এসএসসির ফল ‘২৮ থেকে ৩০ নভেম্বরের মধ্যে’

এই তিন দিনের যে কোনো দিন ফল ঘোষণার সময় চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে।

নিজস্ব প্রতিবেদকবিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published : 17 Nov 2022, 11:37 AM
Updated : 17 Nov 2022, 11:37 AM

চলতি বছরের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল আগামী ২৮ থেকে ৩০ নভেম্বরের মধ্যে যে কোনো দিন প্রকাশ করা হতে পারে।

আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির সভাপতি ও ঢাকা বোর্ডের চেয়ারম্যান তপন কুমার সরকার বৃহস্পতিবার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, “ফলাফল প্রকাশের সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে আমাদের। দুই মাসের মধ্যে ফলাফল প্রকাশ করার কথা ছিল, সে অনুযায়ী আগামী ৩০ নভেম্বর দুই মাস শেষ হবে। এরই মধ্যে আমরা ফল প্রকাশ করব।

“শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ২৮, ২৯, ৩০ নভেম্বর– এই তিন দিনের যে কোনো দিন সময় চেয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে চিঠি পাঠানো হয়েছে। এই তিন দিনের যেদিন প্রধানমন্ত্রী সম্মতি দেবেন, সেদিনই এসএসসির ফল প্রকাশ করা হবে।”

আগামী ২৯ নভেম্বর রাষ্ট্রীয় সফরে জাপান যাওয়ার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার; তিনি ফিরবেন ৩ ডিসেম্বর। সেক্ষেত্রে ২৮ নভেম্বরেই ফল ঘোষণার আনুষ্ঠানিকতা সারা হতে পারে বলে কর্মকর্তাদের কথায় আভাস মিলেছে।   

প্রশ্ন ফাঁসের কারণে এ বছর দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের ৪টি পরীক্ষা স্থগিত হয়ে যায়। পরে

১০ থেকে ১৩ অক্টোবরের মধ্যে পরীক্ষাগুলো নেওয়া হয়। 

দেরিতে এ বোর্ডে পরীক্ষা নেয়া হলেও সব বোর্ডের ফল একসাথে প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন তপন কুমার সরকার।

এ বছর নয়টি সাধারণ বোর্ড, মাদ্রাসা ও কারিগরি শিক্ষা বোর্ড সব মিলিয়ে ২০ লাখ ২১ হাজার ৮৬৮ জন শিক্ষার্থী এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় অংশ নেয়। 

দেশে সাধারণত ফেব্রুয়ারি মাসে মাধ্যমিক পরীক্ষা হয়ে আসছিল। করোনাভাইরাসের কারণে পুরো শিক্ষাসূচি পাল্টে যাওয়ায় গত বছর সাড়ে আট মাস পিছিয়ে নভেম্বরে এ পরীক্ষা নেয় সরকার। 

একই কারণে এবার সাড়ে চার মাস পিছিয়ে গত ১৯ জুন এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরুর কথা ছিল। বিভিন্ন জেলায় বন্যার কারণে স্থগিত হওয়া সে পরীক্ষা শুরু হয় আরও তিন মাস পর, ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে। 

মহামারীতে প্রস্তুতিতে ঘাটতি থাকায় এ বছর পুনর্বিন্যস্ত পাঠ্যসূচিতে পরীক্ষা নেওয়া হয়। ধর্ম ও নৈতিক শিক্ষা, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি, বাংলাদেশ ও বিশ্বপরিচয় এবং বিজ্ঞান- এসব বিষয়ে পরীক্ষা না নিয়ে সাবজেক্ট ম্যাপিংয়ের মাধ্যমে মূল্যায়ন করা হবে।

তৌফিক ইমরোজ খালিদী
প্রধান সম্পাদক ও প্রকাশক