বাসে যৌন নিপীড়ন: এক দিনের রিমান্ডে চালক

ধানমণ্ডি থেকে বাসায় যাওয়ার পথে ২৪ জুলাই রাতে বাসের ভেতর নিপীড়নের শিকার হন এক ছাত্রী। পরে তিনি ফেইসবুকে ঘটনাটি প্রকাশ করেন।

আদালত প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 28 July 2022, 03:58 PM
Updated : 28 July 2022, 03:58 PM

রাজধানীতে চলন্ত বাসে এক ছাত্রীকে ‘যৌন নিপীড়নের’ অভিযোগে গ্রেপ্তার চালক মো. মাহবুবুর রহমানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এক দিনের রিমান্ড দিয়েছে আদালত।

বৃহস্পতিবার তাকে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পাঁচদিনের রিমান্ডের আবেদন করেন আজিমপুর পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আসিফ হাসিবুজ্জামান।

অন্যদিকে মাহবুবুরের আইনজীবী নুরনবী রিমান্ড বাতিল চেয়ে আবেদন করেন। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক সৈয়দ মোস্তফা রেজা নুর তার এক দিনের রিমান্ড দেন।

এর আগে রাজধানীর তুরাগ থানার বালুর মাঠ থেকে বুধবার রাতে বিকাশ পরিবহনের বাস চালক মাহবুবুরকে গ্রেপ্তার করে ঢাকার লালবাগ থানা পুলিশ। এ সময় বাসটিও জব্দ করা হয়।

২৪ জুলাই রাতে ধানমণ্ডি থেকে বাসায় যাওয়ার পথে বাসের ভেতর নিপীড়নের শিকার হন এক ছাত্রী। পরে তিনি ফেইসবুকে ঘটনাটি প্রকাশ করেন। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির চেষ্টায় থাকা ওই শিক্ষার্থীর বাসা ঢাকার আজিমপুর এলাকায়।

আদালত পুলিশের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম জানান, ওই ছাত্রী রাত ৮টা ৪০ মিনিটের দিকে ধানমন্ডি থেকে আজিমপুর যাওয়ার উদ্দেশে বিকাশ পরিবহনের একটি বাসে ওঠেন।

"বাসে ওঠে কানে হেডফোন দিয়ে গান শুনতে শুনতে একপর্যায়ে তিনি তন্দ্রাচ্ছন্ন হয়ে পড়েন। পরে রাত আনুমানিক ৯টা ১০ মিনিটের দিকে ভুক্তভোগী অনুভব করেন, তার শরীরে কেউ যেন হাত দিয়েছে।

"তাৎক্ষণিক তিনি তাকিয়ে দেখেন বাসে কোনো যাত্রী নেই এবং তার পাশের সিটে বাসটির হেলপার বসা।"

ওই ছাত্রী বিপদ আঁচ করতে পেরে বাসের হেলপারকে ধাক্কা দিয়ে সরানোর চেষ্টা করেন জানিয়ে পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, "সিট থেকে দাঁড়িয়ে নামার চেষ্টা করলে হেলপার তাকে পেছন থেকে এক হাতে মুখ চেপে ধরেন।

"ওই ছাত্রী নিজেকে বাঁচানোর জন্য সর্বশক্তি দিয়ে হেলপারের কাছ থেকে ছুটে চালককে চিৎকার করে বাস থামাতে বলেন। কিন্তু চালক তখন বাস না থামিয়ে দ্রুতগতিতে ইডেন কলেজের সামনে দিয়ে আজিমপুরের দিকে যেতে থাকেন।"

একপর্যায়ে আজিমপুর গার্লস স্কুলের কাছে বাসটি কিছুটা গতি কমালে ওই ছাত্রী লাফ দিয়ে বাস থেকে নেমে আত্মরক্ষা করেন বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম।

তিনি জানান, ওই ছাত্রী ঘটনাটি ফেইসবুকে জানালে লালবাগ থানা পুলিশ ভুক্তভোগীর কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ করে। পরে সিসিটিভি ভিডিও দেখে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় বিকাশ পরিবহনের বাসটি শনাক্ত করা হয়।

এ ঘটনায় লালবাগ থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা হয়। পরে ঘটনার সঙ্গে জড়িত বাসচালক মাহবুবুরের অবস্থান শনাক্ত করে গ্রেপ্তার করা হয়। বাসের হেলপারকে গ্রেপ্তারের জন্য অভিযান চলছে।

আরও খবর

Also Read: চলন্ত বাসে শিক্ষার্থীকে ‘যৌন নিপীড়ন’, চালক গ্রেপ্তার

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক