পতিবার পুলিশ সদর দপ্তর থেকে সারা দেশের পুলিশ ইউনিটগুলোকে বিশেষ অভিযানের নির্দেশনাসহ চিঠি দেওয়া হয়েছে।

গত ২০ নভেম্বর দুপুরে ঢাকার আদালত প্রাঙ্গণ থেকে পুলিশের দিকে স্প্রে মেরে প্রকাশক ফয়সাল আরেফিন দীপন হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই জঙ্গি আনসারুল্লাহ বাংলাটিমের সদস্য আবু সিদ্দিক সোহেল ও মইনুল হাসান শামীমকে ছিনিয়ে নেয় তাদের সহযোগীরা।

সেদিন তাদের আদালতে আনা হয়েছিল মোহাম্মদপুর থানায় করা সন্ত্রাসবিরোধী আইনের এক মামলার শুনানিতে।

Also Read: ডিসেম্বরে পুলিশের ‘বিশেষ অভিযান’

Also Read: জঙ্গি ছিনতাইয়ের ঘটনায় মামলা, ১০ জন রিমান্ডে

Also Read: আদালত প্রাঙ্গণে ‘পুলিশকে স্প্রে মেরে’ মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই জঙ্গি ছিনতাই

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক